লক্ষীপুরে মেঘনায় অবাধে পোনা মাছ শিকার

প্রকাশিত: ০৮:৪০, ১৮ মে ২০১৯

আপডেট: ০৮:৫১, ১৮ মে ২০১৯

লক্ষীপুর প্রতিনিধি: লক্ষ্মীপুরে মেঘনা নদীতে অবাধে শিকার করা হচ্ছে গলদা চিংড়ির পোনা। সরকারি নিষেধাজ্ঞা অমান্য করেই নেট জাল দিয়ে ধরা হচ্ছে পোনা মাছ। এতে গলদা চিংড়ির পাশাপাশি ধরা পড়ছে নানা প্রজাতির মাছের পোনা। নষ্ট হচ্ছে জীববৈচিত্র্য। স্থানীয়রা বলছেন, যথাযথ নজরদারির অভাবেই বন্ধ হচ্ছে না এভাবে পোনা মাছ শিকার। 
উপকূলীয় এলাকায় ২০০০ সালে চিংড়ি পোনা আহরণ নিষিদ্ধ করে সরকার। তবে সে নিষেধাজ্ঞা মানছে না এক শ্রেণির অসাধু ব্যবসায়ী ও জেলে।
লক্ষ্মীপুর সদরের বুড়িরঘাট এলাকা থেকে কমলনগরের মতিরহাট, সাহেবের হাট, লুধুয়া ঘাট ও রামগতি উপজেলার চরগজারিয়াসহ মেঘনার নদীর বিস্তীর্ণ  এলাকাজুড়ে চোখে পড়বে গলদা চিংড়ির পোনা শিকারের দৃশ্য। ধরা হচ্ছে অন্যান্য প্রজাতির পোনা মাছও। জেলেরা জানালেন, বিকল্প কর্মসংস্থানের সুযোগ না থাকায় বাধ্য হয়েই এমন কাজ করছেন তারা। 
স্থানীয়দের অভিযোগ, প্রশাসনের নজরদারির অভাবেই চলছে অবাধে পোনা মাছ শিকার। এমনকি মেঘনার পাড়ে প্রকাশ্যে টং ঘর বসিয়ে চিংড়ির পোনা কেনাবেচাও করছে অসাধু ব্যবসায়ী ও জেলেরা।  
বিষয়টি স্বীকার করে জেলা মৎস্য কর্মকর্তা জানালেন, পোনা আহরণ বন্ধে সচেতনতা বাড়ানোর পাশাপাশি অভিযান আরো জোরদার করা হবে।
স্থানীয়রা মনে করেন, পোনা মাছ রক্ষায় শুধু নজরদারি বাড়ালেই হবে না, সেই সাথে মৎস্যজীবীদের জন্য বিকল্প কর্মসংস্থানের ব্যবস্থাও করতে হবে। 

এই বিভাগের আরো খবর

৩ জেলায় সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ৬

নিজস্ব প্রতিবেদক: গাজীপুরের...

বিস্তারিত
এক যুগেও মুছেনি ভয়াল সিডরের ক্ষত

পটুয়াখালী সংবাদদাতা: আজ ভয়াল ১৫...

বিস্তারিত

0 মন্তব্য

আপনার মতামত প্রকাশ করুন

মন্তব্য প্রকাশ করুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না. প্রয়োজনীয় ক্ষেত্রগুলি চিহ্নিত করা আছে *