শাহজালালে তৃতীয় টার্মিনাল নির্মাণ শুরু এ’বছর

প্রকাশিত: ১০:১২, ২২ ফেব্রুয়ারি ২০১৯

আপডেট: ১২:১৯, ১৩ অক্টোবর ২০১৯

নিজস্ব প্রতিবেদক: এ বছরই শুরু হচ্ছে হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে তৃতীয় টার্মিনালের নির্মাণ কাজ। ১৪ হাজার কোটি টাকার এ প্রকল্প বাস্তবায়নে এরইমধ্যে জাইকার সঙ্গে চুক্তিও হয়েছে। ঠিকাদার নিয়োগের দরপত্র আহবান করা হবে আগামী মাসেই। বৈশাখী টেলিভিশনের সাথে সাক্ষাৎকারে এসব তথ্য জানিয়েছেন বিমান পরিবহন ও পর্যটন সচিব মহিবুল হক। তিনি জানালেন, তৃতীয় টার্মিনালটি নির্মিত হলে আরও বেশী সংখ্যক উড়োজাহাজ ওঠানামা করতে পারবে শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে। পাশাপাশি যাত্রীদের জন্য বাড়বে আধুনিক সুযোগ সুবিধাও।
যাত্রা শুরুর পর চার দশকেরও বেশি সময় পার করেছে দেশের সবচেয়ে গুরুত্বপুর্ণ বিমানবন্দর হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর। সময়ের ধারাবাহিকতায় বেড়েছে উড়োজাহাজ ওঠানামা ও যাত্রীর পরিমাণ। কিন্তু সেই তুলনায় বাড়েনি সক্ষমতা।
আধুনিক সুযোগ সুবিধার ঘাটতির পাশাপাশি স্থান সংকটের কারণেও কার্গো ও গ্রাউন্ড হ্যান্ডলিং সমস্যা প্রকট। ফলে আকাশপথে বিভিন্ন দেশে যাতায়াতের গুরুত্বপুর্ণ ট্রানজিট হওয়া সত্ত্বেও আশানুরুপ সেবা দিতে পারছেনা হযরত শাহজালাল বিমানবন্দর। এসব সমস্যার কথা স্বীকার করে বিমান পরিবহন ও পর্যটন সচিব জানালেন, সংকট দূর করতে এবছরই শুরু করা হবে তৃতীয় টার্মিনাল নির্মাণের কাজ।     
প্রাথমিকভাবে টার্মিনালটি নির্মাণের ব্যয় ধরা হয়েছে ১৪ হাজার কোটি টাকা। প্রায় ১৪৫ একর জায়গা জুড়ে এটি নির্মাণ করা হবে। যেখানে ১২টি বোর্ডিং ব্রিজ, কার্গো টার্মিনাল, উড়োজাহাজের পার্কিং এলাকার পাশাপাশি থাকবে আধুনিক যন্ত্রপাতির ব্যবস্থা। সেই সাথে আন্তর্জাতিক বহু রুটের উড়োজাহাজ ওঠানামার সুযোগও বাড়বে।
সিভিল এভিয়েশন কর্তৃপক্ষ জানালেন, নির্মাণ কাজ শুরুর পর তা শেষ হতে সময় লাগবে চার বছর। অর্থাৎ ২০২৩ সাল নাগাদ হযরত শাহজালাল বিমানবন্দরের তৃতীয় টার্মিনাল ব্যবহারের সুযোগ মিলবে।

 

এই বিভাগের আরো খবর

টাঙ্গুয়ার হাওরের জীববৈচিত্র্য হুমকির মুখে

সুনামগঞ্জ প্রতিনিধি: দূষণের কারণে...

বিস্তারিত

0 মন্তব্য

আপনার মতামত প্রকাশ করুন

মন্তব্য প্রকাশ করুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না. প্রয়োজনীয় ক্ষেত্রগুলি চিহ্নিত করা আছে *