ঢাকা, মঙ্গলবার, ২৪ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ৯ আশ্বিন ১৪২৬

2019-09-24

, ২৪ মহররম ১৪৪১

মিন্নির জামিন আবেদনের বিষয়ে কাল রায়

প্রকাশিত: ০৪:৫২ , ২৮ আগস্ট ২০১৯ আপডেট: ০৪:৫২ , ২৮ আগস্ট ২০১৯

নিজস্ব প্রতিবেদক: বরগুনার রিফাত শরীফ হত্যা মামলায় তার স্ত্রী আয়েশা সিদ্দিকা মিন্নিকে কেন জামিন দেওয়া হবে না, সে মর্মে জারি করা রুলের ওপর শুনানি শেষ হয়েছে। এ বিষয়ে রায়ের জন্য আগামীকাল বৃহস্পতিবার (২৯ আগস্ট) দিন ঠিক করেছেন হাইকোর্ট। 

আজ বুধবার (২৮ আগস্ট) বিচারপতি এম ইনায়েতুর রহিম ও বিচারপতি মো. মোস্তাফিজুর রহমানের হাইকোর্ট বেঞ্চ এ আদেশ দেন।

আদালতে আবেদনের পক্ষে ছিলেন আইনজীবী জেড আই খান পান্না। রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল মো. সারোয়ার হোসাইন বাপ্পী। এ সময় আদালত কক্ষে থাকা জ্যেষ্ঠ আইনজীবী মনসরুল হক চৌধুরী জামিন আবেদনের পক্ষে শুনানি করেন।

এর আগে রিফাত হত্যাকাণ্ডে গ্রেপ্তারকৃত মিন্নিকে কেন জামিন দেয়া হবে না তা জানতে চেয়ে গত ২০ আগস্ট রুল জারি করেন হাইকোর্ট। একই সঙ্গে মামলার তদন্ত কর্মকর্তাকে (আইও) মামলার নথিপত্রসহ তলব করেন আদালত। তাকে ২৮ আগস্ট হাইকোর্টে স্বশরীরে উপস্থিত হওয়ার নির্দেশ দেওয়া হয়েছিল। এছাড়া মিন্নির সংশ্লিষ্টতার বিষয় জানিয়ে করা সংবাদ সম্মেলনের বিষয়ে পুলিশ সুপারকে (এসপি) লিখিত ব্যাখ্যা দিতেও বলা হয়।

এছাড়া মিন্নি দোষ স্বীকার করেছে, এমন দাবি করে দেয়া সংবাদ সম্মেলনের বিষয়ে বরগুনার এসপিকে লিখিত ব্যাখ্যা দিতেও নির্দেশ দেন হাইকোর্ট। শুনানির জন্য আজ (২৮ আগস্ট) দিন ধার্য করেন আদালত।

গত ৮ আগস্ট (বৃহস্পতিবার) বিচারপতি শেখ মো. জাকির হোসেন ও বিচারপতি মো. মোস্তাফিজুর রহমানের হাইকোর্ট বেঞ্চে ঘণ্টাব্যাপী শুনানি শেষে জামিন প্রশ্নে রুল জারি করতে গেলে আইনজীবীরা আবেদন ফেরত নেন। এরপর ১৮ আগস্ট (রোববার) উক্ত বেঞ্চে জামিন আবেদনটি উপস্থাপন করা হয়। পরদিন সোমবার এ বিষয়ে আংশিক শুনানি হয়। তার আগে গত ৫ আগস্ট (সোমবার) মিন্নির জামিন আবেদনের কথা জানিয়েছিলেন জেড আই খান পান্না।

২৬ জুন প্রকাশ্য দিবালোকে বরগুনা সরকারি কলেজ রোডে স্ত্রী মিন্নির সামনে কুপিয়ে জখম করা হয় রিফাত শরীফকে। পরে বরিশাল শেরে বাংলা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়। হত্যাকাণ্ডের প্রধান অভিযুক্ত নয়ন বন্ড ২ জুলাই ভোরে পুলিশের সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত হন। এর মধ্যে মামলার অন্য আসামিদেরও গ্রেপ্তার করা হয়।

১৬ জুলাই সকালে বরগুনার মাইঠা এলাকায় বাবার বাসা থেকে মিন্নিকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য বরগুনার পুলিশ লাইনে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানে জিজ্ঞাসাবাদ শেষে রিফাত হত্যাকাণ্ডে সম্পৃক্ততার প্রাথমিক প্রমাণ পাওয়ায় ওই দিন রাত ৯টার দিকে মিন্নিকে গ্রেপ্তার দেখায় পুলিশ।

পরদিন ১৭ জুলাই বিকেলে মিন্নিকে আদালতে হাজির করে সাত দিন রিমান্ডের আবেদন করলে পাঁচ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন আদালত। পরে তাকে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন আদালত।

২২ জুলাই বরগুনার সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে প্রথমবার মিন্নির জামিনের আবেদন করেন তার আইনজীবী অ্যাডভোকেট মো. মাহবুবুল বারী আসলাম। ওই দিনই শুনানি শেষে আদালতের বিচারক মোহাম্মদ সিরাজুল ইসলাম গাজী তার জামিন আবেদন নামঞ্জুর করেন।

এরপর ২৩ জুলাই মিস কেস দাখিল করে বরগুনার জেলা ও দায়রা জজ আদালতের বিচারক মো. আসাদুজ্জামানের আদালতে ফের জামিনের আবেদন করেন মিন্নির আইনজীবী অ্যাডভোকেট মো. মাহবুবুল বারী আসলাম। পরে সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের নথি তলব করে ৩০ জুলাই এ জামিন শুনানির দিন ধার্য করেন আদালত। শুনানির পর আদালত জামিন আবেদন নাকচ করেন।

এই বিভাগের আরো খবর

গডফাদার-গ্র্যান্ডফাদার চিনি না, অপরাধীরা ছাড় পাবে না: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

নিজস্ব প্রতিবেদক: অপরাধী যেই হোক তাকে আইনের আওতায় আনা হবে বলে আবারো হুঁশিয়ারি দিয়েছেন  স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল। তিনি...

জি কে শামীম, খালেদ ও তাদের স্বজনদের ব্যাংক হিসাব জব্দের নির্দেশ এনবিআরের

নিজস্ব প্রতিবেদক: অস্ত্র, মাদক ও অর্থ পাচার মামলায় রিমান্ডে থাকা দুই যুবলীগ নেতা জি কে শামীম ও খালেদ মাহমুদ ভুইয়া এবং তাদের স্বজনদের ব্যাংক...

ফতুল্লায় আটকরা সাম্প্রতিক জঙ্গি হামলায় সম্পৃক্ত: মনিরুল

নারায়ণগঞ্জ প্রতিনিধি: নারায়ণগঞ্জের ফতুল্লার তক্কার মাঠ এলাকায় জঙ্গি আন্তানা সন্দেহে একটি বাড়িতে চালানো অভিযানে আটক রুমি নব্য জেএমবির...

ক্যাসিনোর নেপথ্যে ৫০ জন গডফাদার

আশিক মাহমুদ: রাজধানীতে অবৈধ ক্যাসিনো চালানোর নেপথ্যে কারা জড়িত, সে সম্পর্কে গোয়েন্দাদের কাছে মুখ খুলতে শুরু করেছে রিমান্ডে থাকা যুবলীগের...

উত্তরায় ফুটপাতে স্থাপনা গুড়িয়ে দিলেন ম্যাজিস্ট্রেট

নিজস্ব প্রতিবেদক: ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের বিভিন্ন এলাকায় ফুটপাতে গড়ে ওঠা অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ অভিযান শুরু হয়েছে। রোববার (২২ সেপ্টেম্বর)...

0 মন্তব্য

আপনার মতামত প্রকাশ করুন

Message is required.
Name is required.
Email is