ঢাকা, মঙ্গলবার, ১১ ডিসেম্বর ২০১৮, ২৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৫

2018-12-11

, ২ রবিউস সানি ১৪৪০

বারী সিদ্দিকীর প্রথম মৃত্যুবার্ষিকী আজ

প্রকাশিত: ০১:৫৮ , ২৪ নভেম্বর ২০১৮ আপডেট: ০১:৫৮ , ২৪ নভেম্বর ২০১৮

বিনোদন ডেস্ক: বাংলার জনপ্রিয় সংগীতশিল্পী, গীতিকার ও বংশীবাদক ছিলেন আবদুল বারী সিদ্দিকী। আজ তার প্রথম মৃত্যুবার্ষিকী।

গত বছরের ১৭ নভেম্বর রাতে হৃদরোগে আক্রান্ত হলে তাকে ঢাকায় স্কয়ার হাসপাতালে ভর্তি করানো হয়। তাঁর শারীরিক অবস্থার উন্নতি না হওয়ায় তাকে যেখানে নিবিড় পর্যবেক্ষণে রাখা হয়। পরে, ২৪ নভেম্বর তিনি চিকিৎসাধীন অবস্থায় সেখানে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন।

বরেণ্য এই সংগীতশিল্পী গ্রামীণ লোকসংগীত ও আধ্যাত্মিক ধারার গানে অগ্রণী অবদান রেখে বাংলার মানুষের হৃদয়ে আসন করে নিয়েছেন। তার প্রায় প্রতিটি গানই মানুষের হৃদয়কে স্পর্শ করেছে। 

তার গাওয়া ‘শুয়া চান পাখি’, ‘আমার গায়ে যত দুঃখ সয়’, ‘সাড়ে তিন হাত কবর’, ‘পুবালি বাতাসে’, ‘তুমি থাকো কারাগারে’, ‘রজনী’, ‘আমার গায়ে যত দুঃখ সয়’, ‘ওগো ভাবিজান নাউ বাওয়া’, ‘মানুষ ধরো মানুষ ভজো’ গান গুলো আজও বাংলার মানুষের মুখে মুখে।

১৯৫৪ সালের ১৫ নভেম্বর বাংলাদেশের নেত্রকোনা জেলায় এক সংগীতজ্ঞ পরিবারে জন্মগ্রহণ করেন এই গুণী শিল্পী। তিনি ওস্তাদ আমিনুর রহমান, দবির খান, পান্নালাল ঘোষ সহ অসংখ্য গুণীশিল্পীর সরাসরি সান্নিধ্য লাভ করেন। এক সময় তিনি বাঁশির প্রতি আগ্রহী হয়ে ওঠেন ও বাঁশির ওপর উচ্চাঙ্গসংগীতে প্রশিক্ষণ নেন। নব্বইয়ের দশকে ভারতের পুনে গিয়ে পণ্ডিত ভিজি কার্নাডের কাছে তালিম নেন। দেশে ফিরে এসে লোকগীতির সাথে ক্লাসিক মিউজিকের সম্মেলনে গান গাওয়া শুরু করেন।

কিংবদন্তি বারী সিদ্দিকী ২০১৪ সালে প্রবাস প্রজন্ম জাপান সম্মাননায় ভূষিত হোন।

এই বিভাগের আরো খবর

0 মন্তব্য

আপনার মতামত প্রকাশ করুন

Message is required.
Name is required.
Email is