১৯৪৯ সালে গ্রেপ্তার হয়েছিলেন শেখ মুজিব

প্রকাশিত: ১০:৪৮, ১৩ ফেব্রুয়ারি ২০২০

আপডেট: ১১:১৮, ১৩ ফেব্রুয়ারি ২০২০

কাজী বাপ্পা: একাত্তরে অর্জিত স্বাধীনতার জন্য আন্দোলন-সংগ্রামের গোড়াপত্তন হয়েছিল বায়ান্নর ভাষা আন্দোলনে। স্বাধীনতা সংগ্রাম ও সশস্ত্র মুক্তিযুদ্ধের নেতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান সেই ভাষা আন্দোলনে ছিলেন একজন সক্রিয় অংশগ্রহণকারী তরুণ ছাত্র নেতা। এ বছর বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকী। তাই এবার ভাষার মাস ফেব্র“য়ারিতে ভাষা আন্দোলনে বঙ্গবন্ধু মুজিবের ভূমিকা ও অংশগ্রহনের ঐতিহাসিক অধ্যায় নিয়ে ধারাবাহিক প্রতিবেদনের আজ তেরোতম পর্ব।
১৯৪৯ সালে বাংলাকে রাষ্ট্রভাষা করার আন্দোলনের মধ্যে দিয়ে পাকিস্তানের শাসকদের বিরুদ্ধে যে বিরোধী শক্তি মাথা চাড়া দিয়ে উঠছিলো, তা মেনে নিতে পারেনি পাকিস্তান সরকারের প্রশাসন। ফলে, দ্রব্যমূল্যের দাম বাড়ানো থেকে শুরু করে কর্মকর্তা-কর্মচারীদের বিনা কারনে চাকরিচ্যুত করার মত ঘটনার সূত্রপাত ঘটিয়েছিল কেন্দ্রীয় সরকার।
এর ধারাবাহিকতায় ঊনপঞ্চাশের মার্চে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অগণিত কর্মচারিকে চাকরিচ্যুত করা হয়। তাদের দাবি আদায়ের আন্দোলনের নেতৃত্ব দেন তরুন ছাত্র নেতা শেখ মুজিবুর রহমান। ফলে শেখ মুজিবসহ আন্দোলনে অংশ নেয়া শিক্ষার্থীদের বহিস্কার করার সিদ্ধান্ত নেয় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন।
সে বছর ১৯শে মার্চ বহিস্কারাদেশ প্রত্যাহারের দাবিতে আন্দোলন করতে গিয়ে পুলিশের হাতে গ্রেপ্তার হন শেখ মুজিব। অবশ্য, ততদিনে জনগণের মনে ক্ষোভ দানা বাধে, আন্দোলন জমতে থাকে সমাজের প্রতিটি ক্ষেত্রে।

এই বিভাগের আরো খবর

0 মন্তব্য

আপনার মতামত প্রকাশ করুন

মন্তব্য প্রকাশ করুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না. প্রয়োজনীয় ক্ষেত্রগুলি চিহ্নিত করা আছে *