ঢাকা, মঙ্গলবার, ২৪ অক্টোবর ২০১৭, ৯ কার্তিক ১৪২৪, ৩ সফর ১৪৩৯

মরক্কোকে বাংলাদেশে বিনিয়োগের আহ্বান শেখ হাসিনার

প্রকাশিত: ০৫:৫৭ , ১৯ জুন ২০১৭ আপডেট: ০৫:৫৭ , ১৯ জুন ২০১৭

নিজস্ব প্রতিবেদক: প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা পারস্পরিক স্বার্থে বাংলাদেশের অর্থনৈতিক অঞ্চলগুলোতে মরক্কোর বিনিয়োগ আহ্বান করেছেন। শিল্পায়ন ও কর্মসংস্থানের জন্য সারা বাংলাদেশে ১০০টি অর্থনৈতিক অঞ্চল গড়ে তোলা হচ্ছে বলে উল্লেখ করে তিনি বলেন, মরক্কো এই অর্থনৈতিক অঞ্চলগুলোতে বিনিয়োগ করতে পারে, যার ফলে উভয় দেশই লাভবান হবে।

প্রধানমন্ত্রী আজ সোমবার দুপুরে জাতীয় সংসদ ভবন কার্যালয়ে বাংলাদেশে মরক্কোর নবনিযুক্ত রাষ্ট্রদূত মজিদ হালিম তাঁর সঙ্গে  সৌজন্য সাক্ষাত করতে গেলে এ আহ্বান জানান।

শেখ হাসিনা বলেন, "আমরা পারস্পরিক স্বার্থে আলোচনার মাধ্যমে সহযোগিতার খাতগুলো চিহ্নিত করতে পারি।"

কৃষিখাতে বাংলাদেশের সাফল্যের কথা উল্লেখ করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, বাংলাদেশ এ অভিজ্ঞতা মরক্কোর সঙ্গে বিনিময় করতে পারে। এ প্রসঙ্গে তিনি বলেন, বাংলাদেশের অর্থনীতি প্রধানত কৃষিনির্ভর এবং একসময় দেশের সব মানুষের জন্য খাদ্যের যোগান দেয়া খুবই কঠিন ছিলো। গবেষণার মাধ্যমে খাদ্য উৎপাদন বাড়িয়ে বর্তমানে ১৬ কোটি মানুষের খাদ্য নিরাপত্তা নিশ্চিত করা হয়েছে বলে উল্লেখ করে হাসিনা বলেন, দেশে এখন কোনো খাদ্য সংকট নেই।

শেখ হাসিনা বলেন, তাঁর লক্ষ্য হচ্ছে বাংলাদেশকে উন্নত ও সমৃদ্ধ দেশে পরিণত করা।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, বঙ্গবন্ধুর ক্ষুধা ও দারিদ্র্যমুক্ত সোনার বাংলা গড়ার স্বপ্ন পূরণে আমরা কাজ করে যাচ্ছি। বর্তমান সরকারের বিভিন্ন পদক্ষেপের ফলশ্রুতিতে আমাদের জিডিপি ৭.২৪ শতাংশ এবং মাথাপিছু আয় ১,৬০২ মার্কিন ডলারে উন্নীত হয়েছে।

তিনি সন্ত্রাস ও জঙ্গিবাদের বিরুদ্ধে তাঁর সরকারের জিরো টলারেন্স নীতির কথা পুনর্ব্যক্ত করেন।

দেশে বিরাজমান সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতির কথা উল্লেখ করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, সকল ধর্মের মানুষ শান্তিপূর্ণভাবে তাদের ধর্ম পালন করছে।

মরক্কোর রাষ্ট্রদূত বাংলাদেশের সঙ্গে তার দেশের অর্থনৈতিক সহযোগিতা সম্প্রসারণে আগ্রহের কথা ব্যক্ত করে পর্যটন, বিদ্যুৎ ও নবায়নযোগ্য জ্বালানি খাতে সহযোগিতার প্রস্তাব দেন।

তিনি বলেন, আমরা বাণিজ্য ও অর্থনীতিসহ অন্যান্য খাতে সহযোগিতা সম্প্রসারিত করতে চাই।

বিভিন্ন আন্তর্জাতিক ইস্যু নিয়ে আলোচনায় মজিদ হালিম বলেন, অনেক বিষয়ে বাংলাদেশের সঙ্গে মরক্কোর অবস্থান অভিন্ন।

দু’দেশের মধ্যকার বিদ্যমান ভ্রাতৃত্বপূর্ণ সম্পর্কে সন্তোষ প্রকাশ করে রাষ্ট্রদূত বলেন, দ্বিপক্ষীয় এই সম্পর্ক আরো জোরদার করতে তিনি কাজ করে যাবেন।

প্রধানমন্ত্রীর মুখ্য সচিব ড. কামাল আবদুল নাসের চৌধুরী ও প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের সিনিয়র সচিব সুরাইয়া বেগম এ সময় উপস্থিত ছিলেন।

এই সম্পর্কিত আরো খবর

বিএনপি নেতা এম কে আনোয়ার আর নেই

নিজস্ব প্রতিবেদক: সাবেক মন্ত্রী ও বিএনপি’র জাতীয় স্থায়ী কমিটির সদস্য এম  কে আনোয়ার আর নেই। ইন্না লিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন।...

ইসি’র সঙ্গে নারীনেত্রীদের সংলাপ

৩৩ শতাংশ নারী নেতৃত্ব না থাকলে দলের নিবন্ধন বাতিল দাবি

নিজস্ব প্রতিবেদক: যে সব রাজনৈতিক দলের গঠনতন্ত্রে ৩৩ শতাংশ নারী প্রতিনিধিত্ব নেই তাদের নিবন্ধন বাতিল করার দাবি জানিয়েছেন নারী নেত্রীরা।...

0 মন্তব্য

আপনার মতামত প্রকাশ করুন

Message is required.
Name is required.
Email is