স্বপ্নের ক্রিকেট বিশ্বকাপ স্পর্শ করলো ইংল্যান্ড

প্রকাশিত: ০৬:১৪, ১৪ জুলাই ২০১৯

আপডেট: ০৩:২১, ১৪ জুলাই ২০১৯

ক্রীড়া প্রতিবেদক : অবশেষে স্বপ্নের বিশ্বকাপ স্পর্শ করলো ইংল্যান্ড। অবিশ্বাস্য, শ্বাসরুদ্ধকর আর রোমাঞ্চকর এক ম্যাচ জিতে বিশ্বকাপ ট্রফি নিজেদের করে নিলো ইংলিশরা। লর্ডসে বিশ্বকাপ ইতিহাসের ফাইনালে প্রথমবার সুপার ওভারে গড়ানো ম্যাচের প্রতিটি বলেই ছিলো নাটকীয়তা ও রদ্ধশ্বাস উত্তেজনা। মূল ম্যাচের পর সুপার ওভারও টাই হয়। শেষ পর্যন্ত বাউন্ডারির হিসেবে প্রথমবারের মতো বিশ্বকাপ ট্রফি জিতলো ইংল্যান্ড। আরো একবার তীরে এসে তরী ডুবানোর হতাশায় পুড়লো নিউজিল্যান্ড।


এমন একটি মুহূর্তের জন্য ইংল্যান্ডকে অপেক্ষা করতে হয়েছে কয়েক যুগেরও বেশি। ক্রিকেটের জন্ম যাদের হাত ধরে অবশেষে তাদের অপেক্ষার অবসান হলো। অনেক নাটকীয়তার পর হোম অব ক্রিকেট লর্ডস পেলো বিশ্ব ক্রিকেটের নতুন রাজার দেখা। লর্ডসের ঐতিহাসিক ব্যালকনিতে শ্যাম্পেনের ফোয়ারায় শিরোপা হাতে উল­াসে মাতলো ক্রিকেটের জনকের দেশের খেলোয়াড়রা। নিউজিল্যান্ডকে হারিয়ে বিশ্ব সেরার মুকুট অর্জনের পর এমন বুনো উল্লাসতো ইংলিশদেরই মানায়। বিশ্বকাপের ট্রফি হাতে নিয়ে এই মুহূর্তে ইয়ন ম্যারগ্যান নিজেকে জগতের সবচেয়ে সুখী মানুষ ভাবতেই পারেন।

অধরা বিশ্বকাপ ট্রফিটি জিততে ইংল্যান্ডের সামনে লক্ষ্য ছিলো ২’শ ৪২ রান। চলতি বিশ্বকাপ ইংলিশরা যেই জয়ের ক্যারাভান ছুটিয়েছে তাতে এই লক্ষ্যটা একেবারেই মামুলি ছিলো স্বাগতিকদের জন্য। ক্রিকেট দেবতা হয়তো ইংলিশদের শিরোপা দেবেন বলেই পণ করে রেখেছিলেন। তবে সেই শিরোপা জিততে ইংল্যান্ডকে বেশ কাঠখর পোড়াতে হবে এটাও বোধহয় ক্রিকেট দেবতা ঠিক করে রেখেছিলেন। তাইতো স্কোর বোর্ডে ৮৬ রান উঠতেই প্রথম ৪ ব্যাটসস্যান বিদায় নিলে লর্ডসের আকাশে মেঘের লুকোচুরির সাথে বাড়তি দুঃশ্চিন্তা যোগ হয় ইংলিশদের ড্রেসিং রুমে। আবারো শিরোপার খুব কাছে এসে হতাশ হওয়ার শংকা ইংলিশদের। কিন্তু হতাশার সেই কালো মেঘ সরানোর দায়িত্ব কাঁধে নেন জস বাটলার ও বেন স্টোকস। সময় গড়ানোর সাথে সাথে লর্ডসের আকাশে রোদের আভা বাড়তে থাকে। রানের চাকা সচল রেখে দু’জনই ঠান্ডা মাথায় ম্যাচের পরিস্থিতি বুঝে ব্যাট চালিয়েছেন। বাটলার-স্টোকস জুটি যোগ করেন ১’শ ১০ রান। তাতে প্রথম বিশ্বকাপ জয়ের পথে এগুতে থাকে ইংল্যান্ড। বাটলার দায়িত্বপূর্ণ ৫৯ রানে আউট হলেও ততক্ষণে জয়ের খুব কাছে ইংলিশরা। তবে শেষ ওভারের নাটকীয়তায় ম্যাচের ভাগ্য গড়ায় সুপার ওভারে। সেখানেও ছিলো নাটকীয়তা আর রোমাঞ্চের পসরা। বলে বলে ম্যাচের ভাগ্য দুলেছে পেন্ডুলামের মতো। সুপার ওভারও টাই হলে, ম্যাচের বাউন্ডারির হিসেবে বিশ্বকাপ ট্রফি জেতে ইংলিশরা।

এর আগে নিউজ্যিান্ড ৮ উইকেটে ২’শ ৪১ রান তোলে। হোম অব ক্রিকেট লর্ডসে সকালের বেরসিক বৃষ্টিতে এবারের বিশ্বকাপ ফাইনাল শুরু হয় ১৫ মিনিট দেরিতে। বিশ্বকাপের সোনালী ট্রফি প্রথমবারের মতো জয়ের স্বপ্ন নিয়ে ব্যাট করতে নামা নিউজিল্যান্ডের দুঃস্বপ্ন পরিণত হয় আম্পায়ার কুমার ধর্মসেনা ও ইরাসমাস। আইসিসি’র বর্ষসেরা আম্পায়ার ধর্মসেনার ভুলের মাশুল দিতে হয়েছে কিউইদের। হ্যানরি নিকোলস রিভিউ নিয়ে ভুল সিদ্ধান্তের বলি হওয়া থেকে বাঁচলেও কিউইদের ভরসা অধিনায়ক কেইন উইলিয়ামসন ও রস টেইলর আউট হয়েছেন। তাতে বড় রানের পথে হোঁচট খায় গত আসরের রানার্সআপরা। প্রথমবার বিশ্বকাপ জয়ের স্বপ্নটা ফিকে হতে শুরু হয় ব্ল্যাক ক্যাপসদের। প্লাঙ্কেট দুর্দান্ত বোলিংয়ে দুমড়ে মুচড়ে দেন নিউজিল্যান্ডের ব্যাটিং অর্ডার। টম ল্যাথাম ৪৭, নিশাম ১৯ ও গ্র্যান্ডহোামের ১৬ রানে নিউজিল্যান্ডের মান বাঁচানো পুঁজি দাঁড়ায় ৮ উইকেটে ২’শ ৪১ রান। বিশ্বকাপের শিরোপা জয়ের জন্য ২৪২ রানের টার্গেট ছুঁড়ে দেয় ইংলিশদের সামনে। আর নাটকীয় নানা মুহুর্ত পেরিয়ে শিরোপা জয়ের স্বাদ পায় ইংলিশরা।  

 

 

এই বিভাগের আরো খবর

খুশির জোয়ারে ভাসছেন ইংলিশরা

ক্রীড়া ডেস্ক: বিশ্বকাপ শ্রেষ্ঠত্বের...

বিস্তারিত
টুর্নামেন্ট সেরা উইলিয়ামসন

ক্রীড়া প্রতিবেদক : বিশ্বকাপ...

বিস্তারিত
দুর্দান্ত ভূমিকা রেখে ম্যাচ সেরা বেন স্টোকস

রীড়া প্রতিবেদক : বিশ্বকাপের ফাইনালে...

বিস্তারিত
ভারতকে বিদায় করে ফাইনালে নিউজিল্যান্ড

ক্রীড়া ডেস্ক: ম্যানচেস্টারের ওল্ড...

বিস্তারিত

0 মন্তব্য

আপনার মতামত প্রকাশ করুন

মন্তব্য প্রকাশ করুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না. প্রয়োজনীয় ক্ষেত্রগুলি চিহ্নিত করা আছে *