চট্টগ্রামে গণহত্যার রায় রাজনৈতিক হত্যাকাণ্ড বন্ধে ভূমিকা রাখবে

প্রকাশিত: ০৮:৫০, ২২ জানুয়ারি ২০২০

আপডেট: ১২:০২, ২২ জানুয়ারি ২০২০

নিজস্ব প্রতিবেদক: ৩২ বছর পর চট্টগ্রামে শেখ হাসিনার গাড়িবহরে হামলার বিচার হওয়াকে দেশে আইনের শাসন প্রতিষ্ঠার ক্ষেত্রে ইতিবাচক হিসেবে দেখছেন চট্টগ্রামের বিশিষ্টজনেরা। আদালত তার রায়ে ওই হামলা ও ২৪ জনের হত্যাকে গণহত্যা হিসেবে উল্লেখ করে। আইনজীবী ও বিশিষ্টজনেরা বলছেন, রাষ্টযন্ত্রকে ব্যবহার করে রাজনৈতিক হত্যাকান্ড ও গণবিরোধী কর্মকান্ড বন্ধে ভূমিকা রাখবে এই রায়।

১৯৮৮ সালের ২৪ জানুয়ারি চট্টগ্রামের শেখ হাসিনার গাড়িবহর ও আওয়ামী লীগের মিছিলে পুলিশের হামলা ও গুলিতে ২৪ জন নিহত হওয়ার ঘটনার বিচার নানান ভাবে বাধাগ্রস্ত করা হয়েছিল। ঘটনার ৪ বছর পর সাহস করে মামলা করেন প্রয়াত আইনজীবি শহিদুল হুদা। বিএনপি জোট সরকারের আমলে মামলাটি চলেছিল ঢিমেতালে। এক পর্যায়ে হত্যাকান্ডের নির্দেশদাতা সিএমপির তৎকালীন কমিশনার মির্জা রকিবুল হুদা আমেরিকায় পালিয়ে যান।

ঘটনার ৩২ বছর পর দেয়া এই মামলার রায়ে আদালত ওই হত্যাকান্ডকে ইতিহাসের নিষ্টষ্ঠুর নৃশংস গণহত্যা হিসাবে চিহ্নিত করে। বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনাকে হত্যার সরাসরি চেষ্টা হিসাবেও মন্তব্য করা হয় আদালতের পর্যবেক্ষণে।

চট্টগ্রম স্পেশাল আদালতের পিপি  সানোয়ার হোসেন লাভলু বলেন, আলামত নষ্ট করতে হিন্দু মুসলিমের মরদেহ পোড়ানোও ছিল অমানবিক।

আদালতে চট্টগ্রাম প্রিমিয়ার বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসি সমাজ বিজ্ঞানী ডক্টর অনুপম সেনসহ ৫৩ জনের সাক্ষ্যে উঠে এসেছে শেখ হাসিনাকে হত্যা করতে ব্যর্থ হয়ে গণহত্যার লোকহর্ষক বর্ণনা।

এ মামলার রায় রাষ্ট্রযন্ত্র ও প্রশাসনের জন্য বড় বার্তা বলে মনে করেন বিশিষ্টজনেরা।

চট্টগ্রাম টি আইবি ও সনাক সভাপতি অখতার কবির চৌধুরী বলেন,দেরিতে হলেও চট্টগ্রাম গণহত্যা মামলার বিচার হওয়ায় সাধারণ মানুষের মাঝেও স্বস্তি এসেছে।  

 

 

এই বিভাগের আরো খবর

সিঙ্গাপুরে সুস্থ হয়েছেন আরো এক বাংলাদেশি

নিজস্ব প্রতিবেদক: সিঙ্গাপুরে করোনা...

বিস্তারিত
“বাংলার আপন সৌধ”

নিজস্ব প্রতিবেদক : দেশের প্রান্তিক...

বিস্তারিত
উৎপাদন বাড়াতেই বিদ্যুতের মূল্যবৃদ্ধি : কাদের

নিজস্ব প্রতিবেদক : উৎপাদন বাড়িয়ে সবার...

বিস্তারিত
বিপন্ন যশোরের যেসব নদ-নদী

যশোর সংবাদদাতা: নানা কারণে বিপন্ন...

বিস্তারিত
পাথর ছাড়া হিলি বন্দরে কমেছে অন্য পণ্য আমদানি

হিলি সংবাদদাতা: হিলি স্থলবন্দর দিয়ে...

বিস্তারিত

0 মন্তব্য

আপনার মতামত প্রকাশ করুন

মন্তব্য প্রকাশ করুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না. প্রয়োজনীয় ক্ষেত্রগুলি চিহ্নিত করা আছে *