ঢাকা, রবিবার, ১৫ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ৩১ ভাদ্র ১৪২৬

2019-09-15

, ১৫ মহররম ১৪৪১

জাতীয় কবির ৪৩তম মৃত্যুবার্ষিকী আজ

প্রকাশিত: ১০:১৩ , ২৭ আগস্ট ২০১৯ আপডেট: ১২:৩৬ , ২৭ আগস্ট ২০১৯

নিজস্ব প্রতিবেদক: জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলামের ৪৩তম মৃত্যুবার্ষিকী আজ। সৃষ্টির জন্য যেটুকু সময় পেয়েছিলেন কবি, তাতেই পূর্ণ করে গেছেন বাংলা সাহিত্যের ভান্ডার। দ্রোহ আর সাম্যই ছিল নজরুলের জীবনের আদর্শ। মানুষের মুক্তির আকাঙ্খাই তাঁর চিন্তাজগতের বিষয়। সকল অমানবিক ঘটনায় যেমন ক্ষুব্ধ হয়ে উঠতো তাঁর কলম তেমনি প্রেমের অধরা মাধুরীর কথাও কবিতা ও গানে নজরুল শুনিয়েছেন জীবন অভিজ্ঞতায়।

বাঙালির হৃদয়ে চিরস্মরণীয় কবি কাজী নজরুল ইসলাম। যার জীবনের সূচনাই ঘটেছিলো বিদ্রোহের মধ্য দিয়ে। সে কারণেই হয়তো রাজনৈতিক বিদ্রোহটাকে অত্যন্ত দক্ষতার সাথে সাহিত্যে নিয়ে এসেছিলেন তিনি। বৃটিশ বিরোধী আন্দোলন থেকে শুরু করে মহান মুক্তিযুদ্ধ সব সংগ্রামেই নজরুলের লেখা গান ও কবিতা ছিল বড় প্রেরণা।

সা¤প্রদায়িকতা ও সাম্রাজ্যবাদের বেড়াজাল ভাঙ্গার প্রয়াসও ছিল তার লেখায়। তবে নজরুলকে যেভাবেই দেখা হোকনা কেন, তার মানস কাঠামোর মূল গড়নটাই ছিল সার্বজনীন মানবিতার পক্ষে। মানুষের ওপর অত্যাচার, সামাজিক অনাচার ও শোষনের বিরুদ্ধে সোচ্চার প্রতিবাদই ছিল তার সাহিত্যের বিষয়বন্তু।

কবিতায় বিদ্রোহী দৃষ্টিভঙ্গির জন্য তাকে দেয়া হয় বিদ্রোহী কবির উপাধি। কিন্তু প্রেমিক নজরুলের পরিচয়টাও সমান ভাবেই গ্রহণযোগ্য সাহিত্যভূবনে। সেকারণেই তার বিরোহের গান কবিতা মানুষের অর্ন্তগত যে চারণভূমি ছিলো সেখানে একটি চির সবুজ ক্ষেত হিসেবে দাঁড়িয়ে গেলো।

বাঙালির মন ও মানসের বহুমুখীনতার অনন্য প্রকাশের নামই কাজী নজরুল ইসলাম। মৃত্যুর অনেক আগেই নির্বাক হয়ে গিয়েছিলেন কাজী নজরুল ইসলাম। খ্যাতি আর সৃষ্টিশীলতার মধ্যগগনে থেকে নিভে যায় সাহিত্যের এই উজ্জ্বল নক্ষত্র।

এই বিভাগের আরো খবর

জাতীয় কবির ৪৩তম মৃত্যুবার্ষিকী আজ

নিজস্ব প্রতিবেদক: জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলামের ৪৩তম মৃত্যুবার্ষিকী আজ। সৃষ্টির জন্য যেটুকু সময় পেয়েছিলেন কবি, তাতেই পূর্ণ করে গেছেন বাংলা...

0 মন্তব্য

আপনার মতামত প্রকাশ করুন

Message is required.
Name is required.
Email is