সেতু না থাকায় দুর্ভোগে ৩০ গ্রামের মানুষ

প্রকাশিত: ১১:৩৯, ১৭ জুন ২০১৯

আপডেট: ১১:৩৯, ১৭ জুন ২০১৯

গাইবান্ধা প্রতিনিধি: গাইবান্ধা সদর উপজেলার ৩০ গ্রামের মানুষকে শহরে আসতে হয় ঘাঘট নদীর ওপর মোল্লাবাজারের কাঠের ভাংঙ্গা সেতু পার হয়ে। শহরের সাথে কাজিবাড়ি, কুপতলা, পাঁচজুম্মা, খোলাহাটি, কাজলঢোপ, চক মামরোজপুর গ্রমের মানুষের যাতায়াতের একমাত্র মাধ্যম এই সেতু।

 

এছাড়া দূরুত্ব কম হওয়ায় সুন্দরগঞ্জের অনেক মানুষের চলাচলও এপথেই। ঘাঘট নদীর ওপর পাকা সেতু না থাকায় প্রতিদিন দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে চলাচলরত এসব এলাকার মানুষের।

 

যদিও চার বছর আগে স্বেচ্ছাশ্রমের ভিত্তিতে খোলাহাটি ইউনিয়নের মোল্লাবাজার এলাকায় এই কাঠের সেতু নির্মাণ করে এলাকাবাসী। সেতু নির্মাণ করা হলেও, সংস্কার না করায় সেটিও চলাচলের অনুপযোগী হয়ে পড়েছে। ফলে ছোট যানবাহন দূরের কথা, এখন হেঁটে পার হওয়াই দায়। প্রতিদিন ভারি পন্য পারাপার করতে হয় ঝুঁকি নিয়ে। সাকোটি ভেঙ্গে পড়ে যেকোনো মূহুর্তে ঘটতে পারে দুর্ঘটনা। এমন ঝুকি নিয়েই পারাপার হচ্ছে দুই পাড়ের মানুষ।

 

স্কুলগামী শিক্ষার্থীদের স্কুলে যেতে হয় এই সেতু পার হয়ে। মাঝে মাঝেই পড়ে গিয়ে বই খাতা ভিজে যায়, আহতও হয় অনেকে। এলাকাবাসীর অভিযোগ, নির্বাচন এলেই পাকা সেতু নির্মাণের প্রতিশ্র“তি দেন জনপ্রতিনিধিরা, কিন্তু নির্বাচিত হয়ে আর কথা রাখেন না।

 

এদিকে এলাকাবাসীর দুর্ভোগের কথা স্বীকার করে সেতু নির্মাণে বিশেষ প্রকল্পের তালিকা পাঠানো হয়েছে বলে জানালেন গাইবান্ধা এলজিইডি’র নির্বাহী প্রকৌশলী আব্দুর রহিম শেখ।

 

দ্রুত সেতু নির্মাণ করে এলাকার মানুষের দুর্ভোগ লাঘবের উদ্যোগ নেবে এলজিইডি কতৃপক্ষ, এমনটাই প্রত্যাশা স্থানীয়দের।

এই বিভাগের আরো খবর

লক্ষ্মীপুরে অজ্ঞাত যুবকের গুলিবিদ্ধ মরদেহ

লক্ষ্মীপুর প্রতিনিধি: লক্ষ্মীপুরের...

বিস্তারিত
খুলনায় বন্দুকযুদ্ধে ৪ জলদস্যু নিহত

ডেস্ক প্রতিবেদক: সুন্দরবনে র‌্যাব-৬...

বিস্তারিত
মহাসড়কে চালকদের মাদকাসক্তি পরীক্ষা শুরু

ফেনী প্রতিনিধি : মহাসড়কে শুরু হয়েছে...

বিস্তারিত

0 মন্তব্য

আপনার মতামত প্রকাশ করুন

মন্তব্য প্রকাশ করুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না. প্রয়োজনীয় ক্ষেত্রগুলি চিহ্নিত করা আছে *