ঢাকায় বসুন্ধরায় অস্থায়ী হাসপাতালের উদ্বোধন

প্রকাশিত: ১০:৫৫, ১৭ মে ২০২০

আপডেট: ১০:৫৫, ১৭ মে ২০২০

নিজস্ব প্রতিবেদক: উদ্বোধন হলো দেশের সবচেয়ে বড় ২ হাজার শয্যার অস্থায়ী কোভিড হাসপাতাল। বসুন্ধরা কনভেনশন সিটিতে স্থাপিত হাসপাতালটি আজ (রোববার) আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করা হয়। তবে এখনই রোগী ভর্তি করা হচ্ছে না। নিয়মিত কোভিড হাসপাতালে শয্যা পরিপূর্ণ হওয়ার পরই এখানে রোগী পাঠানো হবে। ইতিমধ্যে নিয়োগ দেয়া হয়েছে ডাক্তার নার্সসহ প্রয়োজনীয় লোকবল।

সপ্তাহ তিনেক আগেই পুরোপুরি প্রস্তুত ছিলো বসুন্ধরা কনভেনশন সিটিতে স্থাপিত দেশের সবচেয়ে বড় অস্থায়ী কোভিড হাসপাতাল। প্রয়োজনীয় কার্যক্রম শেষ করে হাসপাতালটি বুঝে নিতে কিছু সময় লাগে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের।

উদ্বোধন উপলক্ষ্যে আয়োজিত অনুষ্ঠানে স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক, বসুন্ধরা গ্রুপের ব্যবস্থাপনা পরিচালক সায়েম সোবহান আনভীর এবং ভাইস চেয়ারম্যান সাফওয়ান সোবহান, বসুন্ধরা গ্রুপের গণমাধ্যম উপদেষ্টা আবু তৈয়ব, বসুন্ধরা গ্রুপের ব্যবস্থাপনা পরিচালকের পররাষ্ট্র বিষয়ক উপদেষ্টা সাজ্জাদ হায়দার ও আইসিসিবি'র প্রধান পরিচালন কর্মকর্তা এম এম জসীম উদ্দিন উপস্থিত ছিলেন।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব হাবিবুর রহমান, আইসিসিবি হাসপাতালের পরিচালক ডা. মো. এহসানুল হক, স্বাস্থ্য প্রকৌশল অধিদফতরের প্রধান প্রকৌশলী ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মোহাম্মদ ওসমান।

করোনা দুর্যোগ মোকাবেলায় সরকারের উদ্যোগে সহায়তা করতেই নিজেদের এই জায়গা হাসপাতাল করার জন্য ছেড়ে দেয় বসুন্ধরা গ্রুপ। উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বসুন্ধরার ব্যবস্থাপনা পরিচালক সায়েম সোবহান আনভীর এই হাসপাতালে গণমাধ্যমকর্মীদের জন্য ২০০ শয্যা বরাদ্দ রাখতে সরকারের প্রতি অনুরোধ জানান।

তিনি বলেন, করোনাকালে জীবনের ঝুঁকি নিয়ে মাঠে তথ্য সংগ্রহের দায়িত্বে থাকা সাংবাদিকদের জন্য হাসপাতালে ২০০ টি বেড বরাদ্দ রাখার জন্য স্বাস্থ্যমন্ত্রীকে অনুরোধ করা হয়েছে।

সায়েম সোবহান আনভীর আরো বলেন, আমরা সুষ্ঠুভাবে হাসপাতালটি করতে পেরেছি এটা বড় আনন্দের। এজন্য স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়কে ধন্যবাদ জানাই। বিশেষ করে প্রধানমন্ত্রীকে ধন্যবাদ জানাই যে, তিনি আমাদের হাসপাতাল তৈরির প্রস্তাবটি গ্রহণ করেছেন। আমরা যতটুকু সম্ভব ততটুকু করার করেছি, এখন হাসপাতালটি যাতে ঠিকভাবে পরিচালিত হয়, রোগীরা যাতে কাক্ষিত সেবা পায় এজন্য স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় ও সংশ্লিষ্টদের অনুরোধ জানাই। এজন্য সবার সহযোগিতা কামনা করছি। দেশ এখন কঠিন সময় পার করছে। সবার প্রতি আমার অনুরোধ আমরা যেন এই কঠিন পরিস্থিতি মোকাবেলায় যার যার জায়গা থেকে এগিয়ে আসি।

দেশের এই ক্রান্তিকালে মানুষের সেবায় এগিয়ে আসার জন্য বসুন্ধরা কর্তৃপক্ষকে ধন্যবাদ জানান স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক। প্রধান অতিথির বক্তব্যে স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক বলেন, বসুন্ধরা গ্রুপ দেশের অন্যতম বড় শিল্পগোষ্ঠী। দেশের এই দুর্যোগে গ্রুপটি দেশ ও মানুষের সেবায় এগিয়ে এসেছে। তাদের অন্যতম বড় স্থাপনা ছেড়ে দিয়েছে করোনা রোগীর চিকিৎসার জন্য হাসপাতাল নির্মাণে। এছাড়া সব ধরণের সহযোগিতা করে যাচ্ছে। ২০১৩ শয্যার এই আইসোলেশন সেন্টারটি দেশের সবচেয়ে বড় আইসোলেশন সেন্টার। এছাড়া এখানে অক্সিজেন, ভেন্টিলেশনসহ ৭১ বেডের আইসিইউ প্রস্তুতি প্রায় সম্পন্ন। প্রয়োজন হলেই রোগীকে আইসিইউ সেবা দেওয়া যাবে। এত বড় একটি হাসপাতাল করার সুযোগ করে দেওয়ায় বসুন্ধরা গ্রুপকে ধন্যবাদ।

এসময় সাংবাদিকের এক প্রশ্নের জবাবে স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, হাসপাতালে পর্যায়ক্রমে জনবল নিয়োগ করা হচ্ছে। প্রথমে ৫০০ রোগীর চিকিৎসার জন্য জনবল নিয়োগ করা হয়েছে। রোগীর উপর ভিত্তি করে পরে আরও ৫০০ রোগীর জন্য জনবল নিয়োগ করা হবে। এভাবে ধাপে ধাপে বাকি শয্যাগুলোর জন্য জনবল নিয়োগ দেওয়া হবে।

এরই মধ্যে এই হাসপাতালের পরিচালক, প্রয়োজনীয় ডাক্তার, নার্সসহ জনবল নিয়োগ দেয়া হয়েছে। যে কোন সময় এখানে রোগীদের চিকিৎসা শুরু করা সম্ভব বলে জানিয়েছেন সংশ্লিষ্টরা। 

এই বিভাগের আরো খবর

বিকেলে করোনা টিকাদান কার্যক্রমের উদ্বোধন

নিজস্ব প্রতিবেদক: রাজধানীতে আজ থেকে...

বিস্তারিত
কাল করোনার টিকাদান কার্যক্রম উদ্বোধন

নিজস্ব প্রতিবেদক: করোনা ভাইরাসের...

বিস্তারিত
করোনার টিকা নিতে পারবে না যারা

নিজস্ব প্রতিবেদক: করোনা ভাইরাস...

বিস্তারিত
আরো ৫০ লাখ ডোজ করোনার টিকা ঢাকায়

নিজস্ব প্রতিবেদক: ভারতের সেরাম...

বিস্তারিত
আজ দেশে আসছে করোনার ৫০ লাখ ডোজ টিকা

নিজস্ব প্রতিবেদক: ভারতের সেরাম...

বিস্তারিত
করোনার অ্যান্টিবডি পরীক্ষার অনুমতি

নিজস্ব প্রতিবেদক: করোনাভাইরাসের...

বিস্তারিত
মানহীন মাস্কে বাজার সয়লাব 

লাবণী গুহ: করোনাসহ নানা ধরনের ভাইরাস...

বিস্তারিত

0 মন্তব্য

আপনার মতামত প্রকাশ করুন

মন্তব্য প্রকাশ করুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না. প্রয়োজনীয় ক্ষেত্রগুলি চিহ্নিত করা আছে *