তাজরিন ট্রাজেডির সাত বছর, এখনো শাস্তি হয়নি দায়ীদের

প্রকাশিত: ১০:০৪, ২৪ নভেম্বর ২০১৯

আপডেট: ১২:০৬, ২৪ নভেম্বর ২০১৯

সাভার সংবাদদাতা: আশুলিয়ার তাজরিন ফ্যাশনের ভয়াবহ অগ্নিকান্ডের ৭বছর পূর্ণ হল আজ। সাত বছর আগে এ’দিন আশুলিয়ার নিশ্চিন্তপুরে তাজরিন ফ্যাশন পোশাক কারখানায় ভয়াবহ অগ্নিকান্ডে প্রাণ হারায় ১শ’ ১৩ শ্রমিক, আহত হয় তিন শতাধিক। পর্যাপ্ত ক্ষতিপূরণ ও সুচিকিৎসা না পাওয়ার ক্ষোভ রয়েছে আহত অনেক শ্রমিকের মধ্যে। এছাড়া, বিচারকাজের ধীরগতির কারণেও ক্ষুব্ধ তারা। 

২৪ নভেম্বর, দেশের পোশাক শিল্পের ইতিহাসে কষ্টের একটি দিন। ২০১২ সালের এ দিন আশুলিয়ার নিশ্চিন্তপুরের তাজরীন ফ্যাশনে ভয়াবহ আগ্নিকান্ডের ঘটনা ঘটে। নিচতলার তুলার গুদাম থেকে শুরু হয়ে আগুনের লেলিহান শিখা ছড়িয়ে পড়ে পুরো কারখানায়। ভয়াবহ সেই আগুনে প্রাণ হারায় ১শ’ ১৩ শ্রমিক, আহতের সংখ্যা ৩শ’ ছাড়ায়।

এ ঘটনার পরপরই নিহত শ্রমিক পরিবারের মধ্যে এবং আহত শ্রমিকদের আর্থিক ক্ষতিপূরণের ঘোষণা দেয় সরকার এবং বাংলাদেশ পোশাক প্রস্তুতকারক ও রপ্তানিকারক সমিতি- বিজিএমইএ। ঘোষণা অনুযায়ী দেয়াও হয় ক্ষতিপূরণ, কিন্তু তা পর্যাপ্ত নয় বলে অভিযোগ রয়েছে। আর সঠিক চিকিৎসা না পাওয়ার খোভ রয়েছে আহত শ্রমিকদের। 

অগ্নিকান্ডের পরদিন আশুলিয়া থানায় মামলা দায়ের করে পুলিশ। ২০১৫ সালের তেসরা সেপ্টেম্বর তাজরীনের মালিকসহ ১৩ আসামির বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠন করা হলেও, আজও শেষ হয়নি বিচারকাজ।  মামলার নিষ্পত্তি না হওয়ায় ক্ষোভ জানিয়েছেন শ্রমিক নেতারা। দায়ীদের দ্রুত শাস্তির দাবি তাদের। 

তাজরিন ফ্যাশানের অগ্নিকান্ড হতাহতদের পরিবারের সদস্যদের কর্মসংস্থানের ব্যবস্থা করে তাদের দুঃখ কিছুটা ঘুচানো সম্ভব বলে মনে করেন শ্রমিক নেতা ও স্থানীয়রা। 
 

এই বিভাগের আরো খবর

বান্দরবানে জেএসএস লারমা গ্রুপের ৬জন খুন

বান্দরবান সংবাদদাতা: বান্দরবানে...

বিস্তারিত
হুঁমকির মুখে নওগাঁর রাণীনগর বেড়িবাঁধ

নওগাঁ সংবাদদাতা: দীর্ঘদিন সংস্কার না...

বিস্তারিত
রাজবাড়ীতে করোনা চিকিৎসায় দুর্ভোগ

রাজবাড়ী সংবাদদাতা: রাজবাড়ীতে করোনা...

বিস্তারিত
ঋণের বোঝা বইতে না পেরে খামারীর আত্মহত্যা

নাটোর সংবাদদাতা: নাটোরের বড়াইগ্রামে...

বিস্তারিত
কক্সবাজার সৈকতে আবার মৃত ডলফিন

নিজস্ব প্রতিবেদক: কক্সবাজার সৈকতে...

বিস্তারিত
পুলিশের নির্যাতনে কিডনি নষ্ট, তদন্তের নির্দেশ

নিজস্ব প্রতিবেদক: যশোরে পুলিশের হাতে...

বিস্তারিত

0 মন্তব্য

আপনার মতামত প্রকাশ করুন

মন্তব্য প্রকাশ করুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না. প্রয়োজনীয় ক্ষেত্রগুলি চিহ্নিত করা আছে *