দালাল চক্রের খপ্পরে ভোলা সদর হাসপাতাল

প্রকাশিত: ০৯:২২, ১৬ ফেব্রুয়ারি ২০১৯

আপডেট: ১২:২২, ১৬ ফেব্রুয়ারি ২০১৯

ভোলা প্রতিনিধি: দালাল আর প্রতারক চক্রের খপ্পরে পড়ে হয়রানীর শিকার হচ্ছে ভোলা সদর হাসপাতালে সেবা নিতে আসা রোগীরা। এসব দালালের উৎপাতে হাসপাতালে আসা গরিব রোগীদের ভোগান্তি এখন চরমে।

মূল ভূ-খন্ড থেকে বিচ্ছিন্ন দ্বীপ ভোলায় ২০ লাখ মানুষের স্বাস্থ্য সেবার একমাত্র ভরসা ভোলা সদর হাসপাতাল। চিকিৎসকদের তথ্যমতে, ১০০ শয্যা বিশিষ্ট এই হাসপাতালটিতে প্রতিদিন দূর-দুরান্ত থেকে এসে ৩ শ’ থেকে ৫শ’ রোগী চিকিৎসা নেয়। হাসপাতটিতে ২২জন চিকিৎসকের পদ থাকলেও ১৪টি পদই শূন্য। শয্যা সংকট, পর্যাপ্ত জনবল ও ডাক্তার না থাকায় অতিরিক্ত রোগী সামাল দিতে রীতিমত হিমশিম খাচ্ছেন হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ।

এসব সংকটকে কাজে লাগিয়ে ভালো কেবিন ও সিটের ব্যবস্থা করে দেয়ার কথা বলে রোগীদের টাকা পয়সা হাতিয়ে নিচ্ছে সংঘবদ্ধ দালাল চক্র। এরা ওষুধ আনার নাম করে রোগীদের কাছ থেকে টাকা নিয়ে উধাও হয়ে যায়।

জরুরী বিভাগ থেকে লেখা প্রেসকিপশন হাসপাতালের স্টাফ পরিচয় দিয়ে তারা রোগীদের কাছ থেকে প্রেসকিপশন ছিনেয়ে নিয়ে, কৌশলে নির্ধারিত দোকান থেকে ওষুধ কিনতে বাধ্য করে।

টাকা দিতে অস্বীকৃতি জানালে দালালদের দুরব্যবহারের শিকার হন সাধারন রোগীরা।

এদিকে, জেলা সিভিল সার্জন ডা. রথিন্দ্রনাথ মজুমদার জানান, বহুদিন ধরেই দালাল চক্র হাসপাতালে আসা রোগীদের বিভিন্ন ভাবে হয়রানি করে আসছে। তবে এখন তা অনেক কমেছে। পাশাপশি দালাল মুক্ত স্বাস্থ্য সেবা নিশ্চিত করতে, দ্রুত কার্যকর ব্যবস্থা নেয়া হবে।

হাসপাতালের দেয়ালে দালালমুক্ত সাইনবোর্ড থাকলেও সেই অবস্থা ফিরিয়ে আনতে চেষ্টা করবে প্রশাসন এটার চাওয়া এখানকার মানুষের।

 

 

 

 

এই বিভাগের আরো খবর

ট্রেন দুর্ঘটনা: নিহত যাদের পরিচয় মিলেছে

অনলাইন ডেস্ক: ব্রাহ্মণবাড়িয়ার কসবায়...

বিস্তারিত
ঘূর্ণিঝড় বুলবুলে আর্থিক ক্ষতি ২ শ’ ৬৩ কোটি টাকা

নিজস্ব প্রতিবেদক: ঘূর্ণিঝড় বুলবুলের...

বিস্তারিত
নিহতদের পরিবারকে অর্থ সহায়তার ঘোষণা

অনলাইন ডেস্ক: কসবায় ট্রেন দুর্ঘটনায়...

বিস্তারিত

0 মন্তব্য

আপনার মতামত প্রকাশ করুন

মন্তব্য প্রকাশ করুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না. প্রয়োজনীয় ক্ষেত্রগুলি চিহ্নিত করা আছে *