দিল্লিতে শেখ হাসিনাকে উষ্ণ অভ্যর্থনা

প্রকাশিত: ০২:০২, ০৩ অক্টোবর ২০১৯

আপডেট: ০৪:২৭, ০৩ অক্টোবর ২০১৯

নিজস্ব প্রতিবেদক: চারদিনের সরকারি সফরে ভারতের রাজধানী নয়াদিল্লিতে পৌঁছেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এ সময় তাকে উষ্ণ অভ্যর্থনা জানানো হয়। পরে তাজ হোটেলে ইন্ডিয়ান ইকোনমিক সামিটে যোগ দেন প্রধানমন্ত্রী। এই সামিটে বাংলাদেশের বাণিজ্য কৌশলের পাশাপাশি তুলে ধরবেন আর্থ সামজিক চিত্র। এবারের সফরে শনিবার ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির সাথে দ্বিপক্ষীয় বৈঠক করবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এতে ১২টি চুক্তি ও সমঝোতা স্মারক সই হওয়ার কথা রয়েছে।

ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির আমন্ত্রণে ইন্ডিয়ান ইকোনমিক সামিটে অংশ নিতে চারদিনের সফরে বৃহস্পতিবার (০৩ অক্টোবর)  সকালে নয়াদিল্লি পৌঁছান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। দিল্লিতে ভারতীয় বিমান বাহিনীর ঘাঁটি পালামে পৌঁছালে কেন্দ্রীয় সরকারের পক্ষে তাকে স্বাগত জানান দিল্লির নারী ও শিশু বিষয়ক মন্ত্রী।

এ ছাড়া ভারতে নিযুক্ত বাংলাদেশের হাইকমিশনার সৈয়দ মোয়াজ্জেম আলী এবং ঢাকায় নিযুক্ত ভারতের হাইকমিশনার রিভা গাঙ্গুলী দাস এ সময় উপস্থিত ছিলেন। পরে আনুষ্ঠানিক মোটর শোভাযাত্রা সহকারে তাকে নিয়ে যাওয়া হয় তাজ হোটেলে।

সফরের প্রথম দিনেই ওয়ার্ল্ড ইকোনমিক ফোরামের ইন্ডিয়ান ইকোনমিক সামিটে বক্তব্য রাখবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। দেশের বাণিজ্য কৌশলের পাশাপাশি বিভিন্ন দেশের বাণিজ্য প্রতিনিধিদের সামনে তুলে ধরেন তৃণমূল কেন্দ্রিক উন্নয়ন নীতিতে বাংলাদেশের অর্থনীতির এগিয়ে যাওয়ার গল্প।

এ ছাড়াও সৌজন্য সাক্ষাত করবেন দেশটির রাষ্ট্রপতি, প্রধানমন্ত্রী এবং বিরোধী দলীয় নেতার সাথে। অংশ নেবেন ভারতের ব্যবসায়িক প্রতিনিধিদের আয়োজনে অনুষ্ঠিত সম্মেলনে।

আগামী ৫ অক্টোবর অনুষ্ঠিত হবে বাংলাদেশ-ভারত প্রধানমন্ত্রী পর্যায়ের বৈঠক। এতে সীমান্তে হত্যা শূন্যের কোঠায় নামিয়ে আনা, সন্ত্রাস দমন, আঞ্চলিক শান্তি ও স্থিতিশীলতা বজায় রাখতে পারস্পরিক সহযোগিতা বাড়ানো, গঙ্গা ও তিস্তার পানিবন্টন ছাড়াও ৭টি অভিন্ন নদীর পানি বন্টনে নতুন উদ্যোগ নেয়া, বাংলাদেশের রপ্তানি পণ্যের ওপর আরোপিত কর প্রত্যাহারের মত বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ বিষয়ে আলোচনা হবে।

এছাড়া রোহিঙ্গা সংকট সমাধানে কার্যকরী পদক্ষেপ নিতে ভারতের প্রতি আহ্বান জানাবে বাংলাদেশ।

বৈঠক শেষে দু’দেশের মধ্যে যুব ও ক্রীড়া, সংস্কৃতি, নৌ-পরিবহন, অর্থনীতি, সমুদ্র গবেষণা, বাণিজ্যসহ বিভিন্ন বিষয়ে ১২টি চুক্তি ও সমঝোতা স্মারক সইয়ের কথা রয়েছে। সফর শেষে আগামী ৬ অক্টোবর দেশে ফিরবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

এর আগে সকালে দিল্লির উদ্দেশে ডাকা ছাড়েন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে প্রধানমন্ত্রীকে বিদায় জানান মন্ত্রিপরিষদ সদস্য, তিন বাহিনীর প্রধানসহ সরকারি-বেসরকারি উর্ধ্বতন কর্মকর্তারা।

এই বিভাগের আরো খবর

নিউ ইয়র্কে নারায়ণগঞ্জ সমিতির ৩০ বছর উদযাপন

অনলাইন ডেস্ক: নিউ ইয়র্কে ১৯৮৯ সালে...

বিস্তারিত
প্রবাসীদের ভোটার করতে শিগগিরই অনলাইনে আবেদন

অনলাইন ডেস্ক: প্রবাসীদের ভোটার করতে...

বিস্তারিত
ফ্লোরিডা বাণিজ্যমেলায় অংশ নিয়েছে বাংলাদেশ

অনলাইন ডেস্ক: যুক্তরাষ্ট্রে দুইদিন...

বিস্তারিত
 দুর্গাপূজা ঘিরে আমিরাতে উচ্ছ্বাস

অনলাইন ডেস্ক: ধর্মীয় ভাবগাম্ভীর্যের...

বিস্তারিত
শেখ হাসিনা ও সোনিয়া গান্ধীর বৈঠক

নিজস্ব প্রতিবেদক: ভারতের জাতীয়...

বিস্তারিত

0 মন্তব্য

আপনার মতামত প্রকাশ করুন

মন্তব্য প্রকাশ করুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না. প্রয়োজনীয় ক্ষেত্রগুলি চিহ্নিত করা আছে *