হাইকোর্টে ফের খালেদা জিয়ার জামিন আবেদন

প্রকাশিত: ০৭:০২, ০৩ সেপ্টেম্বর ২০১৯

আপডেট: ০৭:০২, ০৩ সেপ্টেম্বর ২০১৯

নিজস্ব প্রতিবেদক: জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় সাত বছরের কারাদণ্ডপ্রাপ্ত বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া জামিন চেয়ে আবারও হাইকোর্টে আবেদন করেছেন। আজ মঙ্গলবার (০৩ সেপ্টেম্বর) দুপুরে বিচারপতি ফরিদ আহমেদ ও এএসএম আব্দুল মবিনের নেতৃত্বাধীন হাইকোর্ট বেঞ্চে আবেদনটি জমা দেন তার আইনজীবীরা।

এর আগে গত ৩১ জুলাই খালেদা জিয়ার জামিন আবেদন খারিজ করে দেন হাইকোর্টের অন্য একটি বেঞ্চ।

এদিকে, দুদকের আইনজীবী খুরশিদ আলম খান জানিয়েছেন, হাইকোর্টের একটি বেঞ্চে খারিজ হওয়ার পর আবারও জামিন আবেদনের কোন নজির নেই। এ বিষয়ে তার আপিল করতে পারতেন।

এ বিষয়ে খালেদা জিয়ার আইনজীবী ব্যারিস্টার কায়সার কামাল বলেন, এর আগে জামিন রিজেক্ট হয়েছে ঠিকই। তবে হাইকোর্টের একটি দ্বৈত বেঞ্চে জামিন আবেদন খারিজ হওয়ার পর আবারও হাইকোর্টে জামিন চাওয়ার আইনগত বাধা নেই।

তিনি আরও বলেন, রুল অ্যান্ড প্যাকটিস অনুযায়ী আবেদন করা যায়। আর দ্বিতীয়বার জামিন আবেদন করার বিষয়ে কোনো আইনজীবী যদি বলে থাকেন, তবে তার আইন জানা দরকার।

২০১৮ সালের ২৯ অক্টোবর জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্ট মামলার রায় ঘোষণা করেন ঢাকার বিশেষ জজ আদালত-৫-এর বিচারক। রায়ে খালেদা জিয়াকে সাত বছর করে কারাদণ্ড এবং ১০ লাখ টাকা করে অর্থদণ্ড করা হয়। বিচারিক আদালতের দেয়া ওই সাজা বাতিল ও খালাস চেয়ে গত বছরের ১৮ নভেম্বর হাইকোর্টের সংশ্লিষ্ট শাখায় আপিল করেন খালেদা জিয়া।

এর গ্রহণযোগ্যতার ওপর শুনানি নিয়ে গত ৩০ এপ্রিল হাইকোর্ট খালেদা জিয়ার আপিল শুনানির জন্য গ্রহণ করেন। একই সঙ্গে ওই মামলায় খালেদা জিয়াকে বিচারিক আদালতে দেয়া জরিমানার আদেশ স্থগিত করে বিচারিক আদালতে থাকা মামলাটির নথি তলব করেন হাইকোর্ট। দুই মাসের মধ্যে নথি পাঠাতে বলা হয়। বিচারিক আদালত থেকে মামলার নথি গত ২০ জুন হাইকোর্টে পাঠানো হয়।

এরপর খালেদা জিয়ার জামিন আবেদনের বিষয়টি আদালতে তুলে ধরেন তার আইনজীবীরা। এর ধারাবাহিকতায় ৩০ জুলাই জামিন আবেদনের ওপর শুনানি হয়। পরের দিন ৩১ জুলাই তা সরাসরি খারিজ করে দেন হাইকোর্ট।

এই বিভাগের আরো খবর

বিএনপির এমপি হারুনের ৫ বছরের কারাদণ্ড

নিজস্ব প্রতিবেদক: বিএনপির যুগ্ম...

বিস্তারিত
শামীম ও খালেদের বিরুদ্ধে দুদকের মামলা

নিজস্ব প্রতিবেদক: জ্ঞাত আয় বহির্ভূত...

বিস্তারিত

0 মন্তব্য

আপনার মতামত প্রকাশ করুন

মন্তব্য প্রকাশ করুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না. প্রয়োজনীয় ক্ষেত্রগুলি চিহ্নিত করা আছে *