করোনা ভাইরাসের নতুন লক্ষণ!

প্রকাশিত: ০৯:৩৬, ০২ এপ্রিল ২০২০

আপডেট: ১২:১৫, ০২ এপ্রিল ২০২০

আফিয়া জ্যোতি : করোনা ভাইরাসের সাধারণ লক্ষণগুলো এখন সবারই জানা। জ্বর, সর্দি-কাশি, শ্বাসকষ্ট, মাথাব্যথা এবং গলা ব্যথাও এর বাহ্যিক লক্ষণ। এই লক্ষণগুলোর কোন একটি থাকলে অবশ্যই আমাদের বাড়িতে থাকতে হবে এবং কমপক্ষে ৭ দিনের জন্য সেল্ফ আইসোলেসনে থাকতে হবে। এতদিন এই লক্ষণগুলোর কথা বলা হলেও আরও দুইটি লক্ষণ ভাবিয়ে তুলেছে চিকিৎসকদের।

করোনা আক্রান্ত ব্যক্তির ঘ্রাণশক্তি লোপ এবং খাবারের স্বাদ বুঝতে না পারার উপসর্গ নিয়ে শঙ্কা প্রকাশ করেছেন যুক্তরাজ্য, যুক্তরাষ্ট্র, জার্মানি, ইতালিসহ বিভিন্ন দেশের বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকরা। গবেষণায় দেখা গেছে, ঘ্রাণশক্তি লোপ এবং খাবারের স্বাদ বুঝতে না পারা করোনার একমাত্র লক্ষণ হতে পারে।

নিউইয়র্ক টাইমসের এক নিবন্ধে কয়েকটি দেশের নাক, কান, গলা বিশেষজ্ঞদের বরাত দিয়ে বলা হয়, এ ভাইরাসে আক্রান্ত ব্যক্তিকে আপাতদৃষ্টিতে সুস্থ মনে হলেও কিংবা তার মধ্যে অন্য কোনো উপসর্গ না থাকলেও  ঘ্রাণশক্তি লোপ পাওয়া এবং খাবারের স্বাদ বুঝতে না পারার লক্ষণ দেখা দেয়ার সঙ্গে সঙ্গে তাকে অন্তত সাত দিনের জন্য আলাদা করে রাখতে হবে।

চীন, ইরান, ইতালি, জার্মানি এবং ফ্রান্সের মতো দেশে কোভিড-১৯ এ আক্রান্ত রোগীর ক্ষেত্রেও স্বাদ ও গন্ধ না পাওয়ার লক্ষণ দেখা গেছে। ব্রিটিশ অ্যাসোসিয়েশন অফ অটোরাইনোলারিঙ্গোলজি (ইএনটি ইউকে) এর মতে, করোনাভাইরাসের অন্যান্য লক্ষণ না থাকলেও বেশ কয়েকজন রোগীর মধ্যে শুধুমাত্র এই দুটি লক্ষণ পাওয়া গেছে।

এক বিবৃতিতে ব্রিটিশ রাইনোলজিক্যাল সোসাইটির সভাপতি অধ্যাপক ক্লেইরি হপকিন্স এবং ব্রিটিশ চিকিৎসকদের সংগঠন-ইএনটি ইউকে সভাপতি প্রফেসর নির্মল কুমার বলেছেন, "আমরা মনে করি যে এই রোগীরা এখন অবধি লুকানো বাহক হতে পারে যারা কোভিড-১৯-এর দ্রুত প্রসারণকে সহায়তা করেছে। দুর্ভাগ্যক্রমে, এই রোগীরা বর্তমানে পরীক্ষার আওতায় আসছে না এবং সেল্ফ আইসোলেসনেও থাকছে না।"

ক্লেইরি হপকিন্স আরো বলেন, আমরা বিষয়টি নিয়ে সতর্ক করতে চাই, কারণ এটি সংক্রমণের একটি কারণ। কারও ঘ্রাণশক্তি লোপ পেলে তার উচিত স্বেচ্ছায় আলাদা থাকা। এর ফলে ভাইরাস বিস্তার কমবে এবং প্রাণও বাঁচবে। যেসব রোগীর স্বাদ ও ঘ্রাণশক্তি লোপ পেয়েছে, এমন রোগীদের চিকিৎসার সময়ও স্বাস্থ্যকর্মীদের প্রয়োজনীয় সুরক্ষা উপকরণ ব্যবহারের পরামর্শ দিয়েছেন ইএনটি ইউকের সভাপতি নির্মল কুমার।

আমেরিকান অ্যাকাডেমি অফ অটোল্যারিনগলজির ওয়েবসাইটে প্রকাশিত একটি সতর্কবার্তায় বলা হয়েছে- আপনার কি ‘অ্যানোসমিয়া’-র লক্ষণ দেখা যাচ্ছে? হঠাৎ করে দেখছেন, কোনও কিছুর গন্ধ পাচ্ছেন না? কিংবা ‘ডিসগেসিয়া’ হয়েছে? জিভে কোনও স্বাদ পাচ্ছেন না? যদি এই দুটো জিনিস হয়, একদম অবজ্ঞা করবেন না। সতর্ক হোন, আইসোলেসনে চলে যান। পরীক্ষা করে দেখে নিন, করোনাভাইরাসের সংক্রমণ আছে কিনা। ওয়েবসাইটের বিবৃতি অনুসারে, এমন দেখা গিয়েছে, অন্য কোন উপসর্গ নেই, কিন্তু শুধু কোনও কিছুর গন্ধ পাচ্ছেন না, এমন রোগীকে পরীক্ষা করে কোভিড-১৯  পজিটিভ পাওয়া গেছে।

যুক্তরাজ্যের চিকিৎসকরা বলছেন, ঘ্রাণশক্তি হারিয়ে ফেলা করোনা আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা কম নয়। দক্ষিণ কোরিয়ায় ২০০০ রোগীর ৩০ শতাংশের মধ্যেই এই উপসর্গ পাওয়া গেছে বলে জানিয়েছেন তারা।

বিভিন্ন দেশের সহকর্মীদের কাছ থেকে পাওয়া তথ্যের বরাতে ব্রিটেনের একদল নাক, কান গলা বিশেষজ্ঞ জানিয়েছেন, অন্য লক্ষণ না থাকলেও বয়স্কদের মধ্যে ঘ্রাণশক্তি লোপ পাওয়ার লক্ষণ দেখা দিলে তাকে সাত দিনের জন্য আলাদা করে রাখতে হবে। নতুন এ উপসর্গ দেখা দিলে সতর্ক হওয়ার আহ্বান জানিয়েছেন চিকিৎসকরা।

 

এই বিভাগের আরো খবর

কৃষ্ণাঙ্গ হত্যায় চার শ্বেতাঙ্গ পুলিশ অভিযুক্ত

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: কৃষ্ণাঙ্গ হত্যায়...

বিস্তারিত
আক্রান্তে ইতালিকে ছুঁতে চলেছে ভারত

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: কোভিড-১৯ এর...

বিস্তারিত
করোনায় বিশ্বে প্রাণহানি ৩ লাখ ৯০ হাজার

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : করোনা ভাইরাসে...

বিস্তারিত
কাল থেকে কলকাতার রাস্তায় নামছে গণপরিবহন

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: পুরনো ভাড়াতেই...

বিস্তারিত
পেরুতে করোনায় ২০ সাংবাদিকের মৃত্যু

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: প্রাণঘাতী...

বিস্তারিত

0 মন্তব্য

আপনার মতামত প্রকাশ করুন

মন্তব্য প্রকাশ করুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না. প্রয়োজনীয় ক্ষেত্রগুলি চিহ্নিত করা আছে *