অতি ঝুঁকিপূর্ণ ৭ জেলায় বাড়তি সতর্কতা

প্রকাশিত: ০৬:১১, ০৮ নভেম্বর ২০১৯

আপডেট: ০৬:১৪, ০৮ নভেম্বর ২০১৯

ডেস্ক প্রতিবেদন: বঙ্গোপসাগরে সৃষ্ট প্রবল ঘূর্ণিঝড় বুলবুলের আঘাত সবচে’ বেশি ক্ষতিগ্রস্ত হতে পারে উপকূলীয় সাতটি জেলা।  তাই অতি ঝুঁকিপূর্ণ সাত জেলা খুলনা, সাতক্ষীরা, বাগেরহাট, পটুয়াখালী, ভোলা, পিরোজপুর বরগুনায় শুকনা খাবার এবং প্রতি জেলায় লাখ টাকা করে অগ্রীম বরাদ্দ দিয়েছে দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয়।  

আগামীকাল (শনিবার) সন্ধ্যা থেকে মধ্যরাতের মধ্যে ঘূর্ণিঝড়টি বাংলাদেশের উপকূলে আঘাত হানতে পারে।

আজ (শুক্রবার) দুপুরে দুর্যোগ ত্রাণ মন্ত্রণালয়ে আয়োজিত সভায় দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ত্রাণ প্রতিমন্ত্রী ডা: মো: এনামুর রহমান এসব কথা জানান।

এদিকে চট্টগ্রাম, কক্সবাজার, মোংলা পায়রা সমুদ্রবন্দরগুলোকে নম্বর সতর্ক সংকেত দেখিয়ে যেতে বলেছে আবহাওয়া অফিস।

ঘূর্ণিঝড় বুলবুলের প্রভাব পড়েছে উপকূলীয় এলাকাগুলোতে। বর্তমানে চট্টগ্রাম বন্দরের ৭৬০ কিলোমিটার দক্ষিণ পশ্চিমে অবস্থান করছে এটি। ফলে উত্তাল রয়েছে সাগর। তবে চট্টগ্রাম বন্দরের কার্যক্রম এখন পর্যন্ত স্বাভাবিক রয়েছে। সন্ধ্যায় জরুরী সভা করবে চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসন।

কক্সবাজারে বৈরি আহাওয়ায় টেকনাফ-সেন্টমার্টিন রুটে নৌযান চলাচল বন্ধ রয়েছে। সেন্টমার্টিনে আটকে পড়েছেন প্রায় ১২০০ পর্যটক। গভীর সাগর থেকে মাছধরা ট্রলারগুলো উপকূলে ফিরতে শুরু করেছে।

সন্ধ্যা থেকে পটুয়াখালীতে বৃষ্টি হচ্ছে। জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে ৪০৩টি আশ্রয়কেন্দ্র কন্ট্রোলরুম খোলা হয়েছে বলে জানান পটুয়াখালীর জেলা প্রশাসক

ভোলায় জরুরী সভা শেষে দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা কমিটি জানিয়েছে, ঘূর্ণিঝড় বুলবুল মোকাবেলায় জেলায় ৬৬৮টি আশ্রয়কেন্দ প্রস্তুত রাখা হয়েছে।

এছাড়াও ৯২টি মেডিকেল টিম এবং আইনশৃঙ্খলা বাহিনী, ফায়ার সার্ভিস জনসাধারণের সমন্বয়ে ১২ হাজার সেচ্ছাসেবক প্রস্তুত রাখা হয়েছে। নিরাপদে আশ্রয়ে যেতে বলা হয়েছে মাছধরার ট্রলারগুলোকে।

এই বিভাগের আরো খবর

জয়পুরহাটে শসা চাষে স্বাবলম্বী কৃষকরা

জয়পুরহাট সংবাদদাতা: জয়পুরহাটের...

বিস্তারিত
যাত্রী নিয়ে মেঘনা চরে আটকা পড়েছে লঞ্চ

অনলাইন ডেস্ক: প্রায় এক হাজার যাত্রী...

বিস্তারিত

0 মন্তব্য

আপনার মতামত প্রকাশ করুন

মন্তব্য প্রকাশ করুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না. প্রয়োজনীয় ক্ষেত্রগুলি চিহ্নিত করা আছে *