ঘর থেকে জীবাণু দূর করার নিয়ম

প্রকাশিত: ০৪:৩৪, ১২ নভেম্বর ২০১৮

আপডেট: ০৪:৩৪, ১২ নভেম্বর ২০১৮

ডেস্ক প্রতিবেদন: অনেকেই দিনের বেলা জানালায় পর্দা দিয়ে রাখেন। এমনকি সূর্যের আলো এসে ঘর গরম হয়ে যাবে, তা ভেবেও ভারী পর্দা ব্যবহার করেন অনেকে। কিন্তু আপনার এই অভ্যাস বদলানোর সময় হয়েছে। কারণ সূর্যের আলো ঘরে ঢুকতে দিলে তা ঘর জীবাণুমুক্ত করতে পারে।  মাইক্রোবায়োম জার্নালে প্রকাশিত নতুন এক গবেষণা অনুযায়ী, সূর্যের আলোই অনেক ব্যাকটেরিয়াকে মেরে ফেলতে সক্ষম। এর অর্থ হলো, জানালার পর্দা সরিয়ে রাখলেই ঘরে সূর্যের আলো এসে ঘরটাকে অনেকটাই জীবাণুমুক্ত করে ফেলবে।  
সূর্যের আলোর অতিবেগুনী রশ্মি জীবাণুর ডিএনএ ধ্বংস করার মাধ্যমে তাদেরকে মেরে ফেলে, তা অনেক আগে থেকেই জানা কথা।  কিন্তু তা জানালার কাঁচের ভেতর দিয়ে আসে না। এ কারণে তা নিয়ে এর আগে গবেষণাও হয়নি। ইউনিভার্সিটি অব অরিগনের গবেষকরা স¤প্রতি এই বিষয়টি পরীক্ষা করে দেখেন।  ১১টি ঘরে বিভিন্ন ধরনের আলো ফেলেন তারা। এর আলোর মাঝে সাধারণ দিনের আলো বা শুধু অতিবেগুনী রশ্মি ছিল। দেখা যায়, অন্ধকার ঘরের তুলনায় আলোকিত ঘরে জীবাণু অনেক কম থাকে। বিশেষ করে শ্বসনতন্ত্রের ইনফেকশনের জন্য দায়ী ব্যাকটেরিয়াগুলো অনেক কমে যায়।  কাঁচের ভেতর দিয়ে অতিবেগুনী রশ্মি না আসলেও সাধারণ আলোটাই জীবাণু মেরে ফেলতে কাজ করে।
মূলত মানুষের ত্বকে যেসব জীবাণু থাকে ও ঘরের বাতাসে বা ধুলায় অবস্থান করে, সেগুলো মরে যায় আলোর উপস্থিতিতে।  সারাদিন জানালা দিয়ে আলো আসতে দিলে তাই এসব জীবাণু থেকে অসুস্থ হওয়ার আশঙ্কা অনেক কমে যায়। 

এই বিভাগের আরো খবর

ধনী হওয়ার উপায়

অনলাইন ডেস্ক: বর্তমান বিশ্বের অর্ধেক...

বিস্তারিত
ওষুধ ছাড়াই ভালো ঘুমের উপায়

অনলাইন ডেস্ক: শরীরের ক্লান্তি দূর...

বিস্তারিত
গিনেস রেকর্ডসে নাম লেখালেন কেশবতী

অনলাইন ডেস্ক: সুন্দর লম্বা চুল দিয়ে...

বিস্তারিত
নিয়মিত কফি পানে ওজন কমে

অনলাইন ডেস্ক: সকালে ঘুম থেকে উঠে এক...

বিস্তারিত
যে কাজগুলো ভালোবাসা গভীর করে

অনলাইন ডেস্ক: গভীর ভালোবেসে যে সুখ...

বিস্তারিত
রুই মাছের ডিম দিয়ে কাবাব

অনলাইন ডেস্ক: মাছ কিংবা মাংস নয়, মাছের...

বিস্তারিত
যে বিপদ হতে পারে অতিরিক্ত ঘুমের কারণে 

অনলাইন ডেস্ক: প্রতিদিনের ক্লান্তি...

বিস্তারিত
পেছনে হাটলে যে উপকার হয়

অনলাইন ডেস্ক: শরীর ও মন সুস্থ রাখতে...

বিস্তারিত
ঘাম না ঝড়িয়ে যেভাবে বাড়তি ওজন কমাবেন

অনলাইন ডেস্ক: বয়সের কারণে অথবা...

বিস্তারিত

0 মন্তব্য

আপনার মতামত প্রকাশ করুন

মন্তব্য প্রকাশ করুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না. প্রয়োজনীয় ক্ষেত্রগুলি চিহ্নিত করা আছে *