চশমা যখন নিত্যসঙ্গী, মানতে হবে কিছু বিষয়

প্রকাশিত: ০৩:৫১, ০৮ ফেব্রুয়ারি ২০২০

আপডেট: ০৩:৫১, ০৮ ফেব্রুয়ারি ২০২০

অনলাইন ডেস্ক: ছোটবেলার খেলার সঙ্গী চশমা একটা সময় অনেকের জীবনের নিত্য সঙ্গী হয়ে উঠে। তার পর এই সঙ্গী ছাড়া চলা যায় না, নিয়মিত ব্যবহার করতে হয়, রাখতে হয় হাতের কাছে। তবে অনেকেই আবার চশমার পরিবর্তে কন্টাক্ট লেন্সে ব্যবহার করে থাকেন। চশমার থেকে লেন্সের জনপ্রিয়তাও  অনেক বেশি। কিন্তু লেন্সের কিছূ সীমাবদ্ধতা থাকায় লেন্স সবসময় ব্যবহার করা যায় না। আবার সবাই এটি ব্যবহারও করতে পারেন না। তাই চশমা যাদের দাওয়াই তাদের চশমার উপর ভরসা করতেই হয়।

যারা দীর্ঘ দিন ধরে নিয়মিত চশমা ব্যবহার করছেন তাদের উপর চশমার কিছু বাহ্যিক প্রভাব পড়তে পারে। তাই কিছু নিয়ম মেনে চশমা ব্যবহার করা ভাল। এতে চোখ ভাল থাকে, টেকসই হবে আপনার চশমা এবং আপনার বাহ্যিক ত্বকে চশমার প্রভাব পড়ে না।

অনেককেই নিজের মতো করে চশমার পাওয়ার ঠিক করে নিতে দেখা যায়। এতে আপনার চোখের মারাত্বক ক্ষতি হতে পারে। তাই চশমা ব্যবহার করা আগে অবশ্যই চক্ষু বিশেষজ্ঞের কাছে চোখ পরিক্ষা করিয়ে আপনার জন্য প্রয়োজনীয় পাওয়ারের লেন্স ঠিখ করে নিবেন।

সুন্দর পৃথিবীটা স্বচ্ছ ভাবে দেখতে আপনি যে চশমাটি ব্যবহার করছেন সেটি অবশ্যই যতেœ রাখতে হবে। তাই চশমা সব সময় একটি খাপের মধ্যে রাখার চেষ্টা করুন। এতে চশমায় অযাচিত দাড় পড়বে না। কোথায় চশমার বাক্স রেখেছেন তা খুঁজে বের করতে অসুবিধে হলে একটি ফ্লুরোসেন্ট মার্কার বা টেপের টুকরো লাগিয়ে রাখতে পারেন চশমার বাক্সের উপর। অন্ধকারের মধ্যেও এগুলো জ্বলজ্বল কর। তাই সহজে চোখে পড়ে।

চশমা কেনার আগে একটু দেখে শুনে কিনুন। নিত্য দিনের ব্যবহার্য চশমাও কিন্তু লুকেরই অংশ। তাই ঠিক কেমন লাগছে তা নিশ্চিত হয়েই চশমা কিনুন। প্রতিদিন ব্যবহারের চশমা যেন শক্তপোক্ত হয়।

প্রতিদিন অন্তত একবার চশমা পরিষ্কার করুন। এটি চোখের যত্নের জন্যও খুব প্রয়োজনীয়। হালকা গরম জল ও নরম কোনও সাবান দিয়ে চশমা ধুয়ে নিন। এক পর চশমা মোছার জন্য যে নরম কাপড়টি দোকান থেকে দেওয়া হয়েছে, তা দিয়ে লেন্সের অংশ মুছে নিন।

দীর্ঘদিন একই নকশার চশমা ব্যবহার করায় চশমাটি ত্বকের যেসব স্থানে স্পর্শ করে থাকে। সেসব স্থানে কিছু দাগ পড়তে পারে। সাধারণত নাকের দুই পাশে, কানের পেছনে এবং চোখের চারপাশের যেসব স্থানে ফ্রেমটা স্পর্শ করে থাকে সেসব জায়গায় এ রকম দাগ পড়তে দেখা যায়। তাই কিছু দিন পর পর ভিন্ন নকশার ফ্রেম ব্যবহার করুন। এতে সমস্যা কিছুটা কমতে পারে।

বাড়তি কয়েক সেট চশমা রাখতে পারেন। অফিসের ব্যাগেও অবশ্যই স্পেয়ার চশমা রাখবেন। তাহলে কোন কারণে চশমা ভেঙে গেলে বা হারিয়ে গেলে কাজে আসবে তা।

স্টাইলের কারণে অনেকেই চশমা খুলে মাথার উপর রাখেন। এমনটা কয়েক বার করলেই চশমা আলগা হতে শুরু করবে, চুলে জমে থাকা তেল, শ্যাম্পু চশমার কাচের গায়ে জমে একসময় লেন্স ঝাপসা করে দিবে।
খালি চোখের মতো চশমা পরে কম আলোয় বা গতিশীল গাড়ির মধ্যে বই বা ই-বুক পড়া থেকে বিরত থাকতে হবে।
সানগ্লাসের ক্ষেত্রেও অবশ্যই পাওয়ার যুক্ত গ্লাস নিন। অনেকেই দৃষ্টিশক্তির খুব অসুবিধা না থাকলে সানগ্লাসে আলাদা করে পাওয়ার করান না। এতে চোখের ক্ষতি হওয়ার সম্ভাবনা থাকে।
 

এই বিভাগের আরো খবর

করোনায় গৃহবন্দী, ঘরেই বানান ‘ফালুদা’

অনলাইন ডেস্ক: বেশ গরম পড়েছে।এর মধ্যে...

বিস্তারিত
স্ত্রীর অভিমান ভাঙাবেন যে ভাবে

অনলাইন ডেস্ক: দাম্পত্য জীবনের শুরুতে...

বিস্তারিত
ঘরে বসেই তৈরি করুন মজাদার ফ্রুট পুডিং

অনলাইন ডেস্ক: হালকা নাস্তার জন্য...

বিস্তারিত
সারাদিন সতেজ থাকতে গোসলে যা করবেন

অনলাইন ডেস্ক: শীত যেতে না যেতেই...

বিস্তারিত
যেভাবে বানাবেন মজাদার ‘ফিশ কেক’

অনলাইন ডেস্ক: ফিশ কেক খুবই সুস্বাদু...

বিস্তারিত
তারুণ্য ধরে রাখে ডাবের পানি

অনলাইন ডেস্ক: ডাবের পানি আমাদের...

বিস্তারিত
ভেজা চুলে ঘুমালে যে সমস্যা হয় 

অনলাইন ডেস্ক: ছোটখাটো কিছু ভুলের...

বিস্তারিত
চিকেন চাপলি কাবাব বানাবেন কিভাবে

অনলাইন ডেস্ক: সেই মুঘল আমল থেকেই...

বিস্তারিত

0 মন্তব্য

আপনার মতামত প্রকাশ করুন

মন্তব্য প্রকাশ করুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না. প্রয়োজনীয় ক্ষেত্রগুলি চিহ্নিত করা আছে *