ঢাকা, মঙ্গলবার, ২৩ জুলাই ২০১৯, ৮ শ্রাবণ ১৪২৬

2019-07-22

, ১৯ জিলকদ ১৪৪০

স্বামীকে বাঁচাতে গিয়ে প্রাণ গেল হুসনে আরার

প্রকাশিত: ১০:০১ , ১৫ মার্চ ২০১৯ আপডেট: ০৮:২২ , ১৬ মার্চ ২০১৯

আন্তর্জাতিক ডেক্স: নিউজিল্যান্ডের ক্রাইস্টচার্চে সন্ত্রাসী হামলা নিহত হয়েছে প্রবাসী বাংলাদেশি হুসনে আরা পারভীন (৪২)। মসজিদে গোলাগুলির খবর শুনে স্বামী ফরিদ উদ্দিনকে বাঁচাতে গিয়েছিলেন তিনি। হুসনে আরার বাবার বাড়ি সিলেটের গোলাপগঞ্জ উপজেলার জাঙ্গালহাটা গ্রামে।

শুক্রবার সন্ধ্যায় নিহত হুসনে আরার স্বজনেরা জানান, ক্রাইস্টচার্চে স্বামীর সঙ্গে থাকেন হুসনে আরা। এক দুর্ঘটনার পর থেকে তাঁর স্বামী ফরিদ হুইল চেয়ারে চলাচল করেন। হামলার সময় তাঁর স্বামী ও তিনি ক্রাইস্টচার্চের আল নুর মসজিদের ভেতরে পৃথক স্থানে ছিলেন। তবে হুসনে আরার স্বামী ফরিদ উদ্দিন বেঁচে গেছেন।

পরিবার ও স্বজন সূত্রে জানা যায়, হুসনে আরারা তিন বোন ও দুই ভাই। স্বামী ফরিদ উদ্দিনের বাড়ি বিশ্বনাথ উপজেলার চকগ্রামে। হুসনে আরা-ফরিদ দম্পতির শিফা আহমদ নামে ১৬ বছর বয়সী এক কন্যাসন্তান আছে। ১৯৯৪ সালে পারিবারিকভাবে তাঁদের বিয়ে হয়। বিয়ের এক বছর পর তাঁরা নিউজিল্যান্ডে চলে যান। ক্রাইস্টচার্চ এলাকায় বসবাস করতেন তারা। সর্বশেষ ২০০৯ সালে তাঁরা দেশে এসেছিলেন। ফরিদ সেখানে গিয়ে সড়ক দুর্ঘটনায় আহত হয়ে হাঁটাচলার শক্তি হারিয়ে ফেলেন। সেই থেকে হুইল চেয়ারে করে চলাফেরা করতেন। বাইরে বের হলে সার্বক্ষণিক সঙ্গে থাকতেন স্ত্রী হুসনে আরা।

 ফরিদ উদ্দিন ক্রাইস্টচার্চ এলাকায় আত্মীয়স্বজনের সঙ্গে থাকলেও পুলিশের হেফাজতে রয়েছেন। সেখানকার পুলিশ তাঁর সঙ্গে কথাবার্তা বলতে দিচ্ছে না।

এই বিভাগের আরো খবর

ভারতের পূর্বাঞ্চলীয় রাজ্যগুলোতে বন্যা অপরিবর্তিত

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: ভারতের পূর্বাঞ্চলীয় রাজ্যগুলোতে বন্যা পরিস্থিতি অপরিবর্তিত রয়েছে। আসাম ও বিহারে চলমান বন্যা পরিস্থিতিতে এ পর্যন্ত...

আটক ট্যাংকার দ্রুত ছেড়ে দিতে ইরানের প্রতি যুক্তরাজ্যের আহ্বান

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: হরমুজ প্রণালী থেকে আটককৃত ব্রিটিশ পতাকাবাহী ট্যাংকার দ্রুত ছেড়ে দিতে ইরানের প্রতি আহ্বান জানিয়েছে যুক্তরাজ্য। শনিবার...

0 মন্তব্য

আপনার মতামত প্রকাশ করুন

Message is required.
Name is required.
Email is