পোষা প্রাণি কি নিরাপদ? 

প্রকাশিত: ১১:৪৬, ০৯ এপ্রিল ২০২০

আপডেট: ০৭:৩৪, ০৯ এপ্রিল ২০২০

ফারুক হোসাইন: পোষা প্রাণি থেকে কি ছড়াতে পারে করোনা ভাইরাস? এমন একটা প্রশ্ন সবার মনেই উঁকি দিচ্ছে। প্রাণঘাতী এই ভাইরাসের প্রকোপে নাস্তানাবুদ মানবজাতি তার প্রিয় পোষা প্রাণিটিকে নিয়ে শঙ্কায় রয়েছে। ব্রিটিশ প্রাণিবিদরা জানান, পোষা প্রাণি থেকে করোনা ভাইরাস সংক্রমণের হার খুব কম। তবে, সাবধান থাকাই উত্তম। 

এক্ষেত্রে করোনা ভাইরাস  ছড়িয়ে পড়া প্রতিরোধে বিড়ালসহ পোষা প্রাণীকে ঘরে রাখার পরামর্শ দিয়েছেন ভেটেরিনারি বিশেষজ্ঞরা। ব্রিটিশ ভেটেরিনারি অ্যাসোসিয়েশন বলছে, পোষাপ্রাণীর মালিকদের দুশ্চিন্তার কিছু নাই,  তাদের পোষা প্রাণী থেকে সংক্রমণের ঝুঁকি নেই।

হংকং সিটি ইউনিভার্সিটির ডাক্তার এনজেল অ্যালমেনড্রোস জানান, কোভিড-১৯ পোষা কুকুর ও বিড়ালের মাধ্যমে মানুষকে সংক্রমিত করেছে এমন কোন প্রমাণ নেই। তবে গবেষণায় দেখা গেছে, এক বিড়াল সম্ভবত অন্য বিড়াল দ্বারা ভাইরাসে সংক্রমিত হতে পারে। এ জন্য পোষা প্রাণীর বিষয়ে মালিকদের সচেতন থাকার পরামর্শ দিয়েছেন ব্রিটিশ ভেটেরিনারি অ্যাসোসিয়েশনের প্রেসিডেন্ট ড্যানিয়েলা ডস স্যান্টস।

তিনি জানান, মানুষের হাত থেকে ভাইরাস পোষা প্রাণীর লোমে যেতে পারে। এজন্য পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন থাকতে হবে। সবসময় হাত পরিষ্কার রাখতে হবে। বিড়ালকে ঘরে রাখতে হবে। এছাড়াও অপ্রয়োজনীয় স্পর্শ ও জড়িয়ে ধরা বা মুখে আদর করা থেকে বিরত থাকতে হবে।

ডাক্তার এনজেল অ্যালমেনড্রোস বলেন, স¤প্রতি একটি খবরে জানা যায় হংকংয়ে ১৭ বছর বয়স্ক একটি কুকুর কোভিড-১৯ পজিটিভ হয়েছে। কুকুরটি তার মালিকের দ্বারা সংক্রমিত হয়েছে। যদিও পজেটিভ ফলাফল এসেছে তবে প্রাণীটি অসুস্থ হয়ে পড়েনি। এরপর নিউইয়র্কে চিড়িয়াখানার একটি বাঘ করোনায় আক্রান্ত হওয়ার খবর আসে।

২০০৩ সালে হংকংয়ে সার্স মহামারির সময় অনেক প্রাণী সংক্রমিত হয়েছিল কিন্তু অসুস্থ হয়নি। এমনকি কোন প্রমাণও নেই যে তারা মানুষকে সংক্রমিত করেছে।

বেলজিয়ামের একটা ঘটনায় দেখা গেছে, একটি বিড়াল কোভিড-১৯ পজেটিভ হয়েছে। তার মালিকের সংক্রমণের এক সপ্তাহ পর। চীনের ল্যাব টেস্টে এটা প্রমাণিত একটি বিড়াল আরেকটি বিড়ালকে ভাইরাস ট্রান্সমিট করে। এছাড়াও মানুষ থেকে প্রাণীতে ভাইরাস যেতে পারে।

গবেষকরা ধারণা করেছেন, করোনা ভাইরাস যেভাবে বিশ্বব্যাপী ছড়িয়ে পড়ছে তাতে মানুষের দ্বারা বন্য প্রাণীও আক্রান্ত হতে পারে। এতে বিলুপ্তপ্রায় প্রাণী, যেমন- গরিলা।  কোভিড-১৯ এ আক্রান্ত হতে পারে। তাই পরিবেশ সংরক্ষণ সংস্থাগুলোর এ বিষয়ে সতর্ক হওয়া প্রয়োজন।

স¤প্রতি যুক্তরাষ্ট্রে ব্রোনক্স চিড়িয়াখানায় একটি বাঘ করোনা আক্রান্ত হয়েছে। ধারণা করা হচ্ছে, চিড়িয়াখানার সংরক্ষকের মাধ্যমেই সংক্রমিত হয়েছিল বাঘটি। 

সবকিছু মিলে এটাই ধারণা করা যায়, করোনাভাইরাসে মানুষ আক্রান্ত হওয়ায় অন্য প্রজাতিও হুমকির মুখে পড়েছে। এজন্য মানুষকে সচেতন হতে হবে। তার পোষা প্রাণীর বিষয়ও সতর্ক থাকতে হবে।

আমরা জানি যে, এই মহামারি করোনাভাইরাস প্রাণী থেকে মানুষের শরীরে সংক্রমিত হয়েছে। তথ্যটি এভাবে এসেছে যে মানুষ ভাইরাস আক্রান্ত প্রাণীটি খেয়ে সংক্রমিত হয়েছেন। কিন্তু এটা এখনও প্রমাণিত হয়নি।

পোষা প্রাণীকে ভাইরাসের সংক্রমণ থেকে রক্ষা করতে ডাক্তার এনজেল অ্যালমেনডারস পরামর্শ দিয়েছেন তাদের ঘরে রাখার।

তিনি বলেন, নিজের পরিবারের অন্য সদস্যদের মতো পোষাপ্রাণীরও যতœ নিতে হবে। যদি আপনি আক্রান্ত হন তাহলে ওই পোষা প্রাণী থেকে দূরে থাকুন। তাহলে প্রাণীর মধ্যে ভাইরাস ছড়িয়ে পড়া রোধ করা যাবে।
 

এই বিভাগের আরো খবর

আক্রান্তে ইতালিকে ছুঁতে চলেছে ভারত

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: কোভিড-১৯ এর...

বিস্তারিত
সোমবার আসছে চীনের বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক দল

ডেস্ক প্রতিবেদন : করোনা ভাইরাস...

বিস্তারিত
পেরুতে করোনায় ২০ সাংবাদিকের মৃত্যু

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: প্রাণঘাতী...

বিস্তারিত
চীনে ১৯ দিনে করোনা শনাক্ত হয়নি

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: করোনাভাইরাস চীনে...

বিস্তারিত
দক্ষিণ এশিয়ায় আক্রান্তের শীর্ষে ভারত

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: দক্ষিণ এশিয়ায়...

বিস্তারিত
ব্রাজিলে মৃত্যুর নতুন রেকর্ড

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: কোভিড -১৯ এ...

বিস্তারিত
বিশ্বে মোট মৃত্যু ৩ লাখ ৮২ হাজার

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: বিশ্বজুড়ে করোনা...

বিস্তারিত

0 মন্তব্য

আপনার মতামত প্রকাশ করুন

মন্তব্য প্রকাশ করুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না. প্রয়োজনীয় ক্ষেত্রগুলি চিহ্নিত করা আছে *