সামাজিক নিরাপত্তা ব্যয় বাড়ানো ও আয় বৈষম্য কমানোর তাগিদ বিশ্লেষকদের

প্রকাশিত: ০৮:০৮, ১৮ মার্চ ২০১৯

আপডেট: ১১:২৪, ১৮ মার্চ ২০১৯

নিজস্ব প্রতিবেদক: বাংলাদেশকে একটি কল্যাণমূখী রাষ্ট্র হিসেবে গড়ে তুলতে হলে সামাজিক নিরাপত্তা খাতে ব্যয় বাড়ানোর পাশাপাশি আয় বৈষম্য কমানোর তাগিদ দিলেন বিশ্লেষকরা। ষষ্ঠ পঞ্চ বার্ষিক পরিকল্পনার মূল্যায়ন প্রতিবেদনে এ বিষয়ে দৃষ্টি আকর্ষণ করা হয়েছে।

সোমবার বিকেলে রাজধানীর কৃষিবিদ ইন্সটিটিউটে পরিকল্পনা কমিশন আয়োজিত অনুষ্ঠানে প্রতিবেদনটি উপস্থাপন করা হয়। এসময় পরিকল্পনামন্ত্রী এম এ মান্নান আয় বৈষম্য বাড়ার কারণ খতিয়ে দেখতে মন্ত্রণালয়ের সংশ্লিষ্টদের নির্দেশ দেন।

উন্নয়নের জন্য স্বাধীনতার পর থেকে এ পর্যন্ত সরকার সাতটি পঞ্চবার্ষিকী পরিকল্পনা গ্রহণ করেছে। যার মধ্যে সপ্তম পঞ্চবার্ষিক পরিকল্পনা চলমান। আর ষষ্ঠ পঞ্চবার্ষিক পরিকল্পনা এরই মধ্যে শেষ হয়েছে, যার মেয়াদকাল ছিলো ২০১০ থেকে ২০১৫ সাল পর্যন্ত।

সোমবার এই ষষ্ঠ পঞ্চবার্ষিক পরিকল্পনার চূড়ান্ত মূল্যায়ন প্রতিবেদন উপস্থাপন করেন পরিকল্পনা কমিশনের জেষ্ঠ্য সচিব ডক্টর শামসুল আলম। প্রতিবেদন অনুযায়ী ২০১০ থেকে ২০১৫ সাল পর্যন্ত নারীর ক্ষমতায়ন, নবজাতকের মৃত্যুহার কমানো ও গড় আয়ু বৃদ্ধির মতো বেশ কিছু ক্ষেত্রে বাংলাদেশ অভাবনীয় সাফল্য অজর্ন করেছে। তবে আয়-বৈষম্য বৃদ্ধি ও সামাজিক নিরাপত্তাখাতে ব্যয় কমার পাশাপাশি উচ্চশিক্ষায় নারী পুরুষের বৈষম্য, কৃষির বাণিজ্যিকীকরণ ও কর্মসংস্থান সৃষ্টিতে লক্ষ্যমাত্রার চেয়ে পিছিয়ে ছিলো।

অনুষ্ঠানে পরিকল্পনা কমিশনের সাবেক সদস্য ওয়াহিদ উদ্দিন মাহমুদ জানান, শ্রমিকের আয় না বাড়ায় বৈষম্য বেড়েছে। আগামীতে স্বল্পমূল্যে স্বাস্থ্যসেবা ও শিক্ষা নিশ্চিত করা না গেলে বৈষম্য আরো বাড়বে।

এসময় পরিকল্পনামন্ত্রী এম এ মান্নান, বিষয়গুলো নিয়ে গভীরভাবে বিশ্লেষণের জন্য নির্দেশনা দেন।

অনুষ্ঠানে কৃষিমন্ত্রী আব্দুর রাজ্জাক বলেন, আগামীতে রাজনৈতিক স্থিতিশীলতা এবং সরকারি কর্মীদের মধ্যে স্বচ্ছতা ও জবাবদিহিতা না থাকলে উন্নয়নের ধারা অব্যহত থাকবে না।

 

এই বিভাগের আরো খবর

আদালতের বাইরে সম্রাট সমর্থকদের বিক্ষোভ

নিজস্ব প্রতিবেদক: যুবলীগ ঢাকা মহানগর...

বিস্তারিত
গুলশানে এবি ব্যাংকের কার্যালয়ে আগুন

রিজস্ব প্রতিবেদক: রাজধানীর গুলশানে...

বিস্তারিত
দুই মামলায় সম্রাটের রিমান্ড শুনানি শুরু

নিজস্ব প্রতিবেদক : দুই মামলায় ঢাকা...

বিস্তারিত

0 মন্তব্য

আপনার মতামত প্রকাশ করুন

মন্তব্য প্রকাশ করুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না. প্রয়োজনীয় ক্ষেত্রগুলি চিহ্নিত করা আছে *