কিভাবে ছড়ালো করোনা! রহস্য উদঘাটনের চেষ্টা বিজ্ঞানীদের

প্রকাশিত: ১১:৩০, ০৯ এপ্রিল ২০২০

আপডেট: ১১:৩০, ০৯ এপ্রিল ২০২০

ফারুক হোসাইন: করোনা ভাইরাসের উৎপত্তি নিয়ে চলছে গবেষণা। কেউ বলছেন জীবাণু অস্ত্র তৈরি করতে গিয়ে দুর্ঘটনাক্রমে ছড়িয়েছে এই ভাইরাস। আবার কেউ মনে করছেন দৈব দুর্বিপাক। কেউ বলছেন এটা চীনের একটি জীবাণু অস্ত্র। কেউ বলছেন মার্কিন সামরিক বাহিনী এটা উহানে নিয়ে এসেছে। দুর্ঘটনাবশত এটা ছড়িয়েছে। যার সূত্রপাত উহানের একটি বন্যপশুর বাজার থেকে। 

বিজ্ঞানীরা এসব বিষয় নিয়ে করছেন চুলচেরা বিশ্লেষণ। তবে এসব বিষয়ে এখনো একমত হতে পারেননি বিশেষজ্ঞরা। 
সবচেয়ে প্রচলিত তথ্য হচ্ছে, উহানের বন্যপ্রাণীর বাজার থেকে কোন আক্রান্ত বাদুর বা প্যাঙ্গুলিন থেকে প্রথম মানুষের শরীরে ছড়ায় এই ভাইরাসটি। যেখানে বন্যপশু কেনাবেচা করা হতো। কেউ সেখান থেকে পশু কিনে নিতেন পোষাপ্রাণী হিসেবে কেউবা খাওয়ার জন্য। 
কিন্তু কিভাবে এই ভাইরাসের সংক্রমণ হয়েছে তা এখনো পরিস্কার নয়। মার্কিন সংবাদ মাধ্যম সিএনএন ভাইরাসটি ছড়িয়ে পড়ার বিষয়ে কয়েকজন ভাইরাস বিশেষজ্ঞের সাথে কথা বলে জানতে চেষ্টা করেছে কিভাবে এই ভাইরাসটির সূত্রপাত হলো। 

বিজ্ঞানীরা বলেছেন, যুক্তরাষ্ট্র বা চীন ইচ্ছাকৃতভাবে ভাইরাসটি মানুষের মধ্যে ছড়িয়েছে এমন যুক্তি অগ্রহণযোগ্য। এখন পর্যন্ত যা অনুধাবন করা গেছে তা হলো, ভাইরাসটি কোন বাদুর থেকে ছড়াতে পারে। কলম্বিয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক ডক্টর সায়মন অ্যান্থনি বলেন, এটাই সবচেয়ে গ্রহণযোগ্য ব্যাখ্যা। সায়মন প্রিডিক্ট বা প্রোগ্রাম ইনভেস্টিগেশন ভাইরাসেস ইন এনিম্যাল হোস্টস ইউথ পেনডামিক পোটেনশিয়াল নামে একটি সংস্থার হয়ে গত এক দশকে ১৮০টি করোনা ভাইরাস সনাক্ত করেছেন। তিনি জীবাণু অস্ত্রের তথ্যটি উড়িয়ে দিয়েছেন। তবে, অন্যরা এ বিষয়ে সন্দেহ প্রকাশ করেছেন।

বিশেষজ্ঞদের মধ্যে উহানের বন্যপ্রাণীর বাজার থেকে ভাইরাসের বিস্তারের বিষয়টি নিয়েও রয়েছে মতবিরোধ। 
কেউ কেউ বলছেন চীনের কোন গবেষণাগার থেকেই সূত্রপাত ঘটেছে এই ভাইরাসের। টাকার কার্লটন নামে একজন বিশেষজ্ঞ ফক্স নিউজকে দেয়া সাক্ষাতকারে দাবি করেন, ভাইরাসটি উহানের বন্যপ্রাণীর বাজারের কাছে একটি গবেষণাগার থেকে দুর্ঘটনাবশত ছড়িয়ে পড়ে। যারা বাদুর নিয়ে গবেষণা করছিলো। অনেকেই তার মতের বিরোধিতা করেছেন। তাদের মতে, তার এই দাবির পক্ষে কোন যৌক্তিক প্রমাণ তিনি দেখাতে পারেননি। এছাড়া, চীন সরকার এবং ওই গবেষণাগারটিও এই অভিযোগ অস্বীকার করেছে।

রাটগার বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক ডক্টর রিচার্ড এবরাইট নামে একজন জীবাণু অস্ত্র বিশেষজ্ঞ দাবি করেন যে, উহানের কোন গবেষণাগার থেকেই ছড়াতে পারে এই ভাইরাসটি। অন্যদিকে, গবেষকেরা দাবি করেন যে, প্রাণী থেকে মানুষের শরীরে ভাইরাস সংক্রমণের ঘটনাকে ‘জুনোটিক স্পিলওভার’ বলে অভিহিত করা হয়।

ফেব্রুয়ারীর প্রথম দিকে চীনের গবেষকেরা সায়েন্স জার্নালে প্রকাশিত এক গবেষণা পত্রে দাবি করেন, করোনা ভাইরাসের গঠন প্রক্রিয়া বাদুরের জিনোমের সাথে ৯৬ শতাংশ মিল রয়েছে। ফেব্র“য়ারীর শেষের দিকে যুক্তরাষ্ট্রসহ ২৭টি দেশের স্বাস্থ্য বিজ্ঞানীরা এটা একটি ষড়যন্ত্রমূলক উপাত্ত বলে অভিযোগ করেন। তারা অভিযোগ করেন, ষড়যন্ত্রমূলক গবেষণা সাধারণত মানুষের মধ্যে ভীতি সঞ্চার করে এবং গুজব ছড়ানোর জন্য বানানো হয়। 

চীনের ইকোহেল্থ অ্যালায়েন্সের প্রেসিডেন্ট পিটার ডেসজাক, যিনি গত এক দশক ধরে জুনোটিক স্পিলওভার নিয়ে কাজ করছেন বলেন, তিনি এই বিষয়ে আত্মবিশ্বাসী যে কোভিড-১৯ বাদুর থেকেই ছড়িয়েছে। কিন্তু এটা কোথা থেকে ছড়িয়েছে সেই বিষয়ে তিনি নির্দিষ্ট করে কিছু বলতে পারছেন না।

এই বিভাগের আরো খবর

আক্রান্তে ইতালিকে ছুঁতে চলেছে ভারত

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: কোভিড-১৯ এর...

বিস্তারিত
সোমবার আসছে চীনের বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক দল

ডেস্ক প্রতিবেদন : করোনা ভাইরাস...

বিস্তারিত
পেরুতে করোনায় ২০ সাংবাদিকের মৃত্যু

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: প্রাণঘাতী...

বিস্তারিত
চীনে ১৯ দিনে করোনা শনাক্ত হয়নি

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: করোনাভাইরাস চীনে...

বিস্তারিত
দক্ষিণ এশিয়ায় আক্রান্তের শীর্ষে ভারত

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: দক্ষিণ এশিয়ায়...

বিস্তারিত
ব্রাজিলে মৃত্যুর নতুন রেকর্ড

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: কোভিড -১৯ এ...

বিস্তারিত
বিশ্বে মোট মৃত্যু ৩ লাখ ৮২ হাজার

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: বিশ্বজুড়ে করোনা...

বিস্তারিত

0 মন্তব্য

আপনার মতামত প্রকাশ করুন

মন্তব্য প্রকাশ করুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না. প্রয়োজনীয় ক্ষেত্রগুলি চিহ্নিত করা আছে *