তিন বিভাগের তেল পাম্পে কর্মবিরতি স্থগিত

প্রকাশিত: ১১:০৪, ০২ ডিসেম্বর ২০১৯

আপডেট: ০৭:৩৭, ০২ ডিসেম্বর ২০১৯

ডেস্ক প্রতিবেদন: দেশের ২৬ জেলায় চলা ধর্মঘট স্থগিত করেছে বাংলাদেশ পেট্রোল পাম্প ও ট্যাংক লরি মালিক শ্রমিক ঐক্য পরিষদ। সরকারের পক্ষ থেকে দাবি পূরণের আশ্বাস পাওয়ায় আজ (সোমবার) দুপুরে  কর্মবিরতি ১৫ ডিসেম্বর পর্যন্ত স্থগিতের ঘোষণা দেন পরিষদের নেতারা।

আজ (সোমবার) বাংলাদেশ পেট্রোলিয়াম করপোরেশনের (বিপিসি) সঙ্গে পেট্রোল পাম্প মালিকদের বৈঠকে এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।   

ধর্মঘট ১৫ তারিখ পর্যন্ত স্থগিত করা হয়েছে। তাদের ১৫টি দাবির ২টি সরাসরি জ্বালানি বিভাগের যার সমাধানে আগামীকাল বৈঠক হবে। বাকি দাবি গুলো আন্ত মন্ত্রনালয়ের ফলে আন্ত মন্ত্রনালয় বৈঠক অনুষ্ঠিত হওয়া পর্যন্ত ধর্মঘট স্থগিত করা হয়েছে। ধর্মঘট চলাকালীন জনগণের কষ্ট হওয়ায় ক্ষমা প্রার্থণা করেছেন ব্যবসায়ীরা।

এর আগে আজ টানা দ্বিতীয় দিনের মতো তেল সরবরাহ বন্ধ থাকায় বেশিরভাগ গণপরিবহন চলাচল বন্ধ  হয়ে যায়। এতে বিপাকে পড়েন যাত্রীরা। 

ধর্মঘটের কারণে সিরাজগঞ্জের বাঘাবাড়ি নৌবন্দর অয়েল ডিপো থেকে উত্তরবঙ্গের ১৬ জেলাসহ টাঙ্গাইল জেলায় জ্বালানী তেল পরিবহন ও সরবরাহ বন্ধ ছিলো। এখন থেকে তেল সরবরাহ শুরু হয়েছে। 

গতকাল রোববার সকাল থেকেই রাজশাহীর কোনো পেট্রোল পাম্প থেকে জ্বালানি তেল বিক্রি করা বন্ধ করে দেয়া হয়। 

এছাড়া যশোর, লালমনিরহাট, মাগুরা, রাজশাহী, বগুড়া, ঝিনাইদহসহ দেশের ২৬টি জেলায় এই ধর্মঘট চলছিলো।

১৫ দফা দাবি গুলো হচ্ছে- জ্বালানি তেল বিক্রিতে কমপক্ষে সাড়ে ৭ শতাংশ কমিশন দেওয়া, জ্বালানি তেল ব্যবসায়ীরা কমিশন এজেন্ট নাকি উৎপাদনকারী প্রতিষ্ঠান- বিষয়টি সুনির্দিষ্ট করা, প্রিমিয়াম পরিশোধ সাপেক্ষে ট্যাংকলরি শ্রমিকদের জন্য ৫ লাখ টাকার দুর্ঘটনা বীমা, ট্যাংকলরির ভাড়া বৃদ্ধি, পেট্রোল পাম্পের জন্য কলকারখানা ও প্রতিষ্ঠান অধিদপ্তরের লাইসেন্স গ্রহণের নিয়ম বাতিল, পেট্রোল পাম্পের জন্য পরিবেশ অধিদপ্তরের লাইসেন্স নেওয়ার নিয়ম বাতিল, পেট্রোল পাম্পে অতিরিক্ত পাবলিক টয়লেট করা, জেনারেল স্টোর ও ক্লিনার নিয়োগের বিধান বাতিল করা, সড়ক ও জনপথ বিভাগ কর্তৃক পেট্রোল পাম্পের প্রবেশ দ্বারের ভূমির জন্য ইজারা নেওয়ার নিয়ম বাতিল, ট্রেড লাইসেন্স ও বিস্ফোরক লাইসেন্স ছাড়া অন্য দপ্তর বা প্রতিষ্ঠানের লাইসেন্স নেওয়ার নিয়ম বাতিল, আন্ডারগ্রাউন্ড ট্যাংক ৫ বছর অন্তর বাধ্যতামূলকভাবে ক্যালিব্রেশনের নিয়ম বাতিল, ট্যাংকলরি চলাচলে পুলিশি হয়রানি বন্ধ করা, সুনির্দিষ্ট দপ্তর ছাড়া ডিলার বা এজেন্টদের অযথা হয়রানি বন্ধ করা, নতুন কোনো পেট্রোল পাম্প নির্মাণের ক্ষেত্রে সংশ্লিষ্ট বিভাগীয় জ্বালানী তেল মালিক সমিতির ছাড়পত্রের বিধান চালু করা, পেট্রোল পাম্পের পাশে যে কোনো স্থাপনা নির্মাণের আগে জেলা প্রশাসকের অনাপত্তিপত্র গ্রহণ বাধ্যতামূলক করা এবং বিভিন্ন জেলায় ট্যাংকলরি থেকে চাঁদা গ্রহণ বন্ধ করা।

এই বিভাগের আরো খবর

সারাদেশে নৌ ধর্মঘট

নিজস্ব প্রতিবেদক : গেজেট অনুযায়ী বেতন...

বিস্তারিত
উত্তরাঞ্চলে ট্রেন চলাচল স্বাভাবিক

সিরাজগঞ্জ প্রতিনিধি: সিরাজগঞ্জের...

বিস্তারিত
পণ্যবাহী নৌযান শ্রমিকদের ধর্মঘট প্রত্যাহার

নিজস্ব প্রতিবেদক : চাকরি স্থায়ীকরণ,...

বিস্তারিত
নৌযান শ্রমিকদের কর্মবিরতি, লঞ্চ চলাচল বন্ধ

অনলাইন ডেস্ক: সড়ক পরিবহন আইন কার্যকর...

বিস্তারিত

0 মন্তব্য

আপনার মতামত প্রকাশ করুন

মন্তব্য প্রকাশ করুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না. প্রয়োজনীয় ক্ষেত্রগুলি চিহ্নিত করা আছে *