বয়স্কদের যত্নে করণীয়

প্রকাশিত: ১২:৩১, ২৭ জুন ২০২০

আপডেট: ১২:৩১, ২৭ জুন ২০২০

অনলাইন ডেস্ক: করোনাভাইরাস সংক্রমণের ভয়াবহ আতঙ্ক নিয়ে দিন কাটাচ্ছে সারা বিশ্বের মানুষ। হোম কোয়ারেনটাইনে থাকার পরও মনে হচ্ছে, নিরাপদে আছি তো? সবচেয়ে শঙ্কার ব্যাপার হলো, এখন পর্যন্ত করোনাভাইরাসে আক্রান্তের মধ্যে বয়স্ক ব্যক্তির সংখ্যাই বেশি। বাবা কিংবা মা- সন্তানের জন্য সবচেয়ে নির্ভরতা আর প্রশ্রয়ের জায়গা। আমরা বড় হতে হতে আমাদের বাবা-মা বয়স্ক হতে থাকেন।বয়স্ক মা-বাবারা অনেকটা শিশুর মতো হয়ে যান। তারা অনেক কিছুতেই আর নিজের খেয়াল রাখতে পারেন না। তখন আমাদের দায়িত্ব হল- তাদের সেসব খেয়াল রাখা। 

বয়স্কদের পাশে থাকুন

মরণঘাতি করোনাভাইরাসের থাবা সবচেয়ে বেশি মারাÍক ও ঝুঁকিপূর্ণ হয়ে উঠতে পারে বয়স্কদের ক্ষেত্রে। পরিস্থিতির বিবেচনায় এমনটাই বলছেন বিশেষজ্ঞরা। তাই এ মুহূর্তে অন্যদের থেকেও বেশি যত্নের প্রয়োজন বয়স্কদের ক্ষেত্রে। বাড়িতে বয়স্ক মা-বাবা বা যে কোনো সদস্য থাকলে তার প্রতি যত্নবান হোন। 

ঘরে থাকুন
বয়স্ক ব্যক্তিদের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা কম থাকে। ফলে এই সময় তাদেরকে বাইরে যেতে না দেয়াই ভালো। পারিবারিক প্রয়োজন যেমন বাজার করা কী ওষুধ কেনা- এসব দায়িত্ব পালন করবেন পরিবারের অন্য সদস্যরা। বয়স্ক ব্যক্তিদের এসব কাজে যেতে দেওয়া যাবে না।

পরিষ্কার-পরিচ্ছন্নতা জরুরী
করোনা সংক্রমণ থেকে রেহাই পেতে পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন থাকার কোন বিকল্প নেই। বার বার সাবান পানি দিয়ে হাত ধোয়া, পোশাক ও ঘর পরিষ্কার রাখা দরকার। বাইরে থেকে কেউ এসে বয়স্ক ব্যক্তির কাছাকাছি যাবেন না। হাত ধুয়ে জামাকাপড় বদলে, পারলে গোসল সেরে তারপর যাবেন।

জেনে নিন কীভাবে যত্নে রাখবেন বাড়ির ...

হালকা খাবার দিন
খেয়াল রাখতে হবে, বয়স্ক ব্যক্তি যেন সবদিক থেকে সুস্থ থাকেন। পেটের সমস্যাতেও যেন না ভোগেন। এজন্য কম তেল ও মশলা দিয়ে রান্না করতে হবে। ভাজাভুজি বাদ দেওয়াই ভালো। শাক-সবজি ও ফলমূল ভালো করে ধুয়ে নিন। মাংস ও ডিম ভালোভাবে সেদ্ধ করুন।

গল্প করুন
সামাজিক জীব হওয়ার কারণে হোম কোয়ারেনটাইন আমাদের ভালো লাগার কথা না। বয়স্ক ব্যক্তিরা এইসময় আরও অসহায়বোধ করতে পারে। ফলে পরিবারের সকল সদস্যের উচিত বয়স্ক ব্যক্তিদের প্রতি যত্নশীল হওয়া। তাদের সঙ্গে গল্প করতে হবে। হাসি-তামাসা সবই করতে পারেন।

উৎসাহিত করুন
একেকজনের একেকরকম ভালোলাগার বিষয় থাকে। অনেকে বই পড়তে ভালোবাসেন। আবার কেউ কেউ আছেন নাতি-নাতনিদের নিয়ে সময় কাটাতে ভালোবাসেন। ঘরের টুকটাক কাজের প্রতিও কারো কারো আগ্রহ থাকতে পারে। যেমন- গাছের যত্ন নেয়া, বড়ি তৈরি করা, মুখরোচক খাবার বানানো, আচার করাসহ নানা ধরনের শখ থাকতেই পারে। বাড়ির বয়স্ক ব্যক্তিটি কিসে আনন্দ পায় তা নিশ্চয়ই পরিবারের অন্য সদস্যরা বোঝেন। ফলে এই সময় সেই কাজগুলোতে তাকে উৎসাহিত দিন। তাহলে অন্তত কিছু সময় আনন্দে পার করতে পারবেন তিনি।

97% people not averse to putting elderly in old-age homes: Study

ছাদে যেতে পারেন
বাসায় একঘেয়েমি লাগলে বয়স্ক ও শিশুদের নিয়ে পড়ন্ত বিকেলে একটু ছাদে যেতে পারেন। ছাদবাগান থাকলে সময় আরও ভালো কাটবে। বাসায় ফিরে সাবান পানি দিয়ে হাত ধুয়ে ফেলতে হবে। তবে, ছাদেও অন্য ব্যক্তির সংস্পর্শ এড়িয়ে চলতে হবে। ছাদে যদি লোকজন থাকে তাহলে না যাওয়াই ভালো।

A bit long in the tooth: words and phrases for talking about old ...

এই পরিস্থিতিতে বয়স্ক ব্যক্তির শারীরিক ও মানসিক সুরক্ষা খুবই গুরুত্বের সঙ্গে দেখতে হবে। নিয়মিত চেকআপের অংশ হিসেবে বয়স্ক ব্যক্তিকে চিকিৎসকের কাছে নিতে হলে যথাযথ সুরক্ষা মেনে যেতে হবে।ভালোবাসার শক্তির কাছে পরাজিত হোক মরণঘাতি ভাইরাসের শক্তি। পৃথিবী জানুক, পৃথিবী টিকে থাকে পারস্পরিক ভালোবাসা আর নির্ভরতার বন্ধনে।

এই বিভাগের আরো খবর

কাঁঠালের বিচি খাওয়ার উপকারিতা

অনলাইন ডেস্ক: জাতীয় ফল কাঁঠাল পাকার...

বিস্তারিত
শরীরে রোদ না লাগালে যে সমস্যা হয়

অনলাইন ডেস্ক: চলমান করোনা পরিস্থিতির...

বিস্তারিত
মাত্র একটি খেলাই অতিরিক্ত চর্বি ঝরাবে

অনলাইন ডেস্ক: অনিয়ন্ত্রণ চলাফেরা আর...

বিস্তারিত
মজাদার কাঁচকলার কোফতা কারি

অনলাইন ডেস্ক: ভর্তা, ভাজি, মিক্সড সবজি...

বিস্তারিত
এটিএম মেশিনে ফুচকা 

অনলাইন ডেস্ক: কম বেশি সবাই ফুচকা খেতে...

বিস্তারিত
সুস্বাদু মসুর ডালের কাবাব 

অনলাইন ডেস্ক: কাবাব অনেকেরই...

বিস্তারিত
না ফেলে কাজে লাগান ব্যবহৃত চা পাতা

অনলাইন ডেস্ক : আমাদের দেশে যে পানীয়...

বিস্তারিত
ভিন্ন স্বাদের ভাপা ডিমের কারি

অনলাইন ডেস্ক: ডিম তো কতভাবেই খাওয়া...

বিস্তারিত

0 মন্তব্য

আপনার মতামত প্রকাশ করুন

মন্তব্য প্রকাশ করুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না. প্রয়োজনীয় ক্ষেত্রগুলি চিহ্নিত করা আছে *