ঢাকা, রবিবার, ২৪ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ১২ ফাল্গুন ১৪২৫

2019-02-24

, ১৮ জমাদিউস সানি ১৪৪০

পেটের মেদ কমাবেন যেভাবে

প্রকাশিত: ০৪:৫৯ , ০৪ ডিসেম্বর ২০১৮ আপডেট: ০৪:৫৯ , ০৪ ডিসেম্বর ২০১৮

ডেস্ক প্রতিবেদন: পেটের অতিরিক্ত মেদ বা চর্বি আমাদের শরীরের ওপর দীর্ঘকালীন নেতিবাচক প্রভাব ফেলে। অসুস্থ হওয়ার ঝুঁকিও বেড়ে যায়। এমন মেদের কারণে হার্টের অসুখ, টাইপ টু ডায়াবেটিস, উচ্চ রক্তচাপসহ নানা রোগের সম্ভাবনা দেখা দেয়।

সুস্থ থাকার জন্য অনেকে মেদ কমানোর পরিকল্পনা করেন। কিন্তু সঠিক দিকনির্দেশনার অভাবে সেটা আর বাস্তবায়িত হয় না। নিচের কয়েকটি বিষয় মেনে চললে আপনি খুব সহজেই পেটের অতিরিক্ত মেদ কমাতে পারবেন। 

শর্করা ও চিনি আছে এমন খাবার কমাতে হবে। প্রোটিন ও আঁশযুক্ত খাবার বেশি খেতে হবে।  চর্বিজাতীয় খাবার সম্পূর্ণ বাদ দিতে হবে। খাওয়ার পরপরই বসে থাকা কিংবা শুয়ে থাকা যাবে না। একাধারে অনেকক্ষণ বসে থাকা যাবে না। কোমল পানীয় এবং কৃত্রিম ফলের রস খাওয়া মানা। আঁশযুক্ত শর্করা খেতে হবে, কিন্তু পরিমাণে অল্প। দিনে প্রচুর পানি খাবেন, কিন্তু খাবারের সঙ্গে কিংবা একবারে অনেক পানি খেয়ে ফেলা যাবে না। মেদ কমানোর ডায়েট শুরু করার আগে চিকিৎসক ও পুষ্টিবিদের পরামর্শ নিন।

পেটের ব্যায়াম: 
১. প্রতিদিন নির্দিষ্ট একটি সময়ে দৌড়াতে হবে কমপক্ষে ১০ মিনিট।
২. সাইকেলিং করতে পারেন কমবেশি পাঁচ মিনিট। যদি সাইকেলিং করার সুযোগ না থাকে, অন্য ব্যায়ামগুলো নিয়মিত করুন।
৩. প্রথমেই খালি হাতে খানিকটা ব্যায়াম করে মাংসপেশিকে উজ্জীবিত করে নিন। এটা হবে নিদেনপক্ষে পাঁচ মিনিট।
৪. দড়ি লাফানোর অভ্যাস করতে পারেন। পাঁচ মিনিট করে করুন।
‘ওপরের এই ব্যায়ামগুলো সব ধরনের ব্যায়াম শুরু করার আগেই করে নিলে ভালো। এতে মাংসপেশি শিথিল হয়ে শরীর ব্যায়ামের উপযোগী হয়ে ওঠে।’ 

পেটের মেদ কমাতে করতে হবে নির্দিষ্ট কিছু ব্যায়াম: 
১. প্রথমেই শক্ত বিছানায় সোজা হয়ে শুয়ে মাথার পেছনে দুই হাত সোজা করে রাখুন। পা মাটির সঙ্গে জোড়া করে লাগানো থাকবে। এবার পুরো শরীর আস্তে আস্তে ওপরে তুলে হাত দিয়ে পা স্পর্শ করতে হবে। এভাবে ১০ বার করে তিনবার করুন।
২. শোয়া অবস্থাতেই এবার হাত থাকবে কোমরের নিচে, দুই পা থাকবে সোজা। শরীর ও হাত স্থির হয়ে থাকবে। এবার পা দুটো আস্তে আস্তে একসঙ্গে ওপরে তুলতে হবে আবার নামাতে হবে। পুরো সময়ে পা মাটিতে ছোঁয়ানো যাবে না। এভাবে ১০ বার করে তিনবার করুন।
৩. বিছানায় শুয়ে থেকেই এবার দুই হাত ভাঁজ করে মাথার পেছনে নিন। ডান পা ভাঁজ করে মাটি থেকে তুলে ডান হাঁটু বাঁ কনুইয়ে লাগানোর চেষ্টা করুন। এবার হবে ঠিক উল্টো, বাঁ পা ভাঁজ করে মাটি থেকে তুলে বাঁ হাঁটু ডান কনুইয়ে লাগানোর চেষ্টা করুন। এভাবে ১০ সেকেন্ড করে তিনবার করুন।

এই বিভাগের আরো খবর

বেগুনের যতগুণ

ডেস্ক প্রতিবেদন: প্রাচীনকাল থেকেই বেগুন আয়ুর্বেদিক চিকিৎসায় ব্যবহার হয়ে আসছে। জেনে নিন বেগুনের আয়ুর্বেদিক গুণ- ১. নিয়মিত বেগুন খেতে...

খেজুরের পুষ্টিগুণ

অনলাইন ডেস্ক: খেজুর অত্যন্ত সুস্বাদু ও বেশ পরিচিত একটি ফল। এতে ফ্রুকটোজ এবং গ্লাইসেমিক রয়েছে যা রক্তে শর্করার পরিমাণ বাড়ায়। তাছাড়া...

বয়স কমাতে করল্লা

অনলাইন ডেস্ক: করল্লা তেতো হলেও অনেকের প্রিয় সবজি। ভর্তা, ভাজি আর তরকারিতে করল্লার কদর অনেক। মানব স্বাস্থ্যের জন্য এই সবজির উপকারী গুণও কম...

ক্যাপসিকামের নানান গুন

অনলাইন ডেস্ক: ক্যাপসিকাম বা সুইট বেল পেপার, উদ্ভিদের সোলানাসিয়াই গোত্রের অন্তর্ভুক্ত যার মধ্যে লঙ্কা, গোলমরিচ ইত্যাদি রয়েছে। এগুলি নানান...

0 মন্তব্য

আপনার মতামত প্রকাশ করুন

Message is required.
Name is required.
Email is