ঢাকা, সোমবার, ২৬ আগস্ট ২০১৯, ১১ ভাদ্র ১৪২৬

2019-08-25

, ২৩ জিলহজ্জ ১৪৪০

নগরায়ণের চাপে ক্রমেই বিবর্ণ রাজধানী 

প্রকাশিত: ১০:২৬ , ২৪ মে ২০১৯ আপডেট: ১২:০০ , ২৪ মে ২০১৯

নিজস্ব প্রতিবেদক: মাত্র কয়েক দশক আগেও রাজধানী শহর জুড়ে ছিল সুশোভিত সবুজ। দৃশ্যমান ছিল বাহারী ফুলের সমাবেশ। নগরায়ণের চাপে ক্রমেই বিবর্ণ হয়েছে নগরী। তারই মাঝে সামান্য কিছু জায়গায় ফুলের শোভা সবারই দৃষ্টি কাড়ে। তবু নগরী থেকে অদৃশ্য হয়ে যাওয়া ফুলের সমাবেশের জন্য প্রাণ কাঁদে মানুষের। আবারও ফিরে পেতে আকুতি ও চেষ্টা আছে নগরবাসীর। 
দ’ুধার জুড়ে ফুল শোভিত এমন সড়ক যে আজও টিকে আছে কংক্রিটের জঙ্গলে পরিণত হওয়া ঢাকা নগরীতে, সেটাই বিস্মিত করে রাজধানীবাসীকে। রাজধানীর সংসদ ভবন এবং চন্দ্রিমা উদ্যানের মাঝের সড়ক এটি। এ পথে যারা চলেন তাদের সবারই চাখ জুড়ায় এ দৃশ্য দেখে, আবার আফসোসও হয় নগরীর এমন অনেক হারিয়ে যাওয়া ফুল সম্পদের জন্য। 
উদ্ভিদ বিজ্ঞানীদের তথ্য মতে, ঢাকা শহরে আগে প্রায় এক হাজারের মতো দেশীয় ফুলের অসংখ্য বড় বড় গাছের  দেখা মিলতো। এই গ্রীষ্ম কালের তপ্ত রোদেও ফুলে ফুলে ছেঁয়ে থাকতো নগরই। শুুধু সড়কেই নয়, বহু উদ্যানে, মাঠে, প্রায় সকল বাড়িতেও ছিল ছোট-বড় বিচিত্রি ফুলের গাছ। সেসব এখন কেবলই অতীতের সুখস্মৃতি, নগরায়েনের চাপে চাপা পড়েছে জল ও স্থলের সেই বিপুল ফুলের সমাবেশ।
দেশীয় ফুলের বৃক্ষগুলোর মধ্যে নগরে এখন শুধুমাত্র জারুল আর সোনালুর দেখা পাওয়া যায়। মিষ্টি সুবাসের সোনালী চাঁপার সামান্য দেখা মিললেও দু®প্রাপ্য হয়ে পড়েছে শ্বেতচাঁপা। অন্য দেশীয় ফুলগুলোর বেশিরভাগই এখন আর নেই বলে জানান পর্যবেক্ষকরা। কিন্তু দীর্ঘ সিনের চেনা নগরবাসীর চোখ ও মন চায় সেসব নয়নাভীরাম ফুল শোভিত গাছগুলোকে ফিরে পেতে। 
দেশী বহু ফুল হারালেও এরই মধ্যে নগরে অপরিকল্পিত ভাবে জায়গা পেয়েছে কিছু বিদেশী ফুল।  তবে সংশ্লিষ্ট বিশেষজ্ঞদের পরামর্শ দেশীয় ফুলগুলোকে আবার নগরের প্রকৃতিতে ফরিয়ে আনা প্রয়োজন। 
বাড়ি বাড়ি ফুলের গাছ, আর বাগান হারিয়ে নগরবাসী এখন বহুতল ভবনের ছাদে আশ্রয় নিয়েছে হারানো ফুলের বাগান ফিরে পেতে। তবে গ্রীষ্মের প্রাণ ওষ্ঠাগত গরমেও পথ চলা মানুষ এমন মনমুগ্ধকর ফুলের বৃক্ষ রাশিতেই এখনও প্রশান্তি খুঁজে পায়। তাই ফিরে পেতে চায় নগরীর হারানো সৌন্দর্যকে।
 

এই বিভাগের আরো খবর

0 মন্তব্য

আপনার মতামত প্রকাশ করুন

Message is required.
Name is required.
Email is