প্রবাসীদের ভোটার করতে শিগগিরই অনলাইনে আবেদন

প্রকাশিত: ০৩:৩৮, ১৫ অক্টোবর ২০১৯

আপডেট: ০৩:৩৮, ১৫ অক্টোবর ২০১৯

অনলাইন ডেস্ক: প্রবাসীদের ভোটার করতে তাদের আবেদন অনলাইনে নেয়ার ব্যবস্থা করেছে নির্বাচন কমিশন (ইসি)এজন্য তৈরি করা আলাদা সার্ভারে কাজ হবেভোটার করার পর তাদের জাতীয় পরিচয়পত্র (এনআইডি)দেয়া হবে

ইসি সূত্রে জানা যায়, এরজন্য আলাদা বিধিমালা তৈরি করেছে ইসিএর মাধ্যম বাড়তি আটটি তথ্য দিয়ে প্রথমে যুক্তরাজ্য, দুবাই, সিঙ্গাপুর ও সৌদি আরবের প্রবাসীরা ভোটার হওয়ার সুযোগ পাবেন

এ বিষয়ে জাতীয় পরিচয়পত্র নিবন্ধন অনুবিভাগের মহাপরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মোহাম্মদ সাইদুল ইসলাম বলেন, ‘প্রবাসীদের ভোটার করার দাবি দীর্ঘদিনেরএনআইডির কারণে তারা অনেক জরুরি কাজ করতে পারেন নাএজন্য তাদের ভোটার ও পরে জাতীয় পরিচয়পত্র দেয়ার জন্য অনেক পদক্ষেপ নিয়েছে কমিশনদু-এক সপ্তাহের মধ্যেই অনলাইনে আবেদনের জন্য একটি পৃথক সার্ভার তৈরি করে এ-সংক্রান্ত ঘোষণা দেয়া হবে

নির্বাচন কমিশনে সংশ্লিষ্ট একাধিক কর্মকর্তার বলেন, ইসি প্রণীত প্রবাসীদের ভোটার বিধিমালায় অন্তত আটটি তথ্য বেশি দেয়ার বিধান রাখা হয়েছেবিধিমালায় সংযোজন করা হয়েছে ফরম-২(ক)দেশে বসবাসরত নাগরিকদের ফরম-২ এবং বিদেশি নাগরিকরা যাতে দ্বৈত ভোটার হতে না পারে, সেজন্য ৩২টি বিশেষ এলাকার জন্য ফরম-২ এর সঙ্গে বিশেষ তথ্য ফরম পূরণ করতে হয়

সর্বশেষ যে এলাকায় বসবাস করেছেন বা নিজের অথবা বাবার বাড়ির ঠিকানায় ভোটার হওয়ার জন্য আবেদন করতে হবেপরবর্তীতে তার আবেদন সেই এলাকার উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তার মাধ্যমে তদন্তের পর দশ আঙ্গুলের ছাপ, চোখের আইরিশের প্রতিচ্ছবি ও ভোটারের ছবি তুলে এনআইডি সরবরাহ করা হবেএর আগের রেজিস্ট্রেশন কেন্দ্রে ও ইসির ওয়েবসাইটে দাবি-আপত্তির জন্য তালিকা দেয়া হবেএ সময়ের মধ্যে কোনো ভুল থাকলে তা সংশোধন করা যাবে

ফরম পূরণে পিতার নাম ও মাতার নাম ইংরেজি ও বাংলায়, বসবাসরত দেশের নাম, জিপ কোড, বাসা ও হোল্ডিং নম্বর, স্টেট বা প্রদেশ, ফোন নম্বর, শনাক্তকারী ব্যক্তির নাম প্রভৃতি আটটি তথ্য বেশি দিতে হবেএছাড়া পাসপোর্ট নম্বর, কর শনাক্তকরণ নম্বরও (টিআইএন) উল্লেখ করতে হবে ফরমে

দেশে বসবাসরতদের জন্য পিতার নাম বা মাতার নাম বাংলা কিংবা ইংরেজি যেকোনো একটায় লিখলেই হয়ফরম-২-এ সেভাবে ঘর করা আছেপাসপোর্ট নম্বর ও টিআইএন না দিলেও চলবে, কেননা সেখানে যদি থাকেলেখা রয়েছে

দেশের বসবাসরতদের জন্য ফরমে স্বাক্ষর করতে হয় শনাক্তকারী ব্যক্তির তথ্যের আগেইআর নামও উল্লেখ করতে হয় নাকিন্তু প্রবাসীদের বেলায় স্বাক্ষর করতে হবে শনাক্তকারী ব্যক্তির তথ্য দেয়ার পরঅর্থাৎ প্রবাসীদের ফরমে শনাক্তকারীর নাম, এনআইডি নম্বর ও স্বাক্ষর দিতে হবেএই স্বাক্ষরও অনলাইনের মাধ্যমে দেশের কোনো আত্মীয় বা পরিজন দিতে পারবেন

এই বিভাগের আরো খবর

মধ্যপ্রাচ্যের ৫ দেশে গৃহকর্মী না পাঠাতে রিট

নিজস্ব প্রতিবেদক: যথাযথ আইনি সুরক্ষা...

বিস্তারিত
জাতিসংঘে রোহিঙ্গা সঙ্কট বিষয়ে রেজুলেশন পাস

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: জাতিসংঘের সাধারণ...

বিস্তারিত
মালয়েশিয়ার আদালতে ৪ বাংলাদেশি নারীর কারাদণ্ড

অনলাইন ডেস্ক: মালয়েশিয়ার আদালতে চার...

বিস্তারিত
পবিত্র ওমরাহ করতে গেলেন সাকিব

অনলাইন ডেস্ক: পবিত্র ওমরাহ পালন করতে...

বিস্তারিত
সৌদি আরবে নারী শ্রমিক না পাঠানোর দাবি সংসদে

নিজস্ব প্রতিবেদক: নির্যাতনের শিকার...

বিস্তারিত

0 মন্তব্য

আপনার মতামত প্রকাশ করুন

মন্তব্য প্রকাশ করুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না. প্রয়োজনীয় ক্ষেত্রগুলি চিহ্নিত করা আছে *