বুড়িগঙ্গায় লঞ্চডুবি: ৩২ জনের মরদেহ উদ্ধার

প্রকাশিত: ১০:২৩, ২৯ জুন ২০২০

আপডেট: ০৮:৫৯, ২৯ জুন ২০২০

নিজস্ব প্রতিবেদক: অর্ধশতাধিক যাত্রী নিয়ে বুড়িগঙ্গায় ডুবে যাওয়া লঞ্চ থেকে পর্যন্ত নারী শিশুসহ ৩২ জনের মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। নিখোঁজ অন্য যাত্রীদের উদ্ধারে কাজ করছে নৌবাহিনী, কোস্টগার্ড, নৌ, পুলিশ ফায়ার সার্ভিসের ডুবুরিরা। লঞ্চটির অবস্থান শনাক্ত হলেও এখনো উদ্ধার হয়নি। উদ্ধারকারী জাহাজ নারায়ণগঞ্জ থেকে রওনা হলেও পোস্তাগলা ব্রিজের নীচে আটকে পড়ায় পৌঁছতে পারেনি।

বুড়িগঙ্গায় লঞ্চডুবি, ৩০ লাশ উদ্ধার

রাজধানীর সদরঘাটে পৌঁছাবার ঠিক আগেই আজ (সোমবার) সকালে শ্যামবাজার এলাকায় বুড়িগঙ্গা নদীতে ময়ুর- নামে একটি লঞ্চের ধাক্কায় ডুবে যায় মুন্সিগঞ্জ থেকে আসা মর্নিং বার্ড নামের আরেকটি লঞ্চ। সিসি ক্যামেরার ছবিতে দেখা যায়, মাত্র সেকেন্ডের মধ্যে লঞ্চটি ধাক্কা লেগে পুরোপুরি উল্টে পানিতে তলিয়ে যায়। কয়েকজন যাত্রী সাঁতরে তীরে উঠতে পারলেও বেশিরভাগ যাত্রীই আটকা পড়েন লঞ্চের ভেতর।

দ্রুত উদ্ধারকাজে অংশ নেয় নৌবাহিনী, কোস্টগার্ড, নৌ পুলিশ, ফায়ার সার্ভিসের ডুবুরি দল। সহায়তা করেন স্থানীয়রা। ডুবরিরা পানির নিচ থেকে একে একে তুলে আনতে থাকে লঞ্চে আটকে পড়াদের নিথর দেহ। নারী, শিশুসহ সবার মরদেহগুলো নৌকার উপর সারিবদ্ধ করে রাখা হয়। এর মধ্যেই নিখোঁজদের খুঁজতে নৌকায় চড়েই ছুটে আসেন ঘটনাস্থলে।

বুড়িগঙ্গায় লঞ্চডুবি: ১৭ জনের লাশ ...

উদ্ধারকারীরা জানান, লঞ্চটি উল্টে নদীতে তলিয়ে আছে। ফলে ভেরতে প্রবেশ করে আটকে পড়াদের বের করতে কষ্ট হচ্ছে। এতে উদ্ধার কাজও বাধাগ্রস্ত হচ্ছে।

স্থানীয় মানুষের সহায়তায় উদ্ধারকারীরা একের পর এক মরদেহ উদ্ধার করে তীরে আনে। এছাড়া দুটি হেলিকপ্টার দিয়ে আকাশপথ থেকে নদীতে নিখোঁজ যাত্রীদের খোঁজ করছে র‌্যাব বিমান বাহিনীর সদস্যরা। স্বজনের মরদেহ দেখে অনেকেই কান্নায় ভেঙ্গে পড়েন।

শুরুতেই উদ্ধারকারীরা ডুবে যাওয়া লঞ্চটির অবস্থান শনাক্ত করে খবর দেয় বিআইডব্লিউটিএ উদ্ধারকারী জাহাজ প্রত্যয়কে। জাহাজটি নারায়ণগঞ্জ থেকে রওনা হলেও ঘটনাস্থলের কাছেই পোস্তাগলা ব্রিজের নীচে আটকে পড়ায় পৌঁছতে পারেনি। ফলে ম্যানুয়াল পদ্ধতিতে লঞ্চটি উদ্ধারের চেষ্টা চলছে।

jagonews24

দুর্ঘটনায় অভিযুক্ত লঞ্চটি জব্দ করা হয়েছে। তবে চালক পালিয়ে গেছে। ঘটনা তদন্তে নৌপরিবহন মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে গঠিত সদস্যের কমিটি গঠন করা হয়েছে। তাদেরকে এক সপ্তাহের মধ্যে প্রতিবেদন দিতে বলা হয়েছে। ঘটনার কারণ জানতে তদন্ত কমিটি গঠন করেছে ফায়ার সার্ভিসও।

এদিকে, উদ্ধার করা মরদেহগুলো নেয়া হয়েছে মিটফোর্ড হাসপাতালে। সেখান থেকে স্বজনদের মাঝে মরদেহ  হস্তান্তর করা হচ্ছে। দাফন-কাফনের জন্য নিহতদের পরিবারকে তাৎক্ষণিক ১০ হাজার টাকা দেড় লাখ টাকা ক্ষতিপূরণ দেয়ার ঘোষণা দিয়েছেন নৌ প্রতিমন্ত্রী।

নিহতদের অধিকাংশেরই বাড়ি মুন্সিগঞ্জের বিভিন্ন এলাকায়। সেখানেও এখন শোকের মাতম। থামছে না স্বজনদের কান্না আর বুকফাটা আহাজারি।

এই বিভাগের আরো খবর

নির্ধারিত সময়ে হচ্ছে না চসিক নির্বাচন 

নিজস্ব প্রতিবেদক: চট্টগ্রাম সিটি...

বিস্তারিত
করোনামুক্ত হলেন মাশরাফি

নিজস্ব প্রতিবেদক: করোনামুক্ত হয়েছেন...

বিস্তারিত
রিজেন্টের এমডি গ্রেফতার, এখনো পলাতক সাহেদ

নিজস্ব প্রতিবেদক : রিজেন্ট গ্রুপের...

বিস্তারিত
মুক্তিযুদ্ধের সংগঠক শাহজাহান সিরাজ আর নেই

নিজস্ব সংবাদদাতা: বিএনপি নেতা ও সাবেক...

বিস্তারিত
চিরনিদ্রায় শায়িত নুরুল ইসলাম

নিজস্ব প্রতিবেদক:  শ্রদ্ধা আর...

বিস্তারিত
গত ২৪ ঘণ্টায় মৃত্যু ৩৩, শনাক্ত ৩১৬৩  

নিজস্ব প্রতিবেদক: দেশে করোনাভাইরাসে...

বিস্তারিত
জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ডিবিতে সাবরিনা

নিজস্ব প্রতিবেদক: তেজগাঁও থানা থেকে...

বিস্তারিত

0 মন্তব্য

আপনার মতামত প্রকাশ করুন

মন্তব্য প্রকাশ করুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না. প্রয়োজনীয় ক্ষেত্রগুলি চিহ্নিত করা আছে *