ইরানের রাডার ব্যবস্থা আসলে কতোটা নির্ভূল?

প্রকাশিত: ০৬:১৬, ১১ জানুয়ারি ২০২০

আপডেট: ০৬:১৮, ১১ জানুয়ারি ২০২০

ফারহীন ইসলাম টুম্পা: যুক্তরাষ্ট্র-ইরান দুই দেশের মধ্যে দ্বন্দ্ব পুরোনো হলেও নতুন করে উত্তেজনা দেখা দিয়েছে মার্কিন ড্রোন হামলায় ইরানের শীর্ষ জেনারেল কাসেম সুলাইমানিকে হত্যার ঘটনায়। এরপরই আমেরিকার ওপর কঠোর প্রতিশোধ নেয়ার ঘোষণা দেয় তেহরান। এমন পরিস্থিতিতে প্রতিশোধ হিসেবে বুধবার ইরাকে দুটি মার্কিন ঘাঁটিতে হামলা চালায় ইরান। খোমেনি আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর থেকে ওড়ার কিছুক্ষণ পরই বিধ্বস্ত হয় ইউক্রেনের বোয়িং সেভেন থ্রি সেভেন উড়োজাহাজাটি। এতে নিহত হন ১৭৬ জন আরোহীর সবাই। নিহতদের মধ্যে ৮২ জনই ইরানি।

তবে ওই ক্ষেপণাস্ত্র হামলার সাথে ইউক্রেনেরে বিমান বিধ্বস্ত হওয়ার ঘটনার সম্পর্ক নেই বলে শুরু থেকেই দাবি করে আসছিলো ইরান। অপরদিকে মার্কিন গোয়েন্দা বিভাগ দাবি করে, রাশিয়ার তৈরি দুটি এসএ-১৫ ক্ষেপণাস্ত্রের আঘাতে ইউক্রেনের উড়োজাহাজ ভূপাতিত করেছে ইরান। তাদের দাবি, বিধ্বস্ত হওয়ার আগ মুহূর্তে ইরানি রাডারকে উড়োজাহাজটির গতিবিধি লক্ষ্য করতে দেখেছিলো মার্কিন গোয়েন্দারা। এমনকি কানাডার প্রধানমন্ত্রী জাস্টিন ট্রুডোও বলেন, ইরানের ক্ষেপণাস্ত্র হামলায় উড়োজাহাজ দুর্ঘটনা হয়েছে সেই প্রমাণ কানাডার কাছেও আছে।

এমন পরিস্থিতির মধ্যেই শনিবার (১১ জানুয়ারি) সকালে ইরানের রাষ্ট্রীয় টেলিভিশনে দেয়া সামরিক বাহিনীর এক বিবৃতিতে জানানো হয়, ভুল করে বোয়িং সেভেন থ্রি সেভেন উড়োজাহাজটি লক্ষ্য করে ক্ষেপণাস্ত্র ছুড়েছে ইরানের সামরিক বাহিনী।

বিবৃতিতে আরো বলা হয়, বুধবার মধ্যরাতের পরপরই ইরাকে মার্কিন বাহিনীর ঘাঁটি আইন আল-আসাদে ক্ষেপণাস্ত্র নিক্ষেপ করার পর ইরানের আকাশসীমার আশপাশে মার্কিন জঙ্গিবিমানের আনাগোনা হঠাৎ করে বেড়ে যায়। সময় ইরানের আকাশ প্রতিরক্ষা ব্যবস্থার রাডারগুলোতে অসংখ্য শত্রু বিমান ধরা পড়ে। অবস্থায় ইরানের সৈন্যরা অত্যন্ত স্পর্শকাতরতার সঙ্গে পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণ করতে থাকেন। এর মধ্যেই ইউক্রেনের বিমানটি ইমাম খোমেনী আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর থেকে আকাশে উড্ডয়ন করে এবং টার্ন নেয়ার সময় ইসলামি বিপ্লবী গার্ড বাহিনী বা আইআরজিসি একটি সামরিক স্থাপনার আকাশে চলে আসে।

সময় রাডারে বিমানটিকে শত্রুর জঙ্গিবিমান বলে প্রতীয়মান হয় এবং মানবীয় ত্রুটির কারণে সম্পূর্ণ অনিচ্ছাকৃতভাবে বিমানটিতে গুলি চালানো হয়। ঘটনায় গভীর দুঃখ শোক প্রকাশের পাশাপাশি সঠিক বিচার জবাবদিহিতা নিশ্চিতের অঙ্গীকার করে ইরান।

মধ্যপ্রাচ্যে ইরান সামরিক শক্তিতে অনেক এগিয়ে গেছে এমনটা মনে করা হলেও এমন ভুলের পর ইরানের সামরিক সক্ষমতা নিয়ে প্রশ্ন উঠেছে। প্রশ্ন ওঠে বাস্তবে সোলাইমানি হত্যার প্রতিশোধে কতটা সক্ষম ইরান? সমর বিশেষজ্ঞরা বলছেন, সামরিক শক্তিতে ইরানের অবস্থান ১৪তম। ধারণা করা হয়, সামরিক শক্তিতে শক্তিধর যুক্তরাষ্ট্রকে একহাত নেয়ার ক্ষমতা আছে ইরানের। আর্ন্তজাতিক গণমাধ্যমের খবর বলছে, বর্তমানে ইরান ক্ষেপনাস্ত্র, স্থল-যুদ্ধের সাজ-সরঞ্জাম, ইলেকট্রনিক অস্ত্র এবং নৌ বিমান বাহিনীর প্রতিরক্ষা-সামগ্রী নির্মাণে ব্যাপক অগ্রগতি অর্জন করেছে।

বিশেষ করে বর্তমান ইরান ক্ষেপনাস্ত্র ক্ষেত্রে তাক-লাগানো অগ্রগতি সাধন করেছে। বেশ কয়েকবার পরাক্রমশালী যুক্তরাষ্ট্রের সেনাঘাঁটিতে হামলার মাধ্যমে নিজেদের সেই শক্তির প্রমাণ দিয়েছে ইরান। যুক্তরাষ্ট্রের প্রতিরক্ষা দপ্তর পেন্টাগনের দাবি, গত কয়েক বছর ধরেই আন্তঃমহাদেশীয় ক্ষেপণাস্ত্র তৈরি করতে পরীক্ষা-নিরীক্ষা করছে ইরান। ইরানের কয়েকটি ক্ষেপণাস্ত্রের মধ্যে রয়েছে ৩০০ কিলোমিটার দূরের লক্ষ্যবস্তুতে হামলা চালাতে সক্ষম সাহাব-, ৫০০ মাইল দূরের লক্ষ্যে হামলা চালাতে সক্ষম সাহাব-, ৭৫০ মাইল যাওয়ার ক্ষমতাসম্পন্ন কিয়াম-, ৩০০ থেকে ৫০০ কিলোমিটার যেতে সক্ষম ফাতেহ-১১০। ছাড়া রয়েছে সাহাব-৩। যেটি পাড়ি দিতে পারে হাজার কিলোমিটার। এই দূরত্বে রয়েছে রাশিয়া, চীন, মিসর ভারতের মতো দেশ। তবে সামরিক সক্ষমতা অর্জন করলেও এসব ব্যবহারে পারদর্শীতা নিয়ে প্রশ্ন থেকেই যায়।

এই বিভাগের আরো খবর

অক্টোবরেই অক্সফোর্ডের করোনার ভ্যাকসিন!

অনলাইন ডেস্ক: করোনাভাইরাসের প্রথম...

বিস্তারিত
দুইদিনে সাগর পথে ইতালি পৌঁছেছে ৩৬২ বাংলাদেশি

অনলাইন ডেস্ক: অবৈধপথে সাগর পাড়ি দিয়ে...

বিস্তারিত
করোনার উৎস খুঁজতে ফের চীনে বিশেষজ্ঞ দল

আন্তর্জাতিক ডেস্ক:  সারা বিশ্বব্যাপী...

বিস্তারিত
নেপালে বন্যা ও ভূমিধসে ২৩ জনের মৃত্যু

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: নেপালে ভূমিধসে ও...

বিস্তারিত
সিঙ্গাপুরের নির্বাচনে ক্ষমতাসীন দলের জয়

অনলাইন ডেস্ক: সিঙ্গাপুরে অনুষ্ঠিত...

বিস্তারিত
নেপালে ভারতের সব চ্যানেল বন্ধ

অনলাইন ডেস্ক: দূরদর্শন ছাড়া ভারতের সব...

বিস্তারিত
সংক্রমণ বাড়ায় আলজেরিয়ায় ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞা

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: উত্তর আফ্রিকার...

বিস্তারিত

0 মন্তব্য

আপনার মতামত প্রকাশ করুন

মন্তব্য প্রকাশ করুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না. প্রয়োজনীয় ক্ষেত্রগুলি চিহ্নিত করা আছে *