বাংলা ভাষা দাবি দিবস করতে কাজ করেন বঙ্গবন্ধু

প্রকাশিত: ১০:১৭, ০২ ফেব্রুয়ারি ২০২০

আপডেট: ১০:৫৮, ০২ ফেব্রুয়ারি ২০২০

নিজস্ব প্রতিবেদক : একাত্তরে অর্জিত স্বাধীনতার জন্য আন্দোলন-সংগ্রামের গোড়াপত্তন হয়েছিল বায়ান্নর ভাষা আন্দোলনে। স্বাধীনতা সংগ্রাম ও সশস্ত্র মুক্তিযুদ্ধের নেতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান সেই ভাষা আন্দোলনে ছিলেন একজন সক্রিয় অংশগ্রহণকারী তরুণ ছাত্র নেতা। এ বছর বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকী। তাই এবার ভাষার মাস ফেব্র“য়ারিতে ভাষা আন্দোলনে বঙ্গবন্ধু মুজিবের ভূমিকা ও অংশগ্রহনের ঐতিহাসিক অধ্যায় নিয়ে ধারাবাহিক প্রতিবেদনের আয়োজন করেছে বৈশাখী অনলাইন।

১৯৪৮ এর ৮ই মার্চ পাকিস্তানের করাচির সংবিধান সভায় বাংলা পাশ কাটিয়ে উর্দুকে রাষ্ট্রভাষা করার দাবির প্রতিবাদে পূর্ব পাকিস্তান মুসলিম ছাত্রলীগ ও তমুদ্দন মজলিস যুক্তভাবে সর্বদলীয় সভা ডাকে। গঠন করে রাষ্ট্রভাষা সংগ্রাম পরিষদ। সভায় ১১ই মার্চকে “বাংলা ভাষা দাবি” দিবস হিসেবে পালনের সিদ্ধান্ত নেয়া হয়। 

ততদিনে বর্তমান বাংলাদেশ ভূখন্ডের জেলা ও মহকুমায় গড়ে উঠে পূর্ব পাকিস্তান মুসলিম ছাত্রলীগের বেশ কিছু শাখা। তরুণ ছাত্রনেতা শেখ মুজিব বের হন জেলায় জেলায় “বাংলা ভাষা দাবি” দিবসের পক্ষে জনমত গড়তে। নিজের ডায়রিতে মুজিব লিখেছিলেন, “দৌলতপুরে মুসলিম লীগ ছাত্ররা আমার সভায় গোলমাল করার চেষ্টা করলে খুব মারপিট হয়, কয়েকজন জখমও হয়। এরা সভা ভাঙ্গতে পারে নাই, আমি শেষ পর্যন্ত বক্তৃতা করলাম। এসময় জনাব আব্দুস সবুর খান আমাদের সমর্থন করেছিলেন।”

ফরিদপুর, যশোর হয়ে দৌলতপুর, খুলনা ও বরিশালেও তখন ভাষা সংগ্রামের ছাত্রসভা করেন শেখ মুজিব।
 

এই বিভাগের আরো খবর

0 মন্তব্য

আপনার মতামত প্রকাশ করুন

মন্তব্য প্রকাশ করুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না. প্রয়োজনীয় ক্ষেত্রগুলি চিহ্নিত করা আছে *