দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের স্মৃতি বিজড়িত বিমানবন্দর এখন চারণ ভূমি

প্রকাশিত: ১০:২৯, ২৬ নভেম্বর ২০১৮

আপডেট: ১২:৩৪, ২৬ নভেম্বর ২০১৮

লালমনিরহাট প্রতিনিধি : লালমনিরহাটে চারণ ভূমিতে পরিণত হয়েছে এশিয়া মহাদেশের দ্বিতীয় বৃহত্তর বিমানবন্দর। ১৯৩১ সালে এগারোশ’ ৬৬ একর জমির ওপর এই বিমানবন্দরটি নির্মাণ করে তৎকালীন ব্রিটিশ সরকার। দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধে মিত্র বাহিনীর জন্য বড় ভূমিকা রাখে এটি। তবে যুদ্ধ শেষ হওয়ার পর থেকেই অচল হয়ে পড়ে এই বিমানবন্দর। আর দীর্ঘদিন অযতœ-অবহেলায় এখন নষ্ট হয়ে গেছে এর অবকাঠামো। সংশ্লিষ্টরা বলছেন, এই বিমানবন্দরটি চালু হলে পাল্টে যাবে উত্তরাঞ্চলের অর্থনীতি।

লালমনিরহাট সদর উপজেলার মহেন্দ্রনগর ও হারাটি গ্রামে ১৯৩১ সালে ১১শ’ ১৬৬ একর জায়গায় আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের নির্মাণের উদ্যোগ নেয় তৎকালীন ব্রিটিশ সরকার। এজন্য ভারত থেকে পাথর এনে নির্শাণ করা হয় চার কিলোমিটার রানওয়ে।

দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধে মিত্র বাহিনী ব্যবহার করে এই বিমানবন্দর। এরপর থেকে ধীরে অচল হয়ে পড়ে এই বিমান বন্দর। ১৯৫৮ সালে আবারো বিমান চলাচলের উদ্যোগ নেয়া হয়। তবে, যাত্রী না পাওয়ায় আবারো বন্ধ হয়ে যায়। ফলে বিমান গ্যারেজ, ট্যাক্সিওয়েসহ মূল অবকাঠামো নষ্ট হয়ে গেছে।

উত্তরাঞ্চলে শিল্প কারখানা গড়ে ওঠায় পাল্টে যাচ্ছে দৃশ্যপট। এই বিমানবন্দরটি চালু হলে বৃহত্তর রংপুরের অর্থনীতিতে আমূল পরিবর্তন আসবে বলে মনে করেন ব্যবসায়ীরা। জরুরি প্রয়োজনে সৈয়দপুর বিমানবন্দর ব্যবহার করতে হয় বিধায় আবারো এই বিমানবন্দর চালুর দাবি লালমনিরহাটবাসীর।

এদিকে, বিষয়টি নিয়ে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের সাথে যোগাযোগ করা হয়েছে বলে জানালেন জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ শফিউল আরিফ।

১৯৮৩ সালে বাংলাদেশ বিমান বাহিনী এখানে কৃষি প্রকল্প শুরু করে। এর অংশ হিসেবে মিলিটারি ফার্মের তত্বাবধায়নে গড়ে তোলা হয়েছে গরুর খামার। আর সংরক্ষিত ভূমি ব্যবহার হয় কৃষি কাজ ও পশু চারণ করায়।

 

এই বিভাগের আরো খবর

ঢালাইয়ের সময় ধসে পড়ল থানার বারান্দা

অনলাইন ডেস্ক: মুন্সিগঞ্জের লৌহজং...

বিস্তারিত
পাবনায় উদযাপিত হলো জাতীয় সংগীত উৎসব

পাবনা সংবাদদাতা: জাতীয় পতাকা হাতে...

বিস্তারিত
নকল কসমেটিক ও হোমিওপ্যাথি ওষুধ জব্দ

গোপালগঞ্জ সংবাদদাত: গোপালগঞ্জে নকল...

বিস্তারিত
কেরানীগঞ্জে আগুনে মৃতের সংখ্যা বেড়ে ১৪

নিজস্ব প্রতিবেদক: ঢাকার দক্ষিণ...

বিস্তারিত
তৃতীয় দিনের অনশনে শতাধিক শ্রমিক অসুস্থ

নিজস্ব সংবাদদাতা: তৃতীয় দিনে গড়ালো...

বিস্তারিত

0 মন্তব্য

আপনার মতামত প্রকাশ করুন

মন্তব্য প্রকাশ করুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না. প্রয়োজনীয় ক্ষেত্রগুলি চিহ্নিত করা আছে *