স্কোয়াশ খেলা: প্রতিযোগিতা হয় কালেভদ্রে

প্রকাশিত: ১০:২০, ০৭ অক্টোবর ২০১৯

আপডেট: ১০:৪৮, ০৭ অক্টোবর ২০১৯

এস.এম সুমন: পশ্চিমা দেশগুলোর আদলে জুয়া বা ক্যাসিনোর কারণে হঠাৎ আলোচনা ও সমালোচনায় দেশের ক্রীড়া জগত। জনপ্রিয় বহু খেলার স্বনামখ্যাত পুরোনো ক্লাবগুলোর ভূমিকা প্রশ্নবিদ্ধ। খেলাধুলার মান ও অগ্রগতি নিয়ে চলছে চুলচেরা বিশ্লেষণ। সবার ভাবনা পরিচিত, জনপ্রিয় খেলাগুলো নিয়ে। তার সাথে নজর ফেলেছে কম বা প্রায় অপরিচিত, অ-জনপ্রিয় এবং জৌলুসহীন কিছু খেলা এবং সেসবের ফেডারেশনগুলোর ওপরও। কিভাবে চলছে সেসব খেলার জগত? কারা, কেন চালাচ্ছে সেসব ফেডারেশন? কী তার ভবিষ্যত? এসব প্রসঙ্গে সাত খেলা ও ফেডারেশন নিয়ে আজকের বিষয় স্কোয়াশ। 

স্কোয়াশ এন্ড র‌্যাকেট খেলা থেকেই মূলত স্কোয়াশ খেলাটি এসেছে। পশ্চিমা দেশের একটি অভিজাত খেলা। ফুটবল, ক্রিকেটের মতো স্কোয়াশ খেলাটিরও জনক ইংলিশরা। ১৮৬৫ সালে ইংল্যান্ডে প্রথম স্কোয়াশ কোর্ট নির্মিত হয়। বর্তমানে বিশ্বের ১৮৫টি দেশে স্কোয়াশ খেলা হয়। যার মধ্যে পাকিস্তানে ব্যাপক জনপ্রিয়তা পায়। সেখান থেকে বাংলাদেশে স্কোয়াশের প্রচলন  ১৯৭৫ সালে। 

মওলানা ভাসানী হকি স্টেডিয়ামে স্কোয়াশ ফেডারেশনের কার্যালয়ে বছরের পর বছর তালা ঝুলে থাকে। স্টেডিয়াম এলাকার আশেপাশের নিয়মিত ব্যক্তিদের মনে পড়ে না কবে এই ফেডারেশনের দরজা সবশেষ খোলা হয়েছে। 

নিজস্ব কোন কোর্ট না থাকায় ঢাকার বিভিন্ন ক্লাব এবং দেশের বিভিন্ন ক্যাডেট কলেজে স্কোয়াশের প্রতিযোগিতা করা হয় কালেভদ্রে।  

এই বিভাগের আরো খবর

ক্লাবে ক্যাসিনো বসিয়ে লাভবান হাতে গোনা ক’জন

মাবুদ আজমী: ক্যাসিনোর কালিমা লাগার পর...

বিস্তারিত
দিলকুশা ক্লাব দখল করে ক্যাসিনো চালু করেন সাঈদ

মাবুদ আজমী: মতিঝিলের ক্লাব পাড়ায় অবৈধ...

বিস্তারিত

0 মন্তব্য

আপনার মতামত প্রকাশ করুন

মন্তব্য প্রকাশ করুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না. প্রয়োজনীয় ক্ষেত্রগুলি চিহ্নিত করা আছে *