মধুমতিতে সেতু না থাকায় মানুষের দুর্ভোগ

প্রকাশিত: ০৮:৪৪, ১৯ নভেম্বর ২০১৯

আপডেট: ১২:০৫, ১৯ নভেম্বর ২০১৯

নিজস্ব সংবাদদাতা: গোপালগঞ্জের সদর উপজেলার চর গোবরা এলাকায় মধুমতি নদীর উপর সেতু না থাকায় দুর্ভোগ পোহাচ্ছেন পাঁচ গ্রামের পঁচিশ হাজার মানুষ। প্রতিদিন খেয়া ঘাট দিয়ে এখানে নদী পর হতে হয় স্কুল ও কলেজের শিক্ষার্থী এবং কর্মজীবীদের। নষ্ট হচ্ছে সময়। দুর্ভোগে পড়তে হয় রোগী ও বয়স্ক ব্যক্তিদের।

গোপালগঞ্জ সদর উপজেলার চর গোবরা এলাকা দিয়ে মধুমতি নদী পারাপার হন দুই জেলার পাঁচটি গ্রামের হাজারো মানুষ। নদীর এক পাড়ে গোপালগঞ্জের চর গোবরা, চর সিংগাতি, অন্য পাড়ে নড়াইল জেলার চর আস্তাইল, চুনখোলা ও বাগুডাঙ্গা গ্রাম। এই পাঁচ গ্রামের ২৫ হাজার মানুষকে চলাচলের জন্য মধুমতি নদী পেরুতে হয়। কিন্তু সেতু না থাকায় পোহাতে হয় ভোগান্তি।

খেয়ার অপেক্ষায় দেরি হয়ে যায় স্কুল, কলেজের শিক্ষার্থীদের। শিশুদের পাশাপাশি বয়স্কদের জন্যও কষ্টকর এই খেয়া পারাপার। মাত্র একটি খেয়া দিয়ে চলে দিনভর পারাপার। অপেক্ষা করতে হয় ঘন্টার পর ঘন্টা। আবার সন্ধ্যার পর ১০-১২ ঘন্টা বন্ধ থাকে খেয়া।

চর গোবরা এলাকায় মধুমতি নদীর উপর সেতু নির্মাণের মধ্য দিয়ে শেষ হতে পারে এই ভোগান্তি, এমনটাই বলছেন স্থানীয় জনপ্রতিনিধিরা।

স্থানীয়রা বলছেন, এখানে সেতু নির্মাণ হলে যোগাযোগ, শিক্ষা, চিকিৎসা ও বাণিজ্যসহ বিভিন্ন প্রয়োজনে স্থানীয় মানুষের যাতায়াত সহজ হবে।

 

এই বিভাগের আরো খবর

পঞ্চগড়ে সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ৮ ডিগ্রি

নিজস্ব প্রতিবেদক: হিমালয় থেকে নেমে...

বিস্তারিত
নেত্রকোণা ট্র্যাজিডি দিবস আজ

ডেস্ক প্রতিবেদন: নেত্রকোণা...

বিস্তারিত
জোড়া লাগানো দুই শিশুর চিকিৎসা চলছে ঢামেকে

নিজস্ব প্রতিবেদক: নাটোরের কোমর জোড়া...

বিস্তারিত
কথা, দর্শন আর প্রজ্ঞায় আকৃষ্ট করতেন বঙ্গবন্ধু

পার্থ রহমান: এবার এক বিশেষ সময়ের মুখে...

বিস্তারিত

0 মন্তব্য

আপনার মতামত প্রকাশ করুন

মন্তব্য প্রকাশ করুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না. প্রয়োজনীয় ক্ষেত্রগুলি চিহ্নিত করা আছে *