সবকিছু স্বাভাবিক করে দেয়ার সিদ্ধান্ত আত্মঘাতী

প্রকাশিত: ০১:৪১, ২৯ মে ২০২০

আপডেট: ১০:১৭, ২৯ মে ২০২০

লাবণী গুহ: দেশে যখন রোগীর সংখ্যা প্রতিদিন আগের রেকর্ডকে অতিক্রম করছে, তখনই সবকিছু স্বাভাবিক করে দেয়ার সিদ্ধান্তকে আত্মঘাতী বলছেন জনস্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞরা। এ অবস্থায় ব্যক্তিগত সুরক্ষার জন্য প্রত্যেক নাগরিককে নিজে থেকে সব স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার তাগিদ দেন তাঁরা।

স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের হিসাবে প্রতিদিনই বাড়ছে করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত ও মৃতের সংখ্যা। চলতি মাসের শেষে যখন জ্যামিতিক হারে রোগী বাড়েছে, তখন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ছাড়া বাদবাকি সবকিছু  খুলে দেয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার।

জনস্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞরা বলছেন, দেশ এই ভাইরাসের মহামারীর মধ্যে ঢুকে গেছে। স্বাস্থ্য অধিদপ্তর যে আক্রান্তের কথা বলছে তা আসলে হবে শনাক্ত রোগী। কারন উপসর্গ ছাড়া অনেক আক্রান্ত মানুষই ঘুরে বেড়াচ্ছে।

ঈদের আগে ও পরে মানুষের যাতায়াতের ফলে সংক্রমণের মাত্রা বুঝতে সময় লাগবে আরো ২ সপ্তাহ।

বিশেষজ্ঞরা বলেন, এরকম অবস্থায় নিজেদের সুরক্ষার জন্য নাগরিকদেরই মূল দায়িত্ব পালন করতে হবে। স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলতে হবে নিজেদের ভালো থাকার প্রয়োজনেই। মুখে মাস্ক ব্যবহার, যতোটা সম্ভব একে অপরের থেকে দূরে থাকা, হাত ধোয়ার চর্চা অব্যাহত রাখতে হবে।

গণমাধ্যম, সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম, সরকারী ও বেসরকারী প্রতিষ্ঠানে সচেতনতামূলক প্রচারণা বাড়ানোর তাগিদ দেন বিশেষজ্ঞরা।

 

এই বিভাগের আরো খবর

লাজফার্মায় অনুমোদনহীন ওষুধ

নিজস্ব প্রতিবেদক: রাজধানীর কাকরাইলে...

বিস্তারিত
গত ২৪ ঘণ্টায় মৃত্যু ৩৯, শনাক্ত ৩০৯৯

নিজস্ব প্রতিবেদক: করোনাভাইরাসে...

বিস্তারিত
বাড়ছে না ঈদুল আজহার ছুটি

নিজস্ব প্রতিবেদক: আসন্ন ঈদুল আযহায়...

বিস্তারিত

0 মন্তব্য

আপনার মতামত প্রকাশ করুন

মন্তব্য প্রকাশ করুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না. প্রয়োজনীয় ক্ষেত্রগুলি চিহ্নিত করা আছে *