ঢাকা, মঙ্গলবার, ১১ ডিসেম্বর ২০১৮, ২৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৫

2018-12-11

, ২ রবিউস সানি ১৪৪০

অসুস্থ আমজাদ হোসেনকে ব্যাংকক নেওয়া হবে

প্রকাশিত: ০৬:০৬ , ২৫ নভেম্বর ২০১৮ আপডেট: ০৬:০৬ , ২৫ নভেম্বর ২০১৮

নিজস্ব প্রতিদেক : গুরুতর অসুস্থ প্রখ্যাত চিত্রপরিচালক আমজাদ হোসেনকে উন্নত চিকিৎসার জন্য থাইল্যান্ডের রাজধানী ব্যাংককে নেওয়া হবে। কিংবদন্তি এই নির্মাতাকে এয়ার অ্যাম্বুলেন্স যোগে ব্যাংককের বামরুনগ্রাদ হাসপাতালে নেওয়ার প্রস্তুতি চলছে। আর সেখানে নিয়ে যাওয়াসহ চিকিৎসার যাবতীয় ব্যয় বহন করবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। 

আমজাদ হোসেনের ছেলে সোহেল আরমান সাংবাদিকদের বলেন, বিদেশে বাবার সকল চিকিৎসা ব্যয় বহনে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সিদ্ধান্তের কথা আমাদের জানানো হয়েছে। তথ্যটি পাওয়ার পর আমরা ব্যাংককের বামরুনগ্রাদ হাসপাতালে যোগাযোগ করি। তারা বাবার সর্বশেষ শারীরিক অবস্থার রিপোর্ট জানতে চেয়েছে। আমরা যাবতীয় সকল রিপোর্ট সেখানে পাঠিয়েছি। বামরুনগ্রাদ হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ যখনই বাবাকে নিতে বলবে তখনই আমরা ব্যাংককের উদ্দেশে রওনা দেবো। 

এছাড়া আমজাদ হোসেনের চিকিৎসার জন্য প্রধানমন্ত্রী ২০ লাখ টাকা বরাদ্দ দিয়েছেন বলে জানান সোহেল আরমান।

গত ১৮ নভেম্বর সকালে ব্রেন স্ট্রোক করার পর আমজাদ হোসেনকে রাজধানীর তেজগাঁও বেসরকারি ইমপালস হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। এরপর তার চিকিৎসার সব দায়িত্ব নেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। 

৭৬ বছর বয়সী আমজাদ হোসেন একাধারে চলচ্চিত্র পরিচালক, প্রযোজক, গল্পকার, অভিনেতা, গীতিকার ও সাহিত্যিক হিসেবে পরিচিত। দীর্ঘ বর্ণাঢ্য ক্যারিয়ারে তিনি ‘ভাত দে’, ‘গোলাপী এখন ট্রেনে’, ‘সুন্দরী’, ‘দুই পয়সার আলতা’, ‘জন্ম থেকে জ্বলছি’র মতো কালজয়ী অনেক সিনেমা নির্মাণ করেছেন। 
‘গোলাপী এখন ট্রেনে’ ও ‘ভাত দে’ চলচ্চিত্রের জন্য তিনি শ্রেষ্ঠ পরিচালক হিসেবে জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার পেয়েছেন। শিল্পকলায় অবদানের জন্য বাংলাদেশ সরকার তাকে দেশের সর্বোচ্চ বেসামরিক সম্মান একুশে পদক (১৯৯৩) ও স্বাধীনতা পুরস্কারে ভূষিত করেছে। এছাড়া সাহিত্য রচনার জন্য তিনি ১৯৯৩ ও ১৯৯৪ সালে দুইবার অগ্রণী শিশু সাহিত্য পুরস্কার ও ২০০৪ সালে বাংলা একাডেমি পুরস্কার লাভ করেন।

এই বিভাগের আরো খবর

0 মন্তব্য

আপনার মতামত প্রকাশ করুন

Message is required.
Name is required.
Email is