ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ৪ আশ্বিন ১৪২৬

2019-09-19

, ১৯ মহররম ১৪৪১

বরগুনায় ডেঙ্গু পরীক্ষায় অনিয়মের অভিযোগ

প্রকাশিত: ১০:৫৯ , ২৪ আগস্ট ২০১৯ আপডেট: ১০:৫৯ , ২৪ আগস্ট ২০১৯

বরগুনা প্রতিনিধি: বরগুনায় রোগ নির্ণয়ের পরীক্ষায় অনিয়মের অভিযোগ উঠেছে। বিভিন্ন ডায়াগনস্টিক সেন্টারে একই রোগীর আলাদা আলাদা রিপোর্ট দেয়া হচ্ছে বলে দাবি করেছেন অনেকে। এছাড়া ডেঙ্গু নির্ণয়ের প্রয়োজনীয় সরঞ্জাম থাকার পরও সরকারি হাসপাতাল থেকে রোগীদের পাঠানো হচ্ছে বিভিন্ন বেসরকারি ডায়াগনস্টিক সেন্টারে। এতে বাড়ছে ব্যয় ও ভোগান্তি।

আড়াই বছরের শিশু মারিয়া। স¤প্রতি জ্বরে আক্রান্ত হলে তার পরিবার তাকে নিয়ে যায় বরগুনা সদর হাসপাতালে। সেখান থেকে পরীক্ষার জন্য তাকে পাঠানো হয় রংধনু নামে বেসরকারি একটি ডায়াগনস্টিক সেন্টারে। সেখানে পরীক্ষায় তার শরীরে ডেঙ্গু ভাইরাস ধরা পড়েনি। তবে শরীফ এক্সরে ও প্যাথলজি নামের প্রতিষ্ঠানে ডেঙ্গু ধরা পড়ে কথাগুলো বলছিলেন মারিয়ার মামা আমিনুল ইসলাম। পরে মারিয়াকে ঢাকায় নিয়ে যায় তার পরিবার।

একই অবস্থা শহরের থানাপাড়া এলাকার বাসিন্দা আব্দুর রাজ্জাকের। গত ৫ আগস্ট জ্বর নিয়ে রংধনু ডায়াগনস্টিকের পরীক্ষায় ডেঙ্গু ধরা পড়ে। পরে সদর হাসপাতালে ভর্তি হয়ে পরীক্ষা করালে ডেঙ্গু ভাইরাস ধরা পড়েনি তার। আবার ৮ আগস্ট হলি কেয়ার ডায়াগনস্টিক ও উপক‚ল ডায়গনস্টিকের পরীক্ষায় ডেঙ্গু ধরা পড়ে তার। একই রোগীর পরীক্ষায় এমন ভিন্ন ভিন্ন ফলের কারণে দুশ্চিন্তা ও দুর্ভোগে পড়ছেন অনেকে।

এদিকে রোগীরা বলছেন, জেলা সদর হাসপাতালে ডেঙ্গু পরীক্ষার কিট থাকলেও তাদের পাঠানো হচ্ছে বিভিন্ন বেসরকারি ডায়াগনস্টিক সেন্টারে।

এ ঘটনায় হাসপাতালের নার্স ও চিকিৎসকরা একে অপরকে দুষলেন। এমন অভিযোগ পাওয়ার পরও কোন ব্যবস্থা নেয়নি হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ ও সিভিল সার্জন।

এদিকে, ডেঙ্গু রোগীর পরীক্ষায় অদক্ষতা ও অনিয়ম পাওয়া গেলে আইনী ব্যবস্থা নেয়ার কথা জানালেন জেলা প্রশাসক মুস্তাইন বিল্লাহ। সরকারি হিসেবে বরগুনায় এ পর্যন্ত ডেঙ্গু রোগী ধরা পড়েছে ২২৮জন।

এই বিভাগের আরো খবর

0 মন্তব্য

আপনার মতামত প্রকাশ করুন

Message is required.
Name is required.
Email is