ঢাকা, শুক্রবার, ২০ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ৫ আশ্বিন ১৪২৬

2019-09-20

, ২০ মহররম ১৪৪১

ঘূর্ণিঝড়ে কোন সংকেতের অর্থ কী?

প্রকাশিত: ০৪:৪৬ , ০২ মে ২০১৯ আপডেট: ১২:২০ , ০৩ মে ২০১৯

ডেস্ক প্রতিবেদন: ঘূর্ণিঝড় ‘ফণি’ শক্তি সঞ্চয় করে বাংলাদেশের উপকূলের দিকে এগিয়ে আসতে থাকায় মোংলা ও পায়রা সমুদ্রবন্দরে সাত নম্বর এবং চট্টগ্রাম বন্দরে ছয় নম্বর বিপদ সংকেত জারি করা হয়েছে। এছাড়া কক্সবাজার সমুদ্র বন্দরকে আগের মতই চার নম্বর স্থানীয় হুঁশিয়ারি সংকেত দেখিয়ে যেতে বলা হয়েছে। এভাবেই প্রাকৃতির দুর্যোগের সময় বিভিন্ন ধরণের সতর্ক সংকেত দেখানো হয়। এই সংকেতগুলোর মানে জানার আগ্রহ থাকে অনেকের।

ব্রিটিশ শাসনামলে তৈরি হওয়া সনাতনী এ সংকেত ব্যবস্থা মূলত তৈরি করা হয়েছিল সমুদ্রগামী জাহাজ ও বন্দরের নিরাপত্তার জন্য। জনসাধারণের জন্য সতর্কবার্তার বিষয়টি সেখানে খুব একটা গুরুত্ব পায়নি তখনো।

তাই, এই সংকেত ব্যবস্থা আন্তর্জাতিক আধুনিক সংকেত ব্যবস্থা থেকে একটু আলাদা। ঝড়ের গতি ও বিপদের সম্ভাব্য মাত্রা বিবেচনায় এক থেকে ১১ নম্বর সংকেত দিয়ে এখানে সতর্কতার মাত্রা বোঝানো হয়।  

সমুদ্রে ঝড়ের সতর্কবার্তা হিসেবে সংকেত গুলোকে পাঁচ ভাগে ভাগ করা হয়েছে। এক নম্বর দূরবর্তী সতর্ক সংকেত, দুই নম্বর দূরবর্তী হুঁশিয়ারি সংকেত, তিন নম্বর স্থানীয় সতর্ক সংকেত, চার নম্বর হুঁশিয়ারি সংকেতের পর পাঁচ, ছয় ও সাত নম্বর বিপদ সংকেত; আট, নয় ও ১০ নম্বর মহাবিপদ সংকেত দেখানো হয়। সর্বশেষ ১১ নম্বর দিয়ে যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন বোঝানো হয়।

পাশাপাশি অভ্যন্তরীণ নদীবন্দরের জন্য রয়েছে এক নম্বর নৌ সতর্ক সংকেত, দুই নম্বর নৌ হুঁশিয়ারি সংকেত, তিন নম্বর নৌ বিপদ সংকেত ও চার নম্বর নৌ মহাবিপদ সংকেত।

সমুদ্রবন্দরের জন্য সংকেতগুলোর মধ্যে পাঁচ, ছয় ও সাত নম্বর বিপদ সংকেতের মাত্রা একই। আবার আট, নয় ও ১০ নম্বর মহাবিপদ সংকেতেরও মাত্রা এক। ঝড় কোন দিক দিয়ে যাবে তার ভিত্তিতে নম্বর আলাদা করা হয়, যদিও বিপদ সব ক্ষেত্রেই সমান।

 

এই বিভাগের আরো খবর

সিলেটে পাহাড় কেটে আবাসন প্রকল্প, নষ্ট হচ্ছে পরিবেশ

সিলেট প্রতিনিধি: সিলেটে অবৈধভাবে পাহাড় কাটছে প্রভাবশালী মহল। পাহাড় কেটে প্লট তৈরি করে আবাসন প্রকল্প গড়ে তোলা হচ্ছে। নষ্ট হচ্ছে পরিবেশ ও...

জলবায়ু পরিবর্তনের সাথে অভিযোজনের উপায় খোঁজার আহ্বান প্রধানমন্ত্রীর

অনলাইন ডেস্ক: জলবায়ু পরিবর্তনের সাথে অভিযোজনের উপায় উদ্ভাবনের জন্য বিশ্ব নেতৃবৃন্দর প্রতি জরুরি পদক্ষেপ গ্রহণের আহ্বান জানিয়েছেন...

0 মন্তব্য

আপনার মতামত প্রকাশ করুন

Message is required.
Name is required.
Email is