ঢাকা, মঙ্গলবার, ১৯ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ৭ ফাল্গুন ১৪২৫

2019-02-19

, ১৩ জমাদিউস সানি ১৪৪০

গোপালগঞ্জ ও কুষ্টিয়ায় ছুরিকাঘাতে ২ জনের মৃত্যু

প্রকাশিত: ০৬:১৮ , ১১ ফেব্রুয়ারি ২০১৯ আপডেট: ০৬:১৮ , ১১ ফেব্রুয়ারি ২০১৯

ডেস্ক প্রতিবেদন: গোপালগঞ্জের কাশিয়ানীতে ভাতিজার ছুরিকাঘাতে চাচি নিহত হয়েছে। পুলিশ জানায়,  সোমবার সকালে কাশিয়ানী উপজেলার রামদিয়ায় তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে চাচি উম্বে বেগমকে এলোপাতাড়ি ছুরিকাঘাত করে ভাতিজা সজীব। পরে আহতাস্থায় তাকে গোপালগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে গেলে চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করে। ঘটনার পর থেকে সজীব পলাতক রয়েছে।

এদিকে, কুষ্টিয়ার খোকসা উপজেলার সন্তোসপুর গ্রামে নাতির ছুরিকাঘাতে নানা মজিবুর রহমান (৭৫) নিহত হয়েছে। পুলিশ অভিযুক্ত নাঈম (২১) ও নিহতের পুত্রবধূ সামিয়া (৩৪)  কে আটক করেছে।

পুলিশ জানান, বেশকিছুদিন ধরেই নিহত মজিবুর রহমানের বড় মেয়ের বড় ছেলে নাঈমের সাথে মেজ ছেলের স্ত্রী সামিয়ার মধ্যে অবৈধ সম্পর্ক চলছিল। রবিবার গভীর রাতে নাঈম নানা বাড়ি যায়। এসময় মেজ মামা মাসুদের অনুপস্থিতিতে নাঈম মামী সামিয়ার ঘরে প্রবেশ করে। এঘটনা নানা মজিবুর রহমান দেখে ফেলে। বিষয়টি প্রকাশ হয়ে যাবে এই ভয়ে নাঈম তার নানাকে ঘর থেকে বারান্দায় বের করে এনে বুকে ধারালো ছুরি দিয়ে আঘাত করে পালিয়ে যায়।

পরে এলাকাবাসী মজিবুর রহমানকে উদ্ধার করে খোকসা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। খবর পেয়ে পুলিশ রাতেই নাঈমকে তার নিজ বাড়ি কুমারখালী আটক করে, এবং তার স্বীকারোক্তিতে নিহত মজিবুর রহমানের বাড়ি থেকে তার পুত্রবধূ সামিয়াকেও আটক করে থানায় এনে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে। নিহতের লাশ উদ্ধার করে কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতাল মর্গে প্রেরণ করেছে পুলিশ। এছাড়া হত্যাকান্ডের দায়ে মামলার প্রস্তুতি চলছে বলেও জানান পুলিশ।

 

এই বিভাগের আরো খবর

খাগড়াছড়িতে গ্যাস সিলিন্ডার বিস্ফোরণে স্বামী-স্ত্রীসহ ৭জন দ্বগ্ধ

খাগড়াছড়ি প্রতিনিধি: খাগড়াছড়ির খবংপুড়িয়া গ্রামে গ্যাস সিলিন্ডার বিস্ফোরণে স্বামী-স্ত্রীসহ ৭জন দ্বগ্ধ হয়েছে। মঙ্গলবার ভোরে খবংপুড়িয়া...

জাজিরা প্রান্তের উদ্দেশ্যে পদ্মা সেতুর সপ্তম স্প্যান

মুন্সীগঞ্জ প্রতিনিধি: মুন্সীগঞ্জের মাওয়া প্রান্ত থেকে শরীয়তপুরের জাজিরা প্রান্তের উদ্দেশ্যে রওনা হয়েছে পদ্মা সেতুর সপ্তম স্প্যান।...

0 মন্তব্য

আপনার মতামত প্রকাশ করুন

Message is required.
Name is required.
Email is