ঢাকা, শুক্রবার, ২৪ মে ২০১৯, ১০ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬

2019-05-23

, ১৮ রমজান ১৪৪০

বিলুপ্তির ঝুঁকিতে অনেক উপজাতীয় ভাষা

প্রকাশিত: ০৪:৫৩ , ২২ ফেব্রুয়ারি ২০১৯ আপডেট: ০৪:৫৩ , ২২ ফেব্রুয়ারি ২০১৯

নওগাঁ প্রতিনিধি: ১৯৫২ সালে মাতৃভাষা রক্ষার সংগ্রামে অংশ নিয়েছিলেন ক্ষুদ্র নৃগোষ্ঠীর মানুষেরাও। কিন্তু দেশের বিভিন্ন এলাকায় ছড়িয়ে থাকা উপজাতীয়দের বেশিরভাগেরই সুযোগ নেই নিজের ভাষায় পড়াশোনার। হাতেগোণা দু-একটি উপজাতির নিজস্ব ভাষায় বই থাকলেও অনেক উপজাতীয় ভাষার লিখিত রুপই নেই। ফলে বিলুপ্তির ঝুঁকিতে রয়েছে অনেক উপজাতীয় ভাষা।
স্থান, কাল কিংবা পাত্র ভেদে মাতৃভাষারও বৈচিত্র লক্ষ্য করা যায়। কিন্তু চর্চার সুযোগ আর সংরক্ষণের উদ্যোগের অভাবে অনেক ক্ষুদ্র ক্ষুদ্র জাতিগোষ্ঠীর নিজস্ব ভাষা হারিয়ে গেছে। অনেকগুলোই আবার বিলুপ্তির পথে।
প্রাতিষ্ঠানিকভাবে চর্চার সুযোগ না থাকায় হারিয়ে যেতে বসা এমনই একটি আদিবাসী ভাষা সাদ্রি। নওগাঁর মহাদেবপুরে বসবাসরত ক্ষুদ্র নৃগোষ্ঠি উরাও গোত্রের মানুষেরা এই ভাষায় নিজেদের ভাব প্রকাশ করে স্বাচ্ছন্দবোধ করেন। কিন্তু তাদের নিজস্ব ভাষায় কোনো বই না থাকায় বাংলা ভাষার বই পড়তে গিয়ে বিড়ম্বনায় পড়তে হয় এই ভাষাভাষী শিশুদের।
তাই ভাষার মাসে বাংলা ভাষার পাশাপাশি সাদ্রি মাতৃভাষা রক্ষা জরুরি বলে মনে করেন উরাও সম্প্রদায়ের লোকেরা। নিজস্ব ভাষায় বই পেলে এই ভাষাভাষী শিশুদের মেধা বিকাশের সুযোগ হবে বলেও মনে করছেন তারা।
জেলার ১১টি উপজেলায় দেড় লাখেরও বেশি আদিবাসীর বসবাস। আর উত্তরবঙ্গে রয়েছে সাঁওতাল, উরাও, পাহান, মালিমাহালি, ভূইমালি ও রাজোয়ারসহ প্রায় ২৯টির মতো ক্ষুদ্র জাতিগোষ্ঠি।

 

এই বিভাগের আরো খবর

ফরিদপুরে লিচুর বাম্পার ফলন

নিজস্ব প্রতিবেদক: ফরিদপুরে লিচুর বাম্পার ফলন হলেও হাসি নেই কৃষকের মুখে। কেননা, তীব্র গরমের কারণে লিচু ফেটে গাছ থেকে ঝরে পড়ছে। শেষ সময়ের...

বান্দরবান পৌরসভার সাবেক কমিশনারকে অপহরণের অভিযোগ 

বান্দরবান প্রতিনিধি: বান্দরবান পৌরসভার পাঁচ নম্বর ওয়ার্ডের সাবেক কমিশনার ও পৌর আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি চথোয়াইমং মারমাকে অপহরণের অভিযোগ...

0 মন্তব্য

আপনার মতামত প্রকাশ করুন

Message is required.
Name is required.
Email is