সব দেশের সঙ্গে সুসম্পর্ক রেখে এগিয়ে যাচ্ছে দেশ: বেইজিংয়ে প্রধানমন্ত্রী

প্রকাশিত: ০৬:২৩, ০৩ জুলাই ২০১৯

আপডেট: ০৮:১৯, ০৩ জুলাই ২০১৯

নিজস্ব প্রতিবেদক: প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, সবার সাথে বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক রেখেই দেশ এগিয়ে যাচ্ছে। সরকারের স্থিতিশীলতার কারনে দেশে বিনিয়োগের পরিস্থিতি তৈরি হয়েছে।

বুধবার (০৩ জুলাই) দুপুরে চীনের বেইজিংয়ে নাগরিক সংবর্ধনায় অংশ নিয়ে তিনি এসব কথা বলেন। এর আগে স্থানীয় সময় সকালে বেইজিং আন্তর্জাতিক বিমান বন্দরে পৌঁছালে প্রধানমন্ত্রীকে লাল-গালিচা সংবর্ধনা দেয়া হয়।

চীন সফরের তৃতীয় দিন বুধবার স্থানীয় সময় বিকালে বেইজিংয়ে প্রবাসী বাংলাদেশিদের দেয়া নাগরিক সংবর্ধনায় অংশ নেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

আলোচনার শুরুতেই দেশের অর্থনীতিতে প্রবাসীদের অবদানের কথা তুলে ধরেন প্রধানমন্ত্রী। তিনি বলেন, ‘চীন ও ভারতের মত সব দেশের সাথে বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক রেখেই দেশ এগিয়ে যাচ্ছে। দেশ ও সরকার স্থিতিশীল আছে বলেই দেশে বিনিয়োগের পরিস্থিতি তৈরি হয়েছে।’

যারা স্বাধীনতা চায়নি তারাই উন্নয়নে বাধা তৈরি করছে উল্লেখ করে ষড়যন্ত্রকারীদের বিরুদ্ধে সতর্ক থাকার আহ্বান জানান শেখ হাসিনা।  পঁচাত্তরের খুনিদের শাস্তি হলেও মূল পরিকল্পনাকারীদের এখনো বিচার হয়নি মন্তব্য করে ভবিষ্যতে এদের বিচার নিশ্চিতের প্রতিশ্রুতি দেন প্রধানমন্ত্রী।

এর আগে বুধবার স্থানীয় সময় সকালে বেইজিং আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে পৌঁছালে প্রধানমন্ত্রীকে স্বাগত জানান চীনের পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী কিং গ্যাং।

এ সময় শেখ হাসিনাকে লালগালিচা সংবর্ধনা দেওয়া হয়। পরে তাকে গার্ড অব অনার দেয় চীনের সশস্ত্র বাহিনীর একটি চৌকস দল।

বিমানবন্দরের আনুষ্ঠানিকতা শেষে মোটর শোভাযাত্রা সহকারে ডিয়াও ইউ তাই স্টেট গেস্ট হাউজে নেওয়া হয় শেখ হাসিনাকে। সফরকালে তিনি সেখানেই থাকবেন।

চীনের প্রেসিডেন্ট শি জিনপিংয়ের আমন্ত্রণে গত ১ জুলাই দেশটিতে আসেন বাংলাদেশ সরকারপ্রধান। সেদিন রাতে লিয়াওনিং প্রদেশের দালিয়ানে পৌঁছানোর পর মঙ্গলবার (২ জুলাই) বিভিন্ন কর্মসূচিতে যোগ দেন প্রধানমন্ত্রী। প্রথমে ডালিয়ান আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে ওয়ার্ল্ড ইকোনমিক ফোরামের ‘অ্যানুয়াল মিটিং অব দ্য নিউ চ্যাম্পিয়নস-২০১৯’ শীর্ষক গ্রীষ্মকালীন সম্মেলনে অংশ নেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এরপর বিকেলে ‘কো-অপারেশন ইন দ্য প্যাসিফিক রিম’ শীর্ষক প্যানেল আলোচনায় অংশ নেন তিনি।

বৃহস্পতিবার (৪ জুলাই) দুপুরে চীনের প্রধানমন্ত্রী কেছিয়াং-এর সঙ্গে দ্বিপাক্ষিক বৈঠক করবেন শেখ হাসিনা। বৈঠকের পর দুই দেশের মধ্যে কয়েকটি চুক্তি ও সমঝোতা স্মারক সই হতে পারে।

দুপুরে চীনা প্রধানমন্ত্রীর দেওয়া ভোজে যোগ দেবেন বাংলাদেশ সরকারপ্রধান। এ দিন বিকালে চীনের ব্যবসায়ী নেতাদের সঙ্গে গোলটেবিল বৈঠকেও অংশ নেবেন তিনি।

শুক্রবার (৫ জুলাই) বিকেলে চীনের প্রেসিডেন্ট শি জিনপিংয়ের সঙ্গে বৈঠক করবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। রাতে চীনা প্রেসিডেন্টের দেওয়া নৈশভোজে অংশ নেবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

 

 

এই বিভাগের আরো খবর

পীরগঞ্জ উপজেলা আ. লীগের সদস্য হলেন জয়

নিজস্ব প্রতিবেদক: ব্যাপক উৎসাহ...

বিস্তারিত
আপিল বিভাগে আটকে গেল লতিফ সিদ্দিকীর জামিন

অনলাইন ডেস্ক: বগুড়ায় দুদকের করা এক...

বিস্তারিত

0 মন্তব্য

আপনার মতামত প্রকাশ করুন

মন্তব্য প্রকাশ করুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না. প্রয়োজনীয় ক্ষেত্রগুলি চিহ্নিত করা আছে *