১০ মার্চ স্বাধীন দেশের পতাকা উত্তোলনের নির্দেশ দেন বঙ্গবন্ধু

প্রকাশিত: ০৯:২২, ১০ মার্চ ২০২০

আপডেট: ১১:০৬, ১০ মার্চ ২০২০

বিউটি সমাদ্দার: স্বাধীনতার সংগ্রাম, একাত্তরের সশস্ত্র মুক্তিযুদ্ধ ও বাংলাদেশের অভ্যুদয়ের সাথে অবিচ্ছেদ্য নাম বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান। নিজের বিরল ত্যাগ ও সৎ রাজনীতি দিয়ে হয়েছিলেন দেশের মানুষের স্বাধীনতা ও মুক্তির প্রতীক। এবছর স্বাধীনতার মাস মার্চ ফিরেছে বিশেষ উপলক্ষ্য নিয়ে। বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকী এই মাসে। তাই এবার, একাত্তরের এই মাসে জাতির জনক শেখ মুজিবের ঐতিহাসিক পদক্ষেপগুলো নিয়ে বৈশাখী সংবাদের ধারাবহিক বিশেষ আয়োজন ‘যাঁর নামে স্বাধীনতা’।

একাত্তরের মার্চে বাঙ্গালির স্বাধীনতা সংগ্রামের লড়াই বাংলাদেশর প্রতিটি স্তরে তীব্রতর হতে থাকে। ১০ই মার্চ সিভিল সার্ভিসের দ্বিতীয় শ্রেণির কর্মচারীরা বঙ্গবন্ধুর নির্দেশ মেনে চলার সিদ্ধান্ত নেন।

এদিন স্বাধীন বাংলাদেশ ছাত্র সংগ্রাম পরিষদের বিবৃতিতে ইপিআর-আইবি-সিআইডি ও পুলিশকে পাকিস্তানি প্রশাসনের সাথে যাবতীয় সম্পর্ক ছিন্নের আহ্বান জানানো হয়। পশ্চিম পাকিস্তান থেকে বাঙালিদের ফিরতে না দিলে বিমানবন্দরে চেকপোস্ট বসিয়ে অবাঙালিকে দেশত্যাগে বাধা প্রদানের হুমকিও দেয়া হয়।

১০ই মার্চ দৈনিক পূর্বদেশে প্রকাশিত এক বিবৃতিতে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বলেন, “মুক্তির লক্ষ্যে না পৌঁছা পর্যন্ত আমাদের সংগ্রাম নবতর উদ্দীপনা নিয়ে অব্যাহত থাকবে। বাংলাদেশের মুক্তির স্পৃহাকে স্তদ্ধ করা যাবে না।”

এদিন দেশের সব ভবন ও যানবাহনে কালো পতাকা এবং সরকারি-বেসরকারি প্রতিষ্ঠানে মানচিত্র খচিত স্বাধীন বাংলাদেশের পতাকা উত্তোলনের নির্দেশ দেন শেখ মুজিব।

এই বিভাগের আরো খবর

গুণীদের ভীষণ কদর করতেন বঙ্গবন্ধু: এম এ মালেক

বিউটি সমাদ্দার: সব ভেদাভেদ ভুলে দেশের...

বিস্তারিত

0 মন্তব্য

আপনার মতামত প্রকাশ করুন

মন্তব্য প্রকাশ করুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না. প্রয়োজনীয় ক্ষেত্রগুলি চিহ্নিত করা আছে *