ঢাকা, রবিবার, ২৪ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ১২ ফাল্গুন ১৪২৫

2019-02-24

, ১৮ জমাদিউস সানি ১৪৪০

চারুকলা শিক্ষায় বেড়েছে আগ্রহ, পাঠ্যক্রমেও আধুনিকায়ন

প্রকাশিত: ০৯:৫২ , ০৪ ফেব্রুয়ারি ২০১৯ আপডেট: ০২:২৬ , ০৪ ফেব্রুয়ারি ২০১৯

নিজস্ব প্রতিবেদক : শিল্পের ধরণ অনুযায়ী গড়ে ওঠে এই শিক্ষা ব্যবস্থা। চারুকলা বিশ্ব-প্রগতি ও মানব সভ্যতা বিকাশের জন্য বড় সহায়ক দৃশ্যশিল্প। পৃথিবীর সব দেশেই প্রাতিষ্ঠানিক ও অপ্রাতিষ্ঠানিক দু’ভাবে এই শিল্পচর্চা হয়। পদ্ধতি, উপকরণ, প্রযুক্তিতে- কোন কোন দেশ বাংলাদেশ থেকে উন্নত আবার কোন দেশ পিছিয়ে। সাত দশকে চারুকলায় ভর্তি হতে ইচ্ছুক শিক্ষার্থীর সংখ্যা ১৬ জন থেকে এখন ১৬ হাজারে। এই পরিসংখ্যান দেশে চিত্র শিল্পের অগ্রযাত্রার জানান দেয়।

চারুশিল্প এমন এক সৃজনশীল কর্ম যেখানে শিল্পীর ভাবনা ও ভালোলাগার বহিঃপ্রকাশ ঘটে। পৃথিবীজুড়ে চিত্রশিল্পের প্রাতিষ্ঠানিক চর্চা এবং শিক্ষার ক্ষেত্রে কাঠামোগত পরিবর্তন হয়েছে। সংখ্যা দিয়ে এসব প্রতিষ্ঠানের হিসেব কষা কঠিন, বলছেন বোদ্ধারা।

পৃথিবীর সব চারুশিক্ষা প্রতিষ্ঠান এক নয়। দেশ, জাতিভেদে সাংস্কৃতিক বৈশিষ্ট্যের যেমন পার্থক্য  রয়েছে তেমনি শিক্ষা পদ্ধতিতেও পার্থক্য দেখা যায়। চারুকলা গুরুবাদী শিক্ষা।

বহির্বিশ্বের আধুনিক প্রযুক্তির অনেক কিছুই এখনো ঢাকার চারুকলায় পৌঁছায়নি। তবে শিক্ষার্থীদের কাজের পরিধি এবং সুযোগ বাড়াতে কিছুটা যুগোপযোগী করা হচ্ছে। দেশের বড় অনেক শিল্পী এখানে  শিক্ষক। দেশি-বিদেশী নানা আয়োজনে তাঁরা সমাদৃত হন।

আন্তর্জাতিক পরিমন্ডলে দেশের শিল্পীদের সুনাম আছে, তবে আধুনিকতার নামে দেশীয় চিত্রশিল্প গভীরতা হারাচ্ছে বলে অভিযোগ উঠছে। চারুকলার নিজস্ব গ্যালারি ও শিল্পীদের প্রকাশনার অভাব। যে দুর্বলতা অগ্রগতির স্বার্থে দূর করা দরকার।

যতোটা না জীবীকা নির্বাহের লক্ষ্যে, তার চেয়ে বেশী ভাল শিল্পী হবার স্বপ্নে বিভোর হয়ে আসতেন দূর অতীতের শিক্ষার্থীরা। তবে এমন বাস্তবতায় এখন পরিবর্তন দেখেন গুরুরা।   

রাষ্ট্রীয় বিশ্ববিদ্যায়সহ ১৭ টি প্রতিষ্ঠানে চারুশিক্ষা আছে। এটা আশার কথা হলেও হতাশার জায়গা, দু’বছর আগে স্কুল পর্যায়ের পাঠ্যসূচিতে বিষয়টিকে নম্বরশূণ্য করে দেয়া। তাতে প্রাতিষ্ঠানিক ভাবে এই শিক্ষা গুরুত্ব হারাচ্ছে।

 

এই বিভাগের আরো খবর

কিছুতেই শৃঙ্খলা ফিরছে না সড়কে

নিজস্ব প্রতিবেদক: শৃংখলা শব্দটি যেন একদম বেমানান দেশের পরিবহন খাতে। সড়কে নিয়মনীতি মানার ও প্রতিষ্ঠার কোন চেষ্টাই নেই কারও। পরিবহন মালিক,...

0 মন্তব্য

আপনার মতামত প্রকাশ করুন

Message is required.
Name is required.
Email is