চীনে ইকোনমিক ফোরামের বৈঠকে প্রধানমন্ত্রী

প্রকাশিত: ১২:২৪, ০২ জুলাই ২০১৯

আপডেট: ০৬:১৩, ০২ জুলাই ২০১৯

নিজস্ব প্রতিবেদক: চীনে ওয়ার্ল্ড ইকোনমিক ফোরামের বৈঠকে যোগ দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। চীনের ডালিয়ান আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে মঙ্গলবার (০২ জুলাই) সকালে এই বৈঠকে অংশ নেন তিনি।

পাঁচদিনের এই সরকারি সফরে সোমবার রাতে দেশটির ডালিয়ান শহরে পৌঁছান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও তাঁর সফরসঙ্গীরা। বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের বিশেষ ফ্লাইট চীনের ডালিয়ানে পৌঁছালে চীনে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত এম ফজলুল করিম ও ডালিয়ান শহরের মেয়র তান চেনঝু প্রধানমন্ত্রীকে অভ্যর্থনা জানান।

এর আগে, সোমবার বিকালে হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে প্রধানমন্ত্রীকে বিদায় জানান মন্ত্রিসভার সদস্য ও সরকারের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা।

প্রধানমন্ত্রীর সফরসঙ্গী হিসেবে রয়েছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেন, প্রধানমন্ত্রীর বেসরকারি শিল্প ও বিনিয়োগ উপদেষ্টা সালমান এফ রহমান, তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক, পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলম, পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি মুহাম্মদ ফারুক খাঁন, এফবিসিসিআই সভাপতি শেখ ফজলে ফাহিম, এফবিসিসিআইয়ের সাবেক সভাপতি মোহাম্মদ শফিউল ইসলাম মহিউদ্দিন, বিজিএমইএ সভাপতি রুবানা হক।

ডালিয়ানে অনুষ্ঠেয় ওয়ার্ল্ড ইকোনোমিক ফোরামের বার্ষিক সভায় অংশ নেওয়া ছাড়াও চীনের প্রেসিডেন্ট শি জিনপিংয়ের আমন্ত্রণে এ সফরকালে দেশটির প্রেসিডেন্ট ও প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে দ্বিপক্ষীয় বৈঠক করবেন বাংলাদেশের সরকার প্রধান।

তার এই সফরে দুই দেশের মধ্যে বেশ কয়েকটি চুক্তি সই ছাড়াও রোহিঙ্গা সংকট সমাধানের উপায় নিয়ে আলোচনা হবে আশা করা হচ্ছে।

‘সামার দাভোস’ নামে পরিচিতি পাওয়া ডালিয়ানের এই সভায় বিভিন্ন দেশের সরকার, ব্যবসায়ী, সুশীল সমাজ, শিক্ষা ও সাহিত্য-সংস্কৃতি ক্ষেত্রের প্রায় দুই হাজার প্রতিনিধি অংশ নেবেন।

ডালিয়ানে ‘ডব্লিইএফ অ্যানুয়াল মিটিং অব দ্যা নিউ চ্যাম্পিয়ন্স-২০১৯’ বা সামার দাভোস-এ অংশ নেওয়া শেষে বুধবার একটি বিশেষ চীনা ফ্লাইটে বেইজিংয়ে যাবেন শেখ হাসিনা।

বিমানবন্দরে আনুষ্ঠানিকতা শেষে প্রধানমন্ত্রীকে মটর শোভাযাত্রা সহকারে দিয়ায়োতাই স্টেট গেস্ট হাইজে নিয়ে যাওয়া হবে। চীনের রাজধানীতে সফরকালে তিনি এই হোটেলেই থাকবেন। ওই দিন বিকেলে বেইজিংয়ে বাংলাদেশিদের দেয়া নাগরিক সংবর্ধনায় অংশ নেবেন।

পরের দিন গ্রেট হল অব দ্য পিপলে বীরদের স্মৃতিস্তম্ভে পুষ্পস্তবক অর্পণ করার পর চীনের প্রধানমন্ত্রী লি খ্য ছিয়াংয়ের সঙ্গে দ্বিপক্ষীয় বৈঠক করবেন এবং গ্রেট হল অব দ্য পিপলে চুক্তি স্বাক্ষর অনুষ্ঠানে অংশ নেবেন।

প্রধানমন্ত্রী গ্রেট হল অব দ্য পিপলে চীনের প্রধানমন্ত্রী আয়োজিত এক ভোজসভায় অংশ নিবেন। একই দিন বিকেলে শেখ হাসিনার সিসিপিআইটিতে চীনা ব্যবসায়ী নেতৃবৃন্দের সঙ্গে একটি বিজনেস গোল টেবিল বৈঠকে অংশ নিবেন।

৫ জুলাই সকালে প্রধানমন্ত্রী চাইনিজ থিংক ট্যাংক ‘পাঙ্গোয়াল ইনস্টিটিউশন’ আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে অংশ নেওয়ার কথা রয়েছে। চীনের বিভিন্ন কোম্পানির প্রধান নির্বাহীরাও শেখ হাসিনার সঙ্গে দেখা করবেন বলে তার সূচিতে রয়েছে।

চীনের ন্যাশনাল পিপলস কংগ্রেসের চেয়ারম্যান লি ঝাংসুর সঙ্গে বৈঠক হবে প্রধামন্ত্রী শেখ হাসিনার। চীনের ক্ষমতাসীন কমিউনিস্ট পার্টিতে শি জিনপিংয়ের পর দ্বিতীয় ক্ষমতাধর ব্যক্তি হিসেবে তাকেই বিবেচনা হয়।

বিকেলে শেখ হাসিনা চীনের প্রেসিডেন্ট শি জিনপিংয়ের সঙ্গে দিয়াওইয়ুতাই রাষ্ট্রীয় অতিথিশালায় বৈঠক করবেন। বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রীর সন্মানে দেয়া চীনা প্রেসিডেন্টের ভোজ সভায়ও অংশ নেবেন শেখ হাসিনা।

চীন সফর শেষে ৬ জুলাই বাংলাদেশের ফেরার কথা রয়েছে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার।

 

এই বিভাগের আরো খবর

ক্যাসিনোকাণ্ডে জড়িত বিদেশির জামিন নামঞ্জুর

নিজস্ব সংবাদদাতা: মানি লন্ডারিংয়ের...

বিস্তারিত
সৌদি থেকে দেশে ফেরার ঝুঁকিতে ১০ লাখ শ্রমিক

মাবুদ আজমী: সৌদি আরব থেকে দেশে ফেরত...

বিস্তারিত
করোনা চিকিৎসায় রক্ত দিলেন জোয়া মোরানি

বিনোদন ডেস্ক: নোভেল করোনাভাইরাসে...

বিস্তারিত
যুক্তরাষ্ট্রে আরও ৯ বাংলাদেশির মৃত্যু

অনলাইন ডেস্ক: যুক্তরাষ্ট্রে আবারও...

বিস্তারিত

0 মন্তব্য

আপনার মতামত প্রকাশ করুন

মন্তব্য প্রকাশ করুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না. প্রয়োজনীয় ক্ষেত্রগুলি চিহ্নিত করা আছে *