বাজেটে দেশি বিদেশি ঋণের নির্ভরতা বাড়বে 

প্রকাশিত: ১০:৪২, ০৮ জুন ২০২০

আপডেট: ০৬:৫০, ০৮ জুন ২০২০

নিজস্ব প্রতিবেদক: আসছে বাজেটে দেশি বিদেশি ঋণের উপর নির্ভরতা বাড়বে। সাম্ভাব্য বাজেট ঘাটতি হতে পারে প্রায় দু লাখ কোটি টাকা। করোনার কারণে চলতি অর্থবছরে রাজস্ব আহরণে বড় ধরণের ঘাটতি হতে যাচ্ছে। জুলাই থেকে মার্চ পর্যন্ত  লক্ষ্যমাত্রার চেয়ে ৫৬ হাজার কোটি টাকা কম রাজস্ব আহরণ হয়েছে। আগামী অর্থবছরেও এই ধারা অব্যাহত থাকতে পারে। তাই বাজেট ঘাটতিকে স্বাভাবিক ভাবেই দেখা হচ্ছে। 

করোনার কারণে স্থবির দেশের ব্যবসা-বাণিজ্য। তাতে গত কয়েক মাসে রাজস্ব আহরণে ঘাটতি দেখা দিয়েছে। চলতি অর্থবছরের জুলাই থেকে মার্চ পর্যন্ত ২ লাখ ২১ হাজার ১৪৫ কোটি টাকার লক্ষ্যমাত্রার বিপরীতে রাজস্ব আহরণ হয়েছে ১ লাখ ৬৫ হাজার কোটি টাকা। রাজস্ব ঘাটতির প্রভাব আগামী অর্থবছরেও থাকার আশঙ্কা।

পরিকল্পনামন্ত্রী এম এ মান্নান বলেন, এ অবস্থায় ২০২০-২১ অর্থবছরের বাজেটে দেশি-বিদেশী ঋণের পরিমাণ বাড়বে। তাতে বাজেট ঘাটতি ৬ শতাংশও ছাড়িয়ে যেতে পারে। 

পরিকল্পনা কমিশনের জেষ্ঠ্য সচিব এম শামসুল আলম বলেন, আগামী অর্থবছর রাজস্ব আহরণের সাম্ভাব্য লক্ষ্যমাত্রা ৩ লাখ ৩০ হাজার কোটি টাকা। 

সিপিডির সম্মানীয় ফেলো মুস্তাফিজুর রহমান বলেন, অর্থনৈতিক স্থবিরতায় রাজস্ব আহরণে খুব উচ্চভিলাসী লক্ষমাত্রা রাখা ঠিক হবে না। বরং কর ফাঁকি ও অর্থ পাচার রোধে কঠোর পদক্ষেপ থাকা প্রয়োজন বলে মত  দেন তিনি।

বাজেট ঘাটতি মোকাবেলা নেয়া ঋণ শোধ করতে হবে জনগণের করের টাকায়। তাই দুর্নীতি বন্ধ ও ব্যয়ের দক্ষতা বাড়ানোর তাগিদ গবেষকদের।
 

এই বিভাগের আরো খবর

শিগগিরই কলেজে ভর্তি শুরু; সংসদে শিক্ষামন্ত্রী

নিজস্ব প্রতিবেদক: এক মাসের ও বেশি সময়...

বিস্তারিত
সংসদে ২০২০-২১ অর্থবছরের বাজেট পাস

মেহের মণি: নতুন অর্থবছরের জন্য পাঁচ...

বিস্তারিত

0 মন্তব্য

আপনার মতামত প্রকাশ করুন

মন্তব্য প্রকাশ করুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না. প্রয়োজনীয় ক্ষেত্রগুলি চিহ্নিত করা আছে *