বরগুনায় অনুমোদনহীন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের নামে টাকা আত্মসাত

প্রকাশিত: ০৩:০৮, ২২ মে ২০২০

আপডেট: ০৩:০৮, ২২ মে ২০২০

বরগুনা সংবাদদাতা: প্রধানমন্ত্রীর নাম ভাঙ্গিয়ে অনুমোদনহীন এক শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের নামে লাখ লাখ টাকা আত্মসাত করার অভিযোগ পাওয়া গেছে বরগুনায়। শিক্ষক ও ছাত্র-ছাত্রী নেই, ভবন নেই। কেবল কলেজের সাইনবোর্ড টানিয়ে সরকারি অর্থ আত্মসাৎ করেছেন বরগুনার আমতলী উপজেলার হলদিয়া ইউনিয়নের চেয়ারম্যান শহীদুল ইসলাম মৃধা। এলাকাবাসীর লিখিত অভিযোগ পাওয়ার পর বিষয়টি তদন্ত শুরু করেছে জেলা প্রশাসন।

বরগুনার হলদিয়া ইউনিয়নের তক্তাবুনিয়া এলাকায়, শেখ হাসিনা মহাবিদ্যালয় নামে টানানো হয়েছে এই সাইনবোর্ড। কিন্তু বাস্তবে এখানে নেই কোন কলেজ ভবন। নেই শিক্ষক এবং ছাত্র-ছাত্রীও। সাইনবোর্ডের পাশের জমিতে, বালু ফেলে ভরাট করা হচ্ছে। এলাকাবাসীর অভিযোগ, তাদের জমি দখল করার পাঁয়তারা করছেন ইউপি চেয়ারম্যান শহীদুল ইসলাম মৃধা।

তবে চেয়ারম্যানের দাবি, সরকার প্রধান এই কলেজ প্রতিষ্ঠায় মৌখিক সম্মতি দিয়েছেন। আর বঙ্গবন্ধু ট্রাষ্ট ও শিক্ষা মন্ত্রণালয়ে করা আবেদন প্রক্রিয়াধীন।

যদিও বরিশাল শিক্ষা বোর্ড কর্তৃপক্ষ বলছেন, শেখ হাসিনা মহাবিদ্যালয় নামে কোন কলেজের অনুমোদন নেই। বিষয়টি শিক্ষা মন্ত্রনালয়কেও অবহিত করেছেন তাঁরা। 

অনুমোদহীন এই কলেজের ভবন নির্মাণে উপজেলা প্রকৌশল অধিদপ্তর থেকে দরপত্রও আহবান করা হয় প্রভাব খাটিয়ে। আর ইউনিয়ন পরিষদ তহবিল থেকে চার লাখ টাকা বরাদ্দ করিয়ে নেন চেয়ারম্যান শহীদুল। লিখিত অভিযোগ পাওয়ার পর তদন্ত শুরু করেছে প্রশাসন। 

এদিকে, সাইনবোর্ড সর্বস্ব এই কলেজের নামে অর্থ বরাদ্দ ‘অবৈধ’ বলে জানালেন বরগুনা জেলা প্রশাসক মোস্তাইন বিল্লাহ। 

ক্ষমতা অপবব্যহার ও দুর্নীতির মাধ্যমে শহীদুল বিপুল অর্থের মালিক হয়েছেন বলে অভিযোগ আছে এলাকাবাসীর।
 

এই বিভাগের আরো খবর

দেশে করোনা সংক্রমণ দীর্ঘমেয়াদী হওয়ার আশংকা

শাহনাজ ইয়াসমিন: প্রতিরোধ ব্যবস্থা বা...

বিস্তারিত
ফুটপাতে বিক্রি হচ্ছে পিপিই

শেখ হারুন: করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ...

বিস্তারিত

0 মন্তব্য

আপনার মতামত প্রকাশ করুন

মন্তব্য প্রকাশ করুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না. প্রয়োজনীয় ক্ষেত্রগুলি চিহ্নিত করা আছে *