১১টি নদীর পানি বিপদসীমার ওপরে

প্রকাশিত: ০৮:০২, ৩০ জুন ২০২০

আপডেট: ০৯:৫৮, ৩০ জুন ২০২০

নিজস্ব প্রতিবেদক: দেশের বিভিন্ন স্থানে নদনদীর পানি বাড়তে থাকায় বন্যা পরিস্থিতির অবনতি হচ্ছে। উত্তর উত্তর-পূর্বাঞ্চলে পানিবন্দী লাখো মানুষ। পদ্মা যমুনায় পানি বাড়ায় দেশের মধ্যাঞ্চলেও দেখা দিয়েছে বন্যা। এদিকে, বন্যা পূর্বাভাস সতর্কীকরণ কেন্দ্র জানিয়েছে, দেশের ১১টি নদীর ১৫টি পয়েন্টের পানি বিপদসীমার ওপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। আগামী ২৪ ঘণ্টায় উত্তর-পূর্বাংশের বন্যা পরিস্থিতি অপরিবর্তিত থাকলেও সিলেট সুনামগঞ্জের অবস্থার উন্নতি হতে পারে। সারাদেশের বন্যা পরিস্থিতিতে কন্ট্রোল রুম চালু করেছে পানি সম্পদ মন্ত্রণালয়।

যে ১৫ পয়েন্ট দিয়ে পানি বিপদসীমার ওপরে প্রবাহিত হচ্ছে, সেগুলো হলো ধরলা নদীর কুড়িগ্রাম পয়েন্ট, ঘাগট নদীর গাইবান্ধা পয়েন্ট, ব্রহ্মপুত্র নদীর নুনখাওয়া চিলমারী পয়েন্ট, যমুনা নদীর ফুলছড়ি, বাহাদুরাবাদ, সারিয়াকান্দি, কাজীপুর, সিরাজগঞ্জ পয়েন্ট, আত্রাই নদীর বাঘাবাড়ি পয়েন্ট, ধলেশ্বরীর এলাসিন, পদ্মার গোয়ালন্দ, সুরমার কানাইঘাট সুনামগঞ্জ পয়েন্ট এবং পুরাতন সুরমার দিরাই এলাকায় পানি বিপদসীমার ওপরে অবস্থান করছে।

বন্যা পূর্বাভাস সতর্কীকরণ কেন্দ্রের নির্বাহী প্রকৌশলী আরিফুজ্জামান ভুইয়া জানিয়েছেন, এখন যে পরিস্থিতি আছে তা আগামী - দিন প্রায় একই রকম থাকবে। এরপর আবার বৃষ্টি শুরু হলে পানি বাড়তে পারে। এতে দেশের উত্তর-পূর্ব মধ্যাংশের যেসব এলাকা এখন প্লাবিত, সেখানে পানির উচ্চতা বাড়বে এবং নতুন নতুন এলাকা প্লাবিত হওয়ার শঙ্কা রয়েছে।

তিনি আরও বলেন, এরমধ্যে সিলেট সুনামগঞ্জের পরিস্থিতি ভালো হবে। তবে আগামী সপ্তাহে ওই এলাকাগুলো আবার প্লাবিত হতে পারে বলে আশঙ্কা প্রকাশ করেন তিনি।

সতর্কীকরণ কেন্দ্রের পূর্বাভাসে বলা হয়, ব্রহ্মপুত্র-যমুনার পানি সমতল স্থিতিশীল আছে, যা আগামী ৪৮ ঘণ্টা পর্যন্ত অব্যাহত থাকতে পারে। গঙ্গা-পদ্মার পানি সমতল বৃদ্ধি পাচ্ছে, যা আগামী ৪৮ ঘণ্টা পর্যন্ত অব্যাহত থাকতে পারে। আবার মেঘনা অববাহিকার প্রধান নদীগুলোর পানি সমতল কমছে, যা আগামী ৪৮ ঘণ্টা পর্যন্ত অব্যাহত থাকতে পারে।

পূর্বাভাসে আরও বলা হয়, আগামী ২৪ ঘণ্টায় যমুনা নদীর আরিচা এবং ৪৮ ঘণ্টায় পদ্মা নদীর ভাগ্যকূল পয়েন্টে পানি বিপদসীমা অতিক্রম করতে পারে। এদিকে আগামী ২৪ ঘণ্টায় কুড়িগ্রাম, গাইবান্ধা, বগুড়া, জামালপুর, সিরাজগঞ্জ টাঙ্গাইল জেলার বন্যা পরিস্থিতি স্থিতিশীল থাকতে পারে। অন্যদিকে সিলেট সুনামগঞ্জে বন্যা পরিস্থিতির উন্নতি হতে পারে।

বন্যা পরিস্থিতির পর্যবেক্ষণে কন্ট্রোলরুম চালুর বিষয়ে পানি সম্পদ মন্ত্রণালয়ের জনসংযোগ কর্মকর্তা আসিফ আহমেদ জানান, বন্যা পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণ তথ্য সংগ্রহে কন্ট্রোল রুম চালু করা হয়েছে। কন্ট্রোল রুমের নম্বর হচ্ছে ০১৩১৮-২৩৪৫৬০।

এই বিভাগের আরো খবর

নাটোরে ফেসবুকে স্ট্যাটাস দিয়ে আত্মহত্যা

নাটোর সংবাদদাতা: ফেসবুকে স্ট্যাটাস...

বিস্তারিত
টেকনাফে গোলাগুলিতে মাদক কারবারি নিহত 

কক্সবাজার সংবাদদাতা: কক্সবাজারের...

বিস্তারিত
পানি বেড়ে বন্যা পরিস্থিতির অবনতি

অনলাইন ডেস্ক : ভারী বৃষ্টি ও উজান থেকে...

বিস্তারিত
ভরা মৌসুমেও মিলছে না ইলিশ

লক্ষ্মীপুর সংবাদদাতা: লক্ষ্মীপুরে...

বিস্তারিত
করোনায় থমকে গেছে কক্সবাজারের পর্যটন খাত

কক্সবাজার সংবাদদাতা: দীর্ঘ লকডাউনে...

বিস্তারিত

0 মন্তব্য

আপনার মতামত প্রকাশ করুন

মন্তব্য প্রকাশ করুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না. প্রয়োজনীয় ক্ষেত্রগুলি চিহ্নিত করা আছে *