কোচিং বাণিজ্য : কোথাও গোপনে কোথাও প্রকাশ্যে

প্রকাশিত: ১০:১৮, ০৮ ফেব্রুয়ারি ২০২০

আপডেট: ০৪:০৪, ০৮ ফেব্রুয়ারি ২০২০

নিজস্ব প্রতিবেদক: এসএসসি পরীক্ষার সময় কোচিং প্রতিষ্ঠানগুলো বন্ধ রাখার সরকারি সিদ্ধান্ত মানছে না অনেকেই। গোপনে বা প্রকাশ্যে চালিয়ে যাচ্ছেন কোচিং বাণিজ্য। কোচিং প্রতিষ্ঠানের সাথে জড়িতরা জানান, শিক্ষার্থীদের কথা বিবেচনা করেই কোচিং চালু রাখা হয়েছে। আইন ভঙ্গকারীদের বিরুদ্ধে শাস্তিমুলক ব্যবস্থা নেয়া হবে বলে জানিয়েছেন, ঢাকা শিক্ষা বোর্ডের চেয়ারম্যান।

তেসরা ফেব্রুয়ারি থেকে শুরু হয়েছে এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষা। প্রশ্নপত্র ফাঁসসহ পরীক্ষা কেন্দ্রিক নানা অনিয়ম ও গুজব রোধে  ২৫ জানুয়ারী থেকে মার্চের এক তারিখ পর্যন্ত সব কোচিং সেন্টার বন্ধ রাখার নির্দেশনা আছে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের।

তবে রাজধানীর বিভিন্ন এলাকা ঘুরে দেখা গেছে অনেক কোচিং সেন্টার খোলা রেখেছেন মালিকরা। রাজধানীর টিকাটুলি এলাকার এই কোচিং সেন্টারে দেখা গেলো ষষ্ঠ থেকে দশম শ্রেণীর শিক্ষার্থীদের পড়ানোর এই দৃশ্য।  

একই চিত্র আজিমপুরসহ এর আশপাশের এলাকায় গড়ে ওঠা অন্যান্য কোচিং সেন্টারগুলোতেও। বাইরে থেকে বোঝা না গেলেও  ভেতরে চলছে ক্লাস। 

ফার্মগেইট এলাকায় সন্ধ্যা নামার পরই শিক্ষার্থীদের আনাগোনা দেখা যায় প্রায় সব কোচিং সেন্টারে। বিদ্যালয় কিংবা কলেজের শিক্ষকরা ক্লাস নিচ্ছেন এসব প্রতিষ্ঠানে। 

সরকারি সিদ্ধান্ত না মানা কোচিং সেন্টারের মালিকদের বিরুদ্ধে বিরুদ্ধে অইনানুগ ব্যবস্থা নেয়ার কথা জানালেন, ঢাকা শিক্ষা বোর্ডের চেয়ারম্যান। নির্দেশ অমান্যকারীরা নজরদারিতে থাকেবন বলেও জানান তিনি।

এই বিভাগের আরো খবর

এইচএসসি ও সমমানের পরীক্ষা স্থগিত

নিজস্ব প্রতিবেদক: করোনা ভাইরাসের...

বিস্তারিত
পুরো মেয়াদজুড়ে প্রায় অকার্যকর ডাকসু

ইউসুফ রানা: দীর্ঘ ২৮ বছর পর নির্বাচিত...

বিস্তারিত

0 মন্তব্য

আপনার মতামত প্রকাশ করুন

মন্তব্য প্রকাশ করুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না. প্রয়োজনীয় ক্ষেত্রগুলি চিহ্নিত করা আছে *