ঈদ উৎসব: কালের পরিবর্তনের আলোকে আপডেট: ০৫:৩৯, ১৯ জুন ২০১৭

বিশেষ প্রতিবেদন: দেশের সবচেয়ে বড় উৎসব বছরের দুটি ঈদ। অল্প সময়ে সবচেয়ে বড় বাণিজ্যের উপলক্ষও। একমাস রোজার পর আসা ঈদুল ফিতরকে ঘিরে বাণিজ্য হয় সবচেয়ে বেশি।

এখন ঈদ উৎসবের যে ব্যাপ্তি, বৈচিত্র্য ও বহুমুখিতা সমাজের সর্বস্তরে দেখা যায়, সেটা ভারতবর্ষে ইসলাম প্রচারের শুরু থেকে ছিল না। মাত্র দেড়শ-দুশ বছর আগেও ঈদ ছিল সমাজের প্রভাবশালী ও বিত্তশালী মুসলমানদের উৎসব। 

দেশের সিংহভাগ মানুষ ইসলাম ধর্মের অনুসারী হওয়ায় ঈদ দেশে সবচেয়ে বড় উৎসবে পরিণত হয়েছে। বছর জুড়ে নানা উপলক্ষে যতগুলো উৎসব উদযাপন হয়, তার মধ্যে সবচেয়ে বড় দুটি ঈদ। গবেষক ও ইতিহাসবিদদের ভাষ্যমতে, ভারত উপমহাদেশে ইসলাম প্রচারে আসা সুফি-আওলিয়াদের মধ্যে প্রথম ঈদ পালনের তথ্য মেলে একাদশ শতাব্দীতে। 

তবে, ইসলাম ধর্মের অনুসারী বৃদ্ধির সাথে সাথে ঈদ পালন বা উদযাপনেও পরিবর্তনের ছোঁয়া লাগতে থাকে। ক্রমশই এক বর্ণাঢ্য উৎসব হয়ে ওঠে ঈদ।

মুঘল আমলে ১৬৪০ খ্রিস্টাব্দে ঢাকার ধানমণ্ডির ঈদগাহ্‌ মাঠটি ঈদ উৎসবের অগ্রযাত্রার একটি নিদর্শন হিসেবে আজও বর্তমান। তবে, ১৯ শতকের আগে এ উৎসব ছিল রাজা-নবাব কিংবা সমাজের বিত্তশালী মানুষের উৎসব। পরে তা সব শ্রেণী-পেশার মানুষের মধ্যে বিস্তৃত  হতে শুরু করে।

ইতিহাস গবেষক মুনতাসির মামুন বলেন, "ঈদের নামাজের ব্যাপারটা কীভাবে হবে, সেটাও আমি ১৮৯০ বা ১৮৮০ সালের এক বিবরণ থেকে পাচ্ছি, যেখানে দেখা যাচ্ছে, ঢাকার কাছে ঈদগাতে মানুষজন অপেক্ষা করছে যে, কেউ এসে ঈদের নামাজটা পড়িয়ে দেবেন কিনা, সে-জন্যে।"

সময়ের বিবর্তনের সাথে সাথে প্রজন্ম থেকে প্রজান্মান্তরে ঈদ উদযাপনে যে চিরায়ত দৃষ্টিভঙ্গী ও চর্চা, তারও পরিবর্তন ঘটে। পুরোনো  অনেক দৃষ্টিভঙ্গী বাতিল করে দিয়ে নতুন প্রজন্ম নতুন চর্চার প্রচলন ঘটায়। 

প্রবীণা ভাষাসৈনিক রওশন আরা বাচ্চু বলেন, "বাবারা ঈদের মার্কেটিং করতেন, সব জামাকাপড় তাঁরাই কিনে আনতেন। আমরা তো পড়াশোনা করতে গিয়েছি, কিন্তু এদিকে মনটা আমাদের পড়ে থাকতো বাড়ির ভেতরে কী হচ্ছে।"

কিন্তু তাঁর মেয়ে তানভীর ফারহানা বলেন, "ঈদ উপলক্ষে জামা অনেকগুলোই হয়ে যেতো, কারণ হয়তো আম্মা-আব্বা দিচ্ছেন একটা, আমি নিজে একটা নিচ্ছি, আবার বড়বোনরাও দিচ্ছেন।"

গবেষক মুনতাসির মামুনের মতে, ঈদ একটি ধর্মীয় উৎসব হলেও, তা উদযাপনে বহুমুখী কর্মকাণ্ড যুক্ত হওয়ায় এখানে অন্য ধর্মের মানুষের সম্পৃক্ততাও বেড়েছে। একদিন ঈদ হলেও, এর উদযাপনকে ঘিরে ব্যাপক কর্মকাণ্ড ও ব্যস্ততা তৈরি হয় একমাসেরও বেশি সময় ধরে।

তিনি বলেন, "ঈদ উৎসব পালনের ধরণটা পাল্টেছে-- ঈদের ছুটিতে বিদেশ ভ্রমণ করা, কেনাকাটা করা-- এগুলি কিন্তু পাকিস্তান আমলেও মধ্যবিত্তদের মধ্যে ছিলো না।"   

ঈদ উৎসবকে ঘিরে যে আর্থিক ও বাণিজ্যিক কর্মকাণ্ড কয়েক সপ্তাহ ধরে চলে, তার জন্য ব্যবসায়ীদের বাৎসরিক পরিকল্পনা ও লক্ষ্য স্থির করে নিতে হয়।   
 

 

Publisher : .