কাজের পরিধি বাড়ায় ফটোগ্রাফিতে আকৃষ্ট তরুণরা

প্রকাশিত: ০৯:৫৯, ০৫ সেপ্টেম্বর ২০১৯

আপডেট: ১২:০৪, ০৫ সেপ্টেম্বর ২০১৯

কাজী বাপ্পা: বৃহৎ কাজের পরিধি এবং আর্থিক লাভের বিষয় বিবেচনায় ফটোগ্রাফি পেশার প্রতি আকৃষ্ট হচ্ছে দেশের তরুণ প্রজন্ম। অনেকে নিজের তোলা ছবির প্রচার, প্রসার ও বাণিজ্য করছে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ও অনলাইনে। আবার সুদক্ষ ফটোগ্রাফার তৈরি করতে প্রতিষ্ঠিত হচ্ছে আলোকচিত্রের জন্য বিশেষায়িত শিক্ষা প্রতিষ্ঠানও।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ব্যবসা অনুষদ থেকে স্নাতোকত্তর করা অভিজিত বিশ্ববিদ্যালয়ের গন্ডি পেরুনোর আগেই সখে হাতে নেন পেশাদারী ক্যামেরা। পরে ব্যবসার চিন্তা থেকে দু’বছর আগে তিনবন্ধু মিলে শুরু করেন চিত্রগল্প নামের একটি প্রতিষ্ঠান, তোলেন বিয়ের ছবি। তাদের চিন্তা চিরাচরিত বিয়ের ছবি বা ওয়েডিং ফটোগ্রাফি থেকে সম্পূর্ণ ভিন্ন হওয়ায় ইতোমধ্যেই ব্যাপক সাড়া পেয়েছেন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে।

তড়িৎ ও তড়িৎযন্ত্র প্রকৌশলী আহমেদ রুমেলও সখ থেকে জীবনের কঠিন বাস্তবতায় ফটোগ্রাফিকে পেশা করেন। শিল্পগুন সম্পন্ন তার তোলা ছবি বোদ্ধাদের নজর কাড়ে। প্রতিষ্ঠানের জন্য ছাড়াও তুলছেন রাষ্ট্রের সর্বোচ্চ ব্যক্তি থেকে শুরু করে অতি গুরুত্বপূর্ণ বিদেশি অতিথিদের ছবিও।

অনেকে কোন বিষয়ে চিন্তাকে কেন্দ্রীভূত না করে মুক্ত-স্বাধীন ভাবনায় কাজ করছেন। পেশায় ফ্রি-ল্যান্সার বা স্বাধীন আলোকচিত্রিদের কাজের প্রচার ও প্রসারের বড় ক্ষেত্র এখন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম। তাই ওয়েব জগৎ থেকেও আয় করছেন তারা।

আলোকচিত্রে তরুণ প্রজন্মের ক্রমবর্ধমান আগ্রহের কথা মাথায় রেখে দক্ষ আলোকচিত্রি গড়ে তুলতে  রাজধানীসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে গড়ে উঠেছে আলোকচিত্রের ওপর স্বল্প ও দীর্ঘ মেয়াদী প্রশিক্ষণ প্রতিষ্ঠান,  শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ভিত্তিক সংগঠন। এসবের মধ্যে রাজধানীর পাঠশালা সাউথ এশিয়ান মিডিয়া ইনিস্টিটিউট ফটোগ্রাফির øাতক ডিগ্রি লাভের সুযোগ তৈরি করেছে। সেখানে শিক্ষা নিচ্ছে দেশি বিদেশি শিক্ষার্থী।

এই বিভাগের আরো খবর

ক্লাবে ক্যাসিনো বসিয়ে লাভবান হাতে গোনা ক’জন

মাবুদ আজমী: ক্যাসিনোর কালিমা লাগার পর...

বিস্তারিত
দিলকুশা ক্লাব দখল করে ক্যাসিনো চালু করেন সাঈদ

মাবুদ আজমী: মতিঝিলের ক্লাব পাড়ায় অবৈধ...

বিস্তারিত

0 মন্তব্য

আপনার মতামত প্রকাশ করুন

মন্তব্য প্রকাশ করুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না. প্রয়োজনীয় ক্ষেত্রগুলি চিহ্নিত করা আছে *